শিরোনাম

  নৌকার জয় সুনিশ্চিত : প্রধানমন্ত্রী   আজ ইউপিডিএফ’র ২০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী   এবার থাইল্যান্ডে বৈধ হলো গাঁজা   ইউপিডিএফ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সকলকে সংগ্রামী শুভেচ্ছা জানালেন প্রসিত বিকাশ খীসা   চীনা শিশুরা আর স্কুল পালাতে পারবে না!   আবার ক্ষমতায় গেলে ভুল সংশোধন করা হবে : কাদের   প্রধানমন্ত্রী থেকে মাতৃভাষার বই পেয়েছে ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠীর শিশুরা   শুভ বড়দিন আজ   রোহিঙ্গাদের জন্য শীতবস্ত্র পাঠাল ভারত   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪০০ অধিক ছাড়িয়েছে   টাকার মালা উপহার পেলেন ফখরুল!   মধ্যরাত থেকে নির্বাচনী মাঠে সেনাবাহিনী   ভোটের দিন ২৪ ঘণ্টা সব যান চলাচল বন্ধ   সেনা মোতায়েনে ভোটারদের মধ্যে আস্থা ফিরে আসবে: সিইসি   পানছড়িতে ইউপিডিএফের নির্বাচনী অফিসে এলোপাতাড়ি ব্রাশ ফায়ারে ২ জন নিহত!   জেএসসি ও পিইসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ   আগামী ৩০ তারিখ আমরা নৌকার বিজয় নিয়ে ঘরে ফিরবো: দীপংকর তালুকদার   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২২২ জন   যারা মানুষ পুড়িয়ে মারে তাদের ভোট দেবেন নাঃ প্রধানমন্ত্রী   ২৮ ডিসেম্বর থেকে ১ জানুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত ৪ দিন মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা
প্রচ্ছদ / আন্তর্জাতিক / থাইল্যান্ডের গুহায় আটকা পড়া কিশোররা হাসপাতাল ছেড়েছে

থাইল্যান্ডের গুহায় আটকা পড়া কিশোররা হাসপাতাল ছেড়েছে

প্রকাশিত: ২০১৮-০৭-১৮ ২২:৫৬:২৫

   আপডেট: ২০১৮-০৭-১৮ ২২:৫৮:১২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

গুহা থেকে উদ্ধার হওয়া থাইল্যান্ডের কিশোর ফুটবলাররা আজ হাসপাতাল ছেড়েছে। হাসপাতাল ছাড়ার পর বুধবার বিকেলে তাদেরকে আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে হাজির করা হয়।প্রায় আটদিন চিকিৎসা নেবার পর প্রথমবারের মতো জনসম্মুখে এসেছে গুহায় আটকে পড়া থাই কিশোরদের দলটি।

সেখানে তারা গুহায় আটকে থাকা ও উদ্ধার হওয়া সম্পর্কে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন।

রুদ্ধশ্বাস অভিযানে থাম লুয়াং গুহা থেকে উদ্ধার হওয়ার পর থেকে চিয়াং রাই হাসপাতালে চিকিৎসকদের তত্ত্বাবধানে ছিল কিশোর দল।
সংবাদ সম্মেলনে শেষে শেষে ওয়াইল্ড বোরস দলের এসব ক্ষুদে ফুটবলার স্বাভাবিক জীবনে ফিরে যাবে। তবে বাড়ি ফেরার পরও দীর্ঘ সময় চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে থাকবে তারা। থাইল্যান্ডের প্রথা অনুযায়ী কিছুদিন বৌদ্ধ ভীক্ষুর জীবনও কাটাতে হতে পারে তাদের।

উদ্ধার অভিযান চলকালে সামান কুমান নামে থাই নৌবাহিনীর ডুবরি মারাযান। কিশোরদের কোচ একাপল চানটাওয়াং তার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

তিনি বলেন, আমাদের উদ্ধারের জন্য সামান নিজের জীবন দিয়েছেন। আমদের বাঁচানোর জন্য তিনি সর্বোচ্চ চেষ্টা করেছেন। তার মৃত্যুর সংবাদটি শোনার পর আমরা হতাশ হয়ে পড়েছিলাম। আমরা তার প্রতি গভীর শোক প্রকাশ করছি।

সবাইকেই বের করতে সফল হয় উদ্ধারকারী দল। তিন দিনের রুদ্ধশ্বাস অভিযান শেষে অবশেষে গত সপ্তাহে সাফল্য আসে। এই খবরের অপেক্ষাতেই ছিলেন কিশোরদের পরিবার পরিজন থেকে গোটা বিশ্ব।

হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফেরার আগে থাই কিশোরা সবার সামনে নিজেদের ফুটবল শৈলীও প্রদর্শন করে দেখান। পরে নিজ নিজ পরিবারের কাছে তাদেরকে হস্তান্তর করে থাই কর্তৃপক্ষ।

থাই সরকারের প্রধান মুখপাত্র সানসার্ন কায়েউকুনার্ড এএফপিকে বলেন, ‘হাসপাতাল ছাড়ার পর গণমাধ্যমের সঙ্গে যোগাযোগ তাদের স্বাভাবিক জীবনকে যেন ব্যাহত না করে, সেটি নিশ্চিত করতেই আজকের সংবাদ সম্মেলন।’

গত ১০ জুলাই মঙ্গলবার ছিল অভিযানের তৃতীয় দিন। রুদ্ধশ্বাস অপারেশনের এদিন ছিল শেষ পর্যায়। সকালে বৃষ্টি শুরু হয় উদ্ধারকাজ নিয়ে বাড়তে থাকে আশঙ্কা। আবহাওয়ার প্রতিকূলতা কাটিয়ে স্থানীয় সময় সকাল ১০টার দিকে চার কিশোর ফুটবলারসহ তাদের কোচকে গুহা থেকে বার করে আনার জন্য শুরু হয় তোড়জোড়।

শেষ পর্যন্ত স্থানীয় সময় ৫টার দিকে যখন শেষজনকে গুহা থেকে বের করে আনা হয়, তখন হাঁফ ছাড়ে সবাই। অভিযানকারী দলের উদ্দেশ্যে বিশ্বের নানা প্রান্ত থেকে তখন ভেসে আসছে সাফল্যের বার্তা।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত