শিরোনাম

  নৌকার জয় সুনিশ্চিত : প্রধানমন্ত্রী   আজ ইউপিডিএফ’র ২০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী   এবার থাইল্যান্ডে বৈধ হলো গাঁজা   ইউপিডিএফ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সকলকে সংগ্রামী শুভেচ্ছা জানালেন প্রসিত বিকাশ খীসা   চীনা শিশুরা আর স্কুল পালাতে পারবে না!   আবার ক্ষমতায় গেলে ভুল সংশোধন করা হবে : কাদের   প্রধানমন্ত্রী থেকে মাতৃভাষার বই পেয়েছে ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠীর শিশুরা   শুভ বড়দিন আজ   রোহিঙ্গাদের জন্য শীতবস্ত্র পাঠাল ভারত   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪০০ অধিক ছাড়িয়েছে   টাকার মালা উপহার পেলেন ফখরুল!   মধ্যরাত থেকে নির্বাচনী মাঠে সেনাবাহিনী   ভোটের দিন ২৪ ঘণ্টা সব যান চলাচল বন্ধ   সেনা মোতায়েনে ভোটারদের মধ্যে আস্থা ফিরে আসবে: সিইসি   পানছড়িতে ইউপিডিএফের নির্বাচনী অফিসে এলোপাতাড়ি ব্রাশ ফায়ারে ২ জন নিহত!   জেএসসি ও পিইসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ   আগামী ৩০ তারিখ আমরা নৌকার বিজয় নিয়ে ঘরে ফিরবো: দীপংকর তালুকদার   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২২২ জন   যারা মানুষ পুড়িয়ে মারে তাদের ভোট দেবেন নাঃ প্রধানমন্ত্রী   ২৮ ডিসেম্বর থেকে ১ জানুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত ৪ দিন মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা
প্রচ্ছদ / আন্তর্জাতিক / স্কুল প্রতিষ্ঠা করে গরীব ছেলে-মেয়েদের পড়াতে চান মিয়ানমারের আলোচিত এই ভিক্ষু

স্কুল প্রতিষ্ঠা করে গরীব ছেলে-মেয়েদের পড়াতে চান মিয়ানমারের আলোচিত এই ভিক্ষু

প্রকাশিত: ২০১৮-১১-২৬ ১৬:৪২:২১

   আপডেট: ২০১৮-১১-২৬ ১৬:৪৭:৩২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক >>

আন্তর্জাতিক মিডিয়াতে ব্যাপক সমালোচনাধারী রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে প্রচারণা চালানোর জন্য জাতীয়তাবাদী ধর্ম প্রচারক আশিয়ান উইরাথুকে গত বছর জনসম্মুখে প্রচারণা চালানো নিষিদ্ধ করে মিয়ানমার সরকার।

গেল বছর ৯ মার্চ সাম্প্রদায়িক ঘৃণাত্মক বক্তব্য ছড়িয়ে দেওয়ার কারণে তাঁর মাধ্যমে ধর্ম দেশনা ও প্রচারণা নিষিদ্ধ করা হয়।

এই পদক্ষেপটি মিয়ানমারের সবচেয়ে বিজ্ঞ বৌদ্ধ সন্ন্যাসী সংঘমহানায়ক 'মা মা না' তাকে ধর্মপ্রচার বন্ধ করার জন্য নিষিদ্ধ ঘোষণা করেন।

তবে মেয়াদ শেষ হয়ে তিনি আবার ধর্মপ্রচার করছেন বলে জানা গেছে।

ইরাবতির রিপোর্টে বলা হচ্ছে, মিয়ানমার মান্দালয় অঞ্চলে একটি বেসরকারী স্কুল প্রতিষ্ঠা করার জন্য তিনি সরকার থেকে অনুমোদন নিচ্ছেন।

উইরাথু বলেছেন, এ স্কুল প্রতিষ্ঠা করার মূল উদ্দেশ্য হল বিনামূল্য গরীব শিশুদের পাঠদান করানো।
কিন্তু সরকার থেকে তিনি অনুমোদন পাবেন কিনা সেটা বলা যাচ্ছে না। কারণ যে জায়গায় তিনি বিদ্যালয় স্থাপন করতে চান সেই জায়গায়ে অন্য সম্প্রদায়ের জন্য হওয়ার কথা রয়েছে।

তিনি বলেন, আমরা আর আর অপেক্ষা করতে পারছি না, তাই আমরা নির্মাণ শুরু করবো কি না ভাবছি। সরকার যদি গণতন্ত্রকে অনুসরণ না করে, আইনের শাসনকে অপব্যবহার করে তাহলে আমাদের বিকল্প পন্থা অনুসরণ করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, গত জুলাই মাসে মান্দালয় অঞ্চলের মুখ্যমন্ত্রী ইউ জাউ মায়ান্ত থেকে জায়গার জন্য অনুমতি চেয়েছিলেন।

তিনি সাংবাদিকদের একটি চিঠি হস্তান্তর করেন। স্কুল প্রতিষ্ঠা করার জন্য গঠিত কমিটিতে প্রাক্তন আঞ্চলিক মুখ্যমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সচিবসহ সাবেক সরকারি কর্মকর্তা ও রয়েছে বলে প্রাপ্ত চিঠিতে রয়েছে।

স্কুলটি যদি প্রতিষ্ঠা করার জন্য অনুমোদন হয় তাহলে ২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষে চালু হওয়ার কথা রয়েছে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত