শিরোনাম

  নৌকার জয় সুনিশ্চিত : প্রধানমন্ত্রী   আজ ইউপিডিএফ’র ২০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী   এবার থাইল্যান্ডে বৈধ হলো গাঁজা   ইউপিডিএফ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সকলকে সংগ্রামী শুভেচ্ছা জানালেন প্রসিত বিকাশ খীসা   চীনা শিশুরা আর স্কুল পালাতে পারবে না!   আবার ক্ষমতায় গেলে ভুল সংশোধন করা হবে : কাদের   প্রধানমন্ত্রী থেকে মাতৃভাষার বই পেয়েছে ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠীর শিশুরা   শুভ বড়দিন আজ   রোহিঙ্গাদের জন্য শীতবস্ত্র পাঠাল ভারত   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪০০ অধিক ছাড়িয়েছে   টাকার মালা উপহার পেলেন ফখরুল!   মধ্যরাত থেকে নির্বাচনী মাঠে সেনাবাহিনী   ভোটের দিন ২৪ ঘণ্টা সব যান চলাচল বন্ধ   সেনা মোতায়েনে ভোটারদের মধ্যে আস্থা ফিরে আসবে: সিইসি   পানছড়িতে ইউপিডিএফের নির্বাচনী অফিসে এলোপাতাড়ি ব্রাশ ফায়ারে ২ জন নিহত!   জেএসসি ও পিইসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ   আগামী ৩০ তারিখ আমরা নৌকার বিজয় নিয়ে ঘরে ফিরবো: দীপংকর তালুকদার   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২২২ জন   যারা মানুষ পুড়িয়ে মারে তাদের ভোট দেবেন নাঃ প্রধানমন্ত্রী   ২৮ ডিসেম্বর থেকে ১ জানুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত ৪ দিন মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা
প্রচ্ছদ / আন্তর্জাতিক / ত্রিপুরা রাজ্যে ভয়াবহ বন্যা, পানির নিচে ৩ হাজার বাড়ি

ত্রিপুরা রাজ্যে ভয়াবহ বন্যা, পানির নিচে ৩ হাজার বাড়ি

প্রকাশিত: ২০১৮-০৫-২১ ২১:৫২:৪০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যে গত চার দিনের টানা বর্ষণের ফলে সৃষ্ট বন্যা ও কাদাধ্বসে ছয় ব্যক্তি মারা গেছে। এছাড়া কমপক্ষে তিন হাজার বাড়িঘর পানির নিচে তলিয়ে গেছে। এমনকি রাজ্যের রাজধানী আগরতলার অনেক এলাকাও জলমগ্ন হয়ে আছে। রাজ্যের ওপর দিয়ে বয়ে যাওয়া তিন নদীর পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। খবর দ্য হিন্দুর।

কর্মকর্তারা জানান, ত্রিপুরার প্রধান নদীগুলোর উৎপত্তিস্থল উত্তরাঞ্চলীয় পাহাড়ী এলাকায় তুমুল বর্ষণের কারণে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি ঘটেছে। বন্যায় নিচু এলাকাগুলো সবচাইতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। সেখানে আটকেপড়া লোকজনকে সরিয়ে আনা হয়েছে।

বন্যায় অসম-আগরতলা ন্যাশনাল হাইওয়ের একটি অংশও তলিয়ে গিয়ে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। রাজ্যের বিভিন্ন স্থানে স্কুল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। বিভিন্ন স্থানে কাদাধ্বসে ছয় জনের প্রাণহানির খবর পাওয়া গেছে। তাদের তিনজন একই পরিবারের।

নিচু এলাকাসমূহের কমপক্ষে তিন হাজার পরিবারকে অস্থায়ী আশ্রয়শিবিরে সরিয়ে আনা হয়েছে। দুর্গত মানুষের সহায়তায় সরকারি ও বেসরকারি সংস্থা একযোগে কাজ করছে।

রাজ্যের মূখ্যমন্ত্রী বিপ্লব কুমার দেব একটি সম্মেলনে যোগ দিতে অসমের রাজধানী গুয়াহাটিতে রয়েছেন। তাঁর অনুপস্থিতে সরকারি কাজকর্ম দেখভাল করছেন শিক্ষামন্ত্রী রতন লাল নাথ।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত