শিরোনাম

  নৌকার জয় সুনিশ্চিত : প্রধানমন্ত্রী   আজ ইউপিডিএফ’র ২০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী   এবার থাইল্যান্ডে বৈধ হলো গাঁজা   ইউপিডিএফ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সকলকে সংগ্রামী শুভেচ্ছা জানালেন প্রসিত বিকাশ খীসা   চীনা শিশুরা আর স্কুল পালাতে পারবে না!   আবার ক্ষমতায় গেলে ভুল সংশোধন করা হবে : কাদের   প্রধানমন্ত্রী থেকে মাতৃভাষার বই পেয়েছে ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠীর শিশুরা   শুভ বড়দিন আজ   রোহিঙ্গাদের জন্য শীতবস্ত্র পাঠাল ভারত   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪০০ অধিক ছাড়িয়েছে   টাকার মালা উপহার পেলেন ফখরুল!   মধ্যরাত থেকে নির্বাচনী মাঠে সেনাবাহিনী   ভোটের দিন ২৪ ঘণ্টা সব যান চলাচল বন্ধ   সেনা মোতায়েনে ভোটারদের মধ্যে আস্থা ফিরে আসবে: সিইসি   পানছড়িতে ইউপিডিএফের নির্বাচনী অফিসে এলোপাতাড়ি ব্রাশ ফায়ারে ২ জন নিহত!   জেএসসি ও পিইসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ   আগামী ৩০ তারিখ আমরা নৌকার বিজয় নিয়ে ঘরে ফিরবো: দীপংকর তালুকদার   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২২২ জন   যারা মানুষ পুড়িয়ে মারে তাদের ভোট দেবেন নাঃ প্রধানমন্ত্রী   ২৮ ডিসেম্বর থেকে ১ জানুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত ৪ দিন মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা
প্রচ্ছদ / আন্তর্জাতিক / রোহিঙ্গা বিদ্রোহী (আরসার) ভয়ে রোহিঙ্গারা মিয়ানমারে ফিরেনি: পুনর্বাসন মন্ত্রী

রোহিঙ্গা বিদ্রোহী (আরসার) ভয়ে রোহিঙ্গারা মিয়ানমারে ফিরেনি: পুনর্বাসন মন্ত্রী

প্রকাশিত: ২০১৮-১১-১৭ ১৭:৫৬:৩০

   আপডেট: ২০১৮-১১-১৭ ১৮:০৫:৫২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক >>

গত (বৃহস্পতিবার) ১৫ নভেম্বর রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু প্রত্যাবাসন শুরুর আগেই রোহিঙ্গা ক্যাম্প ছেড়ে পালিয়েছেন প্রত্যাবাসনের জন্য সনাক্ত হওয়া রোহিঙ্গারা।

রোহিঙ্গারা দাবি করেছেন- নিরাপত্তা নিশ্চিত করা ও স্বদেশের জায়গা জমি ফেরতসহ কয়েকটি দাবি। একারণে গত বৃহস্পতিবার তারা কয়েক দফা দাবিতে টেকনাফের উনচিপ্রাং ক্যাম্পে বিক্ষোভ করছিলেন।

যে কারণে বৃহস্পতিবারে সকালে প্রত্যাবাসনের জন্য কোনো রোহিঙ্গাকে খুঁজে পাওয়া যায়নি।

শরণার্থী, ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন বিষয়ক কমিশনার মোহাম্মদ আবুল কালাম বলেছেন, প্রথম দফা প্রত্যাবাসনের জন্য তালিকাভুক্ত রোহিঙ্গারা স্বেচ্ছায় ফেরত যেতে চাইলে তাদের মিয়ানমারে পাঠানো হবে।

তবে প্রস্তুতি চূড়ান্ত করা হলেও প্রত্যাবাসনে রোহিঙ্গাদের অনীহার ফলে গোটা প্রক্রিয়া কিছুটা অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। প্রথম দফায় যে ৫০টি রোহিঙ্গা পরিবারের ১৫০ জনকে দিয়ে বৃহস্পতিবার প্রত্যাবাসন শুরুর কথা, জাতিসংঘ শরণার্থী সংস্থাকে (ইউএনএইচসিআর) তারা বলেছে তারা কেউই মিয়ানমারে ফিরতে চায় না।

এদিকে সমাজ কল্যাণ মন্ত্রী, ত্রাণ ও পুনর্বাসন মন্ত্রী ইউ উইন মিয়াত আয়ে বলেছেন, বৃহস্পতিবারে তালিকাভুক্ত রোহিঙ্গাদের সেখানেপ্রত্যাবাসন কথা ছিল। কিন্তু তা সফল হয়নি।মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের সরকার এদিন রোহিঙ্গাদের স্বাগত জানানোর জন্য কেন্দ্রে উপস্থিত ছিলেন।

তবে কি কারণে রোহিঙ্গারা আসেনি সেসব কারণ মিয়ানমার সংবাদমাধ্যম ইরাবতি জানিয়েছে।

মন্ত্রী ইউ উইন মিয়াত আয়ে বলেছেন, রোহিঙ্গা বিদ্রোহী গোষ্ঠী আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি (আরসার) সহযোগীরা বাংলাদেশ ছেড়ে মিয়ানমারে না যেতে রোহিঙ্গাদের হুমকি দিয়েছে। তাদেরকে নানাবিধ ভয়ভীতি দেখিয়ে প্রত্যাবাসন বানচাল করে দিয়েছে। স্বেচ্ছায় মিয়ানমারে ফিরে যেতে চায় বাংলাদেশের আশ্রয় শিবিরে থাকা এমন রোহিঙ্গারা ভাইবার ব্যবহার করে মিয়ানমার সরকারকে জানিয়েছে, তাদেরকে প্রত্যাবাসনের ফরম ফিলাপ করতে দেওয়া হচ্ছে না আরসা বাহিনী।

এই মন্ত্রী আরো বলেছেন, শুধু হুমকি নয়,রোহিঙ্গা বিদ্রোহী গোষ্ঠী আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি (আরসা) আশ্রয় শিবির থেকে যারা মিয়ানমারে ফিরে আসতে চায় তাদের কয়েকজনকে নির্যাতন করা হয়েছে, এমন কি হত্যাও করা হয়েছে।যে কারণে রোহিঙ্গারা সঠিক সময়ে ফিরতে পারছেনা।

২০১৭ সালের আগস্ট মাসে রোহিঙ্গা বিদ্রোহী গোষ্ঠী আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মি (আরসা) মিয়ানমার সেনাবাহিনীর চোকিতে হামলার পর সন্ত্রাসীদের দমন করার নামে রোহিঙ্গা অধ্যশিত এলাকায় সামরিক অভিযান শুরু করেছিল মিয়ানমার। এর পর লক্ষ লক্ষ রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে আসে।

 

আপনার মন্তব্য

আলোচিত