শিরোনাম

  ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠীর জন্য মাতৃভাষায় পুস্তক প্রকাশনার বিধান রেখে খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা   সরকারী চাকরিতে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ও পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জন্য কোটা না হলেও সমস্যা হবে না   রুয়েটে ভর্তি পরীক্ষার আবেদন শুরু   দুই আদিবাসী কিশোরী ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্তদের সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি   দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টি ও ভারী বর্ষণ হতে পারে   আদিবাসী মানবাধিকার সুরক্ষাকর্মীদের সম্মেলন ২০১৮ উদযাপন   ব্লগার বাচ্চু হত্যার সঙ্গে ‘জড়িত’ ২ জঙ্গি নিহত   জুমের বাম্পার ফলনে রাঙ্গামাটির চাষিদের মুখে হাসি   সরকারি চাকরিতে আদিবাসী কোটা বহাল দাবি জানাল আদিবাসীরা   আয়ারল্যান্ড প্রবাসী বাংলাদেশের এক মন্ত্রী দ্বারা হেনস্ত হওয়াতে হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের নিন্দা   শেখ হাসিনার জনপ্রিয়তা উল্লেখযোগ্য বৃদ্ধি পেয়েছে   মিয়ানমারে রয়টার্সের দুই সাংবাদিককে সাত বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত   শহীদ আলফ্রেড সরেন হত্যার ১৮ বছর: হত্যাকারীদের দ্রুত বিচারের দাবি জাতীয় আদিবাসী পরিষদের   ভারতের কাছে ১-০ গোলে হেরেছে বাংলাদেশের মেয়েরা   সরকারী চাকরিতে নিয়োগের ক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধা ছাড়া সব কোটা বাতিল হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী   জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনান মারা গেছেন   ঈদের ছুটি কাটানো হলোনা টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ার নিরীহ ধীরাজ চাকমার   খাগড়াছড়িতে পৃথক ঘটনার জন্য জেএসএস(সংস্কারবাদী) ও নব্য মুখোশ বাহিনীকে দায়ী করেছে : ইউপিডিএফ   নানিয়ারচর থেকে খাগড়াছড়ি   খাগড়াছড়িতে ৬ জনকে গুলি করে হত্যা !
প্রচ্ছদ / আন্তর্জাতিক / থাইল্যান্ডে আজ থেকে শুরু হয়েছে জলকেলি উৎসব 'সংক্রান '

থাইল্যান্ডে আজ থেকে শুরু হয়েছে জলকেলি উৎসব 'সংক্রান '

প্রকাশিত: ২০১৮-০৪-১৩ ০৮:৩২:১৪

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

নতুন বছরকে বরণ করে নিতে থাইল্যান্ডে আজ শুক্রবার থেকে আনন্দে মেতে উঠেছেন সর্বস্তরের মানুষ। প্রস্তুত করা হয়েছে ওয়াটার গান। এগুলো দিয়েই গুলি ছোঁড়ার মতোই পরস্পরকে লক্ষ্য করে ছুড়বেন পানি।

প্রাচীন শ্যামদেশের এই বর্ষবরনের আয়োজনের নাম "সংক্রান"। এই উৎসবেই মাতোয়ারা এখন দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার এই দেশ।

১৯৩৯ সাল থেকে সবাই যে থাইল্যান্ডকে চেনেন তার সাবেকী নাম শ্যামদেশ। থাই ভাষাতে যাকে বলা হতো সায়াম্‌।

নতুন বছরকে স্বাগত জানাতে সেই সায়াম্‌ মানে আজকের থাইল্যান্ডেই চলছে সংক্রান উৎসব।

উৎসবের অন্যতম আকর্ষণ জলকেলি। এই উৎসবে শামিল হবেন দেশি ভিনদেশি সবাই। কেউ বাদ্য বাজাচ্ছেন। কেউ বা নেচে গেয়ে পথচারীকে পানি ছুঁড়বেন। কোথাও হাতির শূর দিয়ে পানি ছিটিয়ে-ও রঙ ছড়ানো হবে। কেউ বা আবার সরাসরি পানির পাইপ নিয়ে মাতবেন সংক্রানের উৎসবে।

পর্যটন নগরী পাতায়া থেকে রাজধানী ব্যাংকক সর্বত্র চোখে পড়ছে এই দৃশ্য। আদতে গোটা দেশেরই  চিত্র এটা।

উৎসবের এই সংস্কৃতির সঙ্গে মিল খুঁজে পাওয়া যায় বাংলাদেশের। দেশে আদিবাসী হিসেবে মারমাদের সাংগ্রাই উৎসব যারা দেখেছেন তারা "সংক্রান"এর ছবির সঙ্গে মিল খুঁজে পাবেন এই উৎসবের।

কেবল থাইল্যান্ডই নয়,আশিয়ানের দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার মায়ানমার,লাওস, কম্বোডিয়া আর চীনের দাই জাতিগোষ্ঠীরাও মেতেছে এই উৎসবে। তবে একেক দেশে এর একেক নাম।

থাইল্যান্ডে নতুন বছরকে বরণ করে নিতে প্রতিবছর আয়োজন করা ভিন্নধর্মী এক খেলা। যা আমরা অনেকেই পানি খেলা বলে জানি। এবছরও আয়োজন করা হয়েছে এমন ভিন্নধর্মী পানি খেলা। যেখানে শুধু মানুষই নয়, অংশ নেবে ছোট বড় অসংখ্য হাতি।

পানি খেলা। নাম শুনলেই চোখে ভাসে ছেলে মেয়ে বা মানুষের পানি খেলার দৃশ্য। কিন্তু এ যেনো ভিন্ন রকম এক পানি খেলা। যেখানে মানুষ মানুষকে নয়, বরং খেলায় মেতে উঠেছে ছোট বড় অসংখ্য সব হাতি। যাদেরকে তুলির আঁচরে সাজানো হয়েছে লাল, হলুদ, সবুজসহ ভিন্ন ভিন্ন সব রঙে। আর এসব হাতি আনা হয় আইয়ুতথায়া এলিফেন্ট প্যালেস এবং রয়াল ক্রাল থেকে। যা ব্যাংকক থেকে প্রায় ৮০ কিলোমিটার উত্তরে।

থাইল্যান্ডে প্রতিবছর আয়োজন করা হয় মজার এই খেলাটি। যা থাইল্যান্ডে সংক্রান উৎসব নামে পরিচিত। উৎসবটি শুরু হয় সাধারণত ১৩ এপ্রিল থেকে। থাইল্যান্ড ছাড়াও, মিয়ানমার, লাও এবং কম্বোডিয়ায় উদযাপন করা হয় এই পানি উৎসব। নতুন বছরে বৌদ্ধ ধর্মাবলম্বিরা শান্তি লাভের আশায় তাদের বৌদ্ধ মূর্তি স্নানের জন্য পানি ছেটাতে এমন হাতির ব্যবহার করে থাকেন।

কিন্তু হাতিরা যে কেবল মূর্তির গায়েই পানি ছেটায় তা নয়, উৎসবে আসা পর্যটকদেরও ছেড়ে কথা বলে না এসব হাতি। রাস্তায় হেঁটে যাওয়া পর্যটক থেকে শুরু করে হাতির পিঠে চড়া পর্যটকরাও ভিজে যায় হাতির ছেটানো পানিতে। শুড় দিয়ে পানি তুলে সামনে যাকে পাচ্ছে তাকেই ভিজিয়ে দিচ্ছে তারা।

এদিকে, 'সংক্রান' উৎসবকে কেন্দ্র করে থাইল্যান্ডে বিভিন্ন স্থানে কড়া নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। আজ শুক্রবার ১৩ তারিখ থেকে শুরু হয়ে ১৫ তারিখ পর্যন্ত পালিত হবে ‘সংক্রান’ উৎসব।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত