শিরোনাম

  নৌকার জয় সুনিশ্চিত : প্রধানমন্ত্রী   আজ ইউপিডিএফ’র ২০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী   এবার থাইল্যান্ডে বৈধ হলো গাঁজা   ইউপিডিএফ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সকলকে সংগ্রামী শুভেচ্ছা জানালেন প্রসিত বিকাশ খীসা   চীনা শিশুরা আর স্কুল পালাতে পারবে না!   আবার ক্ষমতায় গেলে ভুল সংশোধন করা হবে : কাদের   প্রধানমন্ত্রী থেকে মাতৃভাষার বই পেয়েছে ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠীর শিশুরা   শুভ বড়দিন আজ   রোহিঙ্গাদের জন্য শীতবস্ত্র পাঠাল ভারত   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪০০ অধিক ছাড়িয়েছে   টাকার মালা উপহার পেলেন ফখরুল!   মধ্যরাত থেকে নির্বাচনী মাঠে সেনাবাহিনী   ভোটের দিন ২৪ ঘণ্টা সব যান চলাচল বন্ধ   সেনা মোতায়েনে ভোটারদের মধ্যে আস্থা ফিরে আসবে: সিইসি   পানছড়িতে ইউপিডিএফের নির্বাচনী অফিসে এলোপাতাড়ি ব্রাশ ফায়ারে ২ জন নিহত!   জেএসসি ও পিইসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ   আগামী ৩০ তারিখ আমরা নৌকার বিজয় নিয়ে ঘরে ফিরবো: দীপংকর তালুকদার   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২২২ জন   যারা মানুষ পুড়িয়ে মারে তাদের ভোট দেবেন নাঃ প্রধানমন্ত্রী   ২৮ ডিসেম্বর থেকে ১ জানুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত ৪ দিন মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা
প্রচ্ছদ / আন্তর্জাতিক / মিয়ানমারে ৩ বোন ধর্ষণের শিকার, অভিযুক্ত বিহার প্রধান পালিয়েছে

মিয়ানমারে ৩ বোন ধর্ষণের শিকার, অভিযুক্ত বিহার প্রধান পালিয়েছে

প্রকাশিত: ২০১৮-০৫-১০ ১৭:০৬:৫৯

   আপডেট: ২০১৮-০৫-১০ ১৮:১০:০৪

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

মিয়ানমারে ইরাবতি অঞ্চলে একটি গ্রামে তিনজন কিশোরী মেয়েকে ধর্ষণের অভিযোগে সন্ধান চালাচ্ছে পুলিশ। এতে 'ইউ নন্দ শ্রী' সিটা থুকা নামে এক আশ্রমের অধ্যক্ষ অভিযুক্ত হয়েছে।

আজ ১০ মে মিয়ানমারের সংবাদ মাধ্যম ইরাবতি জানায়, ধর্ষণের শিকার হওয়ার পর দেরিতে হলেও গেল এপ্রিল মাসে পুলিশকে এ তথ্য জানিয়েছে ভিক্টিমের মা।

অভিযুক্ত আশ্রম অধ্যক্ষের বয়স ৫৬। তিনি সেই মন্দিরে সাত বছর ধরে অধ্যক্ষ হিসেবে রয়েছেন। ভিক্টিম কিশোরীরদের মধ্যে একজনের বয়স ১৪, ২য় ও ৩য় জনের বয়স ১০ এর ভিতরে। কিশোরদের বাড়ি সেই আশ্রমের কাছাকাছি।

সেই অঞ্চলের পুলিশ মুখপাত্র কিম মং লাট বলেছেন, ধর্ষণের অভিযোগে দণ্ডবিধির ৩৭৬ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী আমরা একটি মামলা দায়ের করেছি। কিন্তু তদন্ত শুরু করার আগে সন্ন্যাসী পালিয়ে গেছে। আমরা সংঘনায়ক কমিটির কাছে ও মামলার অভিযোগ করেছি।

ভিক্টিমের মায়ের দাবি অনুসারে তার মেয়েগুলো প্রতিদিন আশ্রমে গিয়ে দেখাশোনা ও অভিযুক্ত ভিক্ষুকে সাহায্য করত। এবং গেল এপ্রিল মাসে আমার মেয়েগুলো কাঠ সংগ্রহের পর একজন অভিযোগ করেছে যে তারা যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছে।

পরের দিন, তিনি স্থানীয় পুলিশ স্টেশনে একটি অভিযোগ দায়ের করেন, যা এই এলাকার অন্যান্য পুলিশ স্টেশনে ও সন্ন্যাসীদের ছবি জমা দেওয়া হয়েছে।

এদিকে পুলিশ বলছে, ভিক্টিম তিনটি মেয়েকে মেডিক্যাল পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে নেয়া হয়েছে কিন্তু রিপোর্ট এখনো হাতে পায়নি।

পুলিশের মুখপাত্র কিম মং লাট_ কিশোরীর মা-বাবাকে সচেতন করে বলেন, "আপনাদের সন্তানদের যৌন নির্যাতনের শিকার হতে রক্ষা করার জন্য বাইরে অচেনা এলাকা বা অপরিচিত তরুণ বা বয়স্কদের সঙ্গে মেলামেশা করতে অনুমতি দিবেন না"

সংবাদ মাধ্যম ইরাবতির রিপোর্ট অনুসারে- ইরাবতি অঞ্চলে বছরে বছরে ক্রমবর্ধমানভাবে ধর্ষণ সংঘঠিত হচ্ছে। এ নিয়ে প্রশাসন ব্যাপক সচেতনা ও প্রচারণা চালাচ্ছে।

মুখপাত্র কিম মং লাট বলেন, "ধর্ষণের ঘটনাগুলি কমাতে মেয়েদের এবং যৌনসম্পর্কগুলো সম্পর্কে যৌন বিষয়গুলির বিষয়ে সচেতন করার প্রয়োজন রয়েছে"

আর ধর্ষণকারীরা ধর্ষনের শাস্তি সম্পর্কে ঠিকমত জানেনা এ জন্য অপরাধে জড়িয়ে পড়ছে। সুতরাং জনগণের উভয় স্বার্থে ব্যাপক সচেতনা বৃদ্ধি করা প্রয়োজন।

আঞ্চলিক পুলিশের পরিসংখ্যান অনুযায়ী ইরাবতি অঞ্চলে ধর্ষণের মামলা ২০১৬ সালে ১০১ বেড়ে গিয়ে বর্তমানে দাঁড়ায় ১৫৬।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত