শিরোনাম

  নৌকার জয় সুনিশ্চিত : প্রধানমন্ত্রী   আজ ইউপিডিএফ’র ২০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী   এবার থাইল্যান্ডে বৈধ হলো গাঁজা   ইউপিডিএফ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সকলকে সংগ্রামী শুভেচ্ছা জানালেন প্রসিত বিকাশ খীসা   চীনা শিশুরা আর স্কুল পালাতে পারবে না!   আবার ক্ষমতায় গেলে ভুল সংশোধন করা হবে : কাদের   প্রধানমন্ত্রী থেকে মাতৃভাষার বই পেয়েছে ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠীর শিশুরা   শুভ বড়দিন আজ   রোহিঙ্গাদের জন্য শীতবস্ত্র পাঠাল ভারত   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪০০ অধিক ছাড়িয়েছে   টাকার মালা উপহার পেলেন ফখরুল!   মধ্যরাত থেকে নির্বাচনী মাঠে সেনাবাহিনী   ভোটের দিন ২৪ ঘণ্টা সব যান চলাচল বন্ধ   সেনা মোতায়েনে ভোটারদের মধ্যে আস্থা ফিরে আসবে: সিইসি   পানছড়িতে ইউপিডিএফের নির্বাচনী অফিসে এলোপাতাড়ি ব্রাশ ফায়ারে ২ জন নিহত!   জেএসসি ও পিইসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ   আগামী ৩০ তারিখ আমরা নৌকার বিজয় নিয়ে ঘরে ফিরবো: দীপংকর তালুকদার   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২২২ জন   যারা মানুষ পুড়িয়ে মারে তাদের ভোট দেবেন নাঃ প্রধানমন্ত্রী   ২৮ ডিসেম্বর থেকে ১ জানুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত ৪ দিন মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা
প্রচ্ছদ / আন্তর্জাতিক / খারাপ মন্তব্য করায় বাংলাদেশের সমালোচনার মুখে মিয়ানমারের এই মন্ত্রী

খারাপ মন্তব্য করায় বাংলাদেশের সমালোচনার মুখে মিয়ানমারের এই মন্ত্রী

প্রকাশিত: ২০১৮-১২-০৬ ১০:২৪:৫৬

   আপডেট: ২০১৮-১২-০৬ ১০:২৭:০৩

রয়টার্স >>

মিয়ানমারের বাংলাদেশবিরোধী, রোহিঙ্গাবিরোধী ও ইসলামবিরোধী নীতির তীব্র প্রতিবাদ করেছে বাংলাদেশ। এই বর্ণবৈষম্যমূলক নীতির প্রতিবাদ করার জন্য বুধবার (৫ ডিসেম্বর) মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত লুইন উ কে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করা হয়।

সম্প্রতি মিয়ানমারের ধর্মীয় বিষয়ক মন্ত্রী থুরা উ অং কো গত ২৭ নভেম্বর এক শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে ইসলাম ধর্মকে উদ্দেশ করে বলেন, ’চরমপন্থী ধর্ম’ বৌদ্ধদের জন্য একটি বড় ঝুঁকি।

তিনি বলেন, ‘যখন আমরা বৌদ্ধরা একক স্ত্রী চর্চা করি এবং এক বা দুইটি সন্তানের জনক হই, তখন একটি চরমপন্থী ধর্ম তিন বা চারটি স্ত্রী রাখার পক্ষে উৎসাহিত করে এবং তাদের ১৫-২০ টি সন্তান হয়।’তিন, চার বা পাঁচ দশক পরে এই বৌদ্ধ ধর্মাবলাম্বী দেশে বৌদ্ধরা সংখ্যালঘু হয়ে পড়বে বলে তিনি মন্তব্য করেন।

এরপর গত মঙ্গলবার মিয়ানমারের রাজধানী নেইপিডোতে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে ওই মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে সাত লাখ রোহিঙ্গা আছে এবং দেশটি রোহিঙ্গাদের ফেরত যেতে বাধা দিচ্ছে এবং বাংলাদেশ এর মাধ্যমে টাকা আয় করছে।

থুরা আরও অভিযোগ করেন, রোহিঙ্গা যুবকদের মাথা নষ্ট করা হচ্ছে এবং তারা মিয়ানমারের উদ্দেশে যে কোনও সময়ে মার্চ করবে।একজন কর্মকর্তা বলেন, ‘আমরা মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে বলেছি তাদের মন্ত্রীর মন্তব্য সম্পূর্ণভাবে অগ্রহণযোগ্য এবং তার বক্তব্য মুসলিমদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করেছে।’ এসময় ওই মন্ত্রীকে এমন মন্তব্য করার জন্য বাংলাদেশের কাছে ক্ষমা চাইতেও বলা হয়েছে।

বাংলাদেশ ও মিয়ানমার গত ২৩ নভেম্বর বাস্তচ্যুত মিয়ানমার অধিবাসীদের ফেরত পাঠানোর জন্য চুক্তি স্বাক্ষর করেছে এবং এই চুক্তি অনুযায়ী মন্ত্রী তাদেরকে ‘বাঙালি’ বলতে পারে না বলে তিনি জানান।

আমরা রাষ্ট্রদূতকে বলেছি তাদের মন্ত্রীর ইতিহাস, সংস্কৃতি ও ধর্ম বিষয়ে কোনও জ্ঞান নেই।

তিনি বলেন, রাষ্ট্রদূতকে বলা হয়েছে ঐতিহাসিকভাবে বাংলাদেশ মিয়ানমারের থেকে সমৃদ্ধশালী ছিল এবং কখনোই বাঙালিরা সীমান্ত অতিক্রম করে রাখাইনে গিয়ে ঘরবাড়ি তৈরি করেনি।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত