শিরোনাম

  ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠীর জন্য মাতৃভাষায় পুস্তক প্রকাশনার বিধান রেখে খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা   সরকারী চাকরিতে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ও পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জন্য কোটা না হলেও সমস্যা হবে না   রুয়েটে ভর্তি পরীক্ষার আবেদন শুরু   দুই আদিবাসী কিশোরী ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্তদের সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি   দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টি ও ভারী বর্ষণ হতে পারে   আদিবাসী মানবাধিকার সুরক্ষাকর্মীদের সম্মেলন ২০১৮ উদযাপন   ব্লগার বাচ্চু হত্যার সঙ্গে ‘জড়িত’ ২ জঙ্গি নিহত   জুমের বাম্পার ফলনে রাঙ্গামাটির চাষিদের মুখে হাসি   সরকারি চাকরিতে আদিবাসী কোটা বহাল দাবি জানাল আদিবাসীরা   আয়ারল্যান্ড প্রবাসী বাংলাদেশের এক মন্ত্রী দ্বারা হেনস্ত হওয়াতে হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের নিন্দা   শেখ হাসিনার জনপ্রিয়তা উল্লেখযোগ্য বৃদ্ধি পেয়েছে   মিয়ানমারে রয়টার্সের দুই সাংবাদিককে সাত বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত   শহীদ আলফ্রেড সরেন হত্যার ১৮ বছর: হত্যাকারীদের দ্রুত বিচারের দাবি জাতীয় আদিবাসী পরিষদের   ভারতের কাছে ১-০ গোলে হেরেছে বাংলাদেশের মেয়েরা   সরকারী চাকরিতে নিয়োগের ক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধা ছাড়া সব কোটা বাতিল হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী   জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনান মারা গেছেন   ঈদের ছুটি কাটানো হলোনা টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ার নিরীহ ধীরাজ চাকমার   খাগড়াছড়িতে পৃথক ঘটনার জন্য জেএসএস(সংস্কারবাদী) ও নব্য মুখোশ বাহিনীকে দায়ী করেছে : ইউপিডিএফ   নানিয়ারচর থেকে খাগড়াছড়ি   খাগড়াছড়িতে ৬ জনকে গুলি করে হত্যা !
প্রচ্ছদ / আন্তর্জাতিক / জাপানে ধর্মীয় নেতাসহ সাতজনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর

জাপানে ধর্মীয় নেতাসহ সাতজনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর

প্রকাশিত: ২০১৮-০৭-০৬ ১৩:২৭:০২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

জাপানে উগ্রবাদী মিশ্র ধর্মীয় সংগঠন আম শিনরিকোর নেতাসহ সাতজনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। সংগঠনটির নেতা শোকো আসাহারার মৃত্যুদণ্ড শুক্রবার (৬ জুলাই) সকালে টোকিওর একটি কারাগারে কার্যকর করা হয় বলে নিশ্চিত করেছেন মন্ত্রী পরিষদ প্রধান ইওশিহিদি সুগা। আসাহারার পর পরই বাকি ছয়জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয় বলে জাপানি গণমাধ্যমে বলা হয়েছে।

জাপানি গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে বিবিসি ও বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, হিন্দু ও বৌদ্ধ এবং পরবর্তীতে খ্রিস্ট ধর্মীয় বিশ্বাসের সংমিশ্রনে নতুন একটি ধর্ম বিশ্বাসের ভিত্তিতে গঠিত সংগঠনটির অন্তত আরো ছয়জন সদস্য মৃত্যুদণ্ডের তালিকায় রয়েছে। যাদের মৃত্যুদণ্ড শিগরিরই কার্যকর করা হতে পারে।

এর আগে জানুয়ারিতে এই মৃত্যুদণ্ড স্থগিত করা হয়। কারণ জাপানি আইন অনুযায়ী সকল অভিযুক্তের বিচার চূড়ান্ত না হওয়া পর্যন্ত কারও মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা যায় না। সকলের আপিল নিষ্পত্তি হলে একজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হয়। এরপরই শুক্রবার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হলো।


প্রসঙ্গত, আসাহারার বিরুদ্ধে আরো মানুষ হত্যার অভিযোগ রয়েছে। ১৯৯৫ সালে সংগঠনটির সদস্যরা রাজধানী টোকিওর একটি রেল স্টেশনে সারিন গ্যাস নিক্ষেপ করে।

এতে অন্তত ১৩ জনের মৃত্যু হয় এবং এক হাজারের বেশি লোক আহত হয়। জাপানে যেটি সবচেয়ে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা।

এর আগে ১৯৯৪ সালে আসাহারার সংগঠনের পক্ষ থেকে আরেকটি সারিন গ্যাস হামলা চালানো হয়। এতে অন্তত ৮ জন নিহত এবং ছয় শতাধিক লোক আহত হয়।

উল্লেখ্য, শোকো আসাহারা, চিঝু ম্যাতসুমোটো নামেও পরিচিত, ১৯৮০ সালে ওই সংগঠন প্রতিষ্ঠা এবং বুদ্ধের পর নিজেকে দীক্ষাপ্রাপ্ত লোক বলে দাবি করেন।

আম শিনরিকো ১৯৮৯ সালে জাপানে একটি ধর্মীয় সংগঠন হিসেবে সরকারি স্বীকৃতি লাভ করে। এরপর অল্প সময়ের মধ্যে এটি বিশ্বের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হয় এবং বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের হাজার হাজার লোক এর অনুসারী হয়।

কিন্তু ১৯৯৫ সালের ওই হামলার পর এটি আন্ডারগ্রাউন্ডে চলে যায়। তবে একেবারে অদৃশ্য হয়ে যায়নি। বরং আলেফ বা হিকারি নো ওয়া নাম ধারণ করে কার্যক্রম চালাতে শুরু করে। আম শিনরিকো যুক্তরাষ্ট্র ও অন্যান্য বেশ কিছু দেশে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে তালিকাভুক্ত। কিন্তু আলেফ বা হিকারি নো ওয়া জাপানে একটি বৈধ সংগঠন। যদিও এটিকে একটি ‘ভয়ংকর ধর্মীয়’ সংগঠন হিসেবে বিবেচনা এবং কড়া নজরদারি রাখা হয়।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত