শিরোনাম

  ছেলেদের চেয়ে এবারও এগিয়ে মেয়েরা   চট্টগ্রাম বোর্ডের পাশের হার ৬২.৭৩ %   যারা ফেল করেছে তাদের বকাঝকা করবেন না : প্রধানমন্ত্রী   এইচএসসি তে পাসের ধস নেমেছে এবার   এইচএসসি ও সমমানে পাসের হার এবার ৬৬.৬৪   হাসপাতাল ছাড়ার পর এবার থাই কিশোররা সবাই শ্রামণ হয়ে প্রবজ্যা গ্রহণ করবে   থাইল্যান্ডের গুহায় আটকা পড়া কিশোররা হাসপাতাল ছেড়েছে   ৮ দল নিয়ে বাম গণতান্ত্রিক জোটের আত্মপ্রকাশ   আগামীকাল এইচএসসির ফল প্রকাশ হবে   নেলসন ম্যান্ডেলার জন্ম শতবার্ষিকী আজ   চট্টগ্রাম আঞ্চলিক অফিসেই মিলবে হারানো জাতীয় পরিচয়পত্র   উ. কোরিয়াকে নিরাপত্তা নিশ্চয়তা প্রদানে অংশ নিতে প্রস্তুত রাশিয়া   রাঙামাটিতে ইউপিডিএফ নেতা রাহেলকে ৪ দিনের রিমান্ড দিয়েছে আদালত   এবার খাগড়াছড়িতে সেটেলার কর্তৃক আদিবাসী স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ   দেশে ছয় মাসে ধর্ষণের শিকার ৫৯২: মহিলা পরিষদ   ফ্রান্সে বিশ্বকাপ বিজয় উল্লাস করতে গিয়ে ব্যাপক সংঘর্ষ-লুটপাট, নিহত ২   মিয়ানমারে জাতিগত ৩ গ্রুপের বিদ্রোহীদের সংঘর্ষে শতাধিক মানুষ পালিয়েছে   নির্বাচন আসছে, সংখ্যালঘুদের মধ্যে চিন্তা বাড়ছে: জাফর ইকবাল   ডুবুরী সানামের জন্য শোক ও মঙ্গলকামনা করেছেন গুহায় আটকা পড়া কিশোররা   আয়ারল্যান্ডে ‘হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের’ “অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গঠনের ডাক”
প্রচ্ছদ / আন্তর্জাতিক / জাপানে ধর্মীয় নেতাসহ সাতজনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর

জাপানে ধর্মীয় নেতাসহ সাতজনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর

প্রকাশিত: ২০১৮-০৭-০৬ ১৩:২৭:০২

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

জাপানে উগ্রবাদী মিশ্র ধর্মীয় সংগঠন আম শিনরিকোর নেতাসহ সাতজনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। সংগঠনটির নেতা শোকো আসাহারার মৃত্যুদণ্ড শুক্রবার (৬ জুলাই) সকালে টোকিওর একটি কারাগারে কার্যকর করা হয় বলে নিশ্চিত করেছেন মন্ত্রী পরিষদ প্রধান ইওশিহিদি সুগা। আসাহারার পর পরই বাকি ছয়জনের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয় বলে জাপানি গণমাধ্যমে বলা হয়েছে।

জাপানি গণমাধ্যমের বরাত দিয়ে বিবিসি ও বার্তা সংস্থা রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, হিন্দু ও বৌদ্ধ এবং পরবর্তীতে খ্রিস্ট ধর্মীয় বিশ্বাসের সংমিশ্রনে নতুন একটি ধর্ম বিশ্বাসের ভিত্তিতে গঠিত সংগঠনটির অন্তত আরো ছয়জন সদস্য মৃত্যুদণ্ডের তালিকায় রয়েছে। যাদের মৃত্যুদণ্ড শিগরিরই কার্যকর করা হতে পারে।

এর আগে জানুয়ারিতে এই মৃত্যুদণ্ড স্থগিত করা হয়। কারণ জাপানি আইন অনুযায়ী সকল অভিযুক্তের বিচার চূড়ান্ত না হওয়া পর্যন্ত কারও মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা যায় না। সকলের আপিল নিষ্পত্তি হলে একজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড হয়। এরপরই শুক্রবার মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হলো।


প্রসঙ্গত, আসাহারার বিরুদ্ধে আরো মানুষ হত্যার অভিযোগ রয়েছে। ১৯৯৫ সালে সংগঠনটির সদস্যরা রাজধানী টোকিওর একটি রেল স্টেশনে সারিন গ্যাস নিক্ষেপ করে।

এতে অন্তত ১৩ জনের মৃত্যু হয় এবং এক হাজারের বেশি লোক আহত হয়। জাপানে যেটি সবচেয়ে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা।

এর আগে ১৯৯৪ সালে আসাহারার সংগঠনের পক্ষ থেকে আরেকটি সারিন গ্যাস হামলা চালানো হয়। এতে অন্তত ৮ জন নিহত এবং ছয় শতাধিক লোক আহত হয়।

উল্লেখ্য, শোকো আসাহারা, চিঝু ম্যাতসুমোটো নামেও পরিচিত, ১৯৮০ সালে ওই সংগঠন প্রতিষ্ঠা এবং বুদ্ধের পর নিজেকে দীক্ষাপ্রাপ্ত লোক বলে দাবি করেন।

আম শিনরিকো ১৯৮৯ সালে জাপানে একটি ধর্মীয় সংগঠন হিসেবে সরকারি স্বীকৃতি লাভ করে। এরপর অল্প সময়ের মধ্যে এটি বিশ্বের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হয় এবং বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের হাজার হাজার লোক এর অনুসারী হয়।

কিন্তু ১৯৯৫ সালের ওই হামলার পর এটি আন্ডারগ্রাউন্ডে চলে যায়। তবে একেবারে অদৃশ্য হয়ে যায়নি। বরং আলেফ বা হিকারি নো ওয়া নাম ধারণ করে কার্যক্রম চালাতে শুরু করে। আম শিনরিকো যুক্তরাষ্ট্র ও অন্যান্য বেশ কিছু দেশে সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে তালিকাভুক্ত। কিন্তু আলেফ বা হিকারি নো ওয়া জাপানে একটি বৈধ সংগঠন। যদিও এটিকে একটি ‘ভয়ংকর ধর্মীয়’ সংগঠন হিসেবে বিবেচনা এবং কড়া নজরদারি রাখা হয়।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত