শিরোনাম

  গত ৫ বছরে জেএসএস এমপি উন্নয়ন করতে পারেনি, যা করেছে আওয়ামীলীগ করেছে : দিপংকর তালুকদার   এখন থেকে সরকারি চাকরিতে যোগ দেওয়ার আগে মাদক পরীক্ষা বাধ্যতামূলক   'বান্দরবানে বিদেশি পর্যটকদের ভ্রমণে কোনো নিষেধাজ্ঞা নেই'   'নির্বাচনী প্রচারণায় রঙিন পোস্টার বা ব্যানার ব্যবহার করা যাবে না'   ৫৮টি নিউজ পোর্টাল খুলে দিয়েছে বিটিআরসি   বুধবার থেকে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করবেন প্রধানমন্ত্রী   বিএনপি ক্ষমতায় এলে শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন করার চেষ্ঠা করবো: মনি স্বপন দেওয়ান   তিন পাহাড়ে নৌকা নিয়ে মাঠে দৌড়াবেন যারা   আগামীকাল খালেদা জিয়ার অগ্নিপরীক্ষা   হিরোকে জিরো বানানো এত সহজ নয়, সফল হিরো আলমের চ্যালেঞ্জ   খাগড়াছড়িতে বনের রাজা পেয়েছেন ইউপিডিএফের প্রার্থী নতুন কুমার চাকমা   বিশ্বের প্রথম উঁচু ভাস্কর্য 'চীনের স্প্রিং টেম্পল বুদ্ধ'   আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস || আদিবাসীদের মানবাধিকার প্রতিষ্ঠায় এগিয়ে আসার অাহ্বান   বনের রাজা সিংহকে নিয়ে রাঙ্গামাটিতে দৌড়াবেন ঊষাতন তালুকদার   আজ বিশ্ব মানবাধিকার দিবস   নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থীদের জন্য যেসব মার্কা দেওয়া হচ্ছে...   নির্বাচনে প্রচার-প্রচারণায় সকল প্রার্থীদের যা যা মেনে চলতে হবে   নির্বাচনে গাড়ি প্রতীক পেয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী ইমরান এইচ সরকার   দেশে ৫৮টি নিউজ পোর্টাল বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে বিটিআরসি   পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তি ফিরিয়ে আনার জন্য শেখ হাসিনাকে শান্তিতে নোবেল পুরস্কার দেওয়া উচিত
প্রচ্ছদ / আন্তর্জাতিক / মিয়ানমারের ৭ সেনাকে ১০ বছরের কারাদন্ড

মিয়ানমারের ৭ সেনাকে ১০ বছরের কারাদন্ড

প্রকাশিত: ২০১৮-০৪-১১ ১৫:২১:৫২

ফাইল ছবি।

অনলাইন ডেস্ক

রোহিঙ্গা মুসলিমদের হত্যার দায়ে মিয়ানমারের সাত সেনাকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। দেশটির সেনাবাহিনী সম্প্রতি এ তথ্য জানিয়েছে।

সেনাবাহিনী এক বিবৃতি জানায়, হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার দায়ে এই সাত সেনার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। সামরিক আদালতে দণ্ডিত এই সৈন্যদের ১০ বছর কারাগারে থাকার পাশাপাশি প্রত্যন্ত অঞ্চলে কঠোর শ্রমের কাজেও নিযুক্ত থাকতে হবে।

গত বছরের সেপ্টেম্বরে উত্তর-পশ্চিম রাখাইন রাজ্যের এক গ্রামের ১০ মুসলিম পুরুষকে হত্যা করা হয়। পরে ১৮ ডিসেম্বর রাখাইন রাজ্যের রাজধানী সিতভি থেকে প্রায় ৫০ কিলোমিটার উত্তরে উপকূলীয় গ্রাম ইন দিনে গণকবরে ওই ১০ জনের মৃতদেহ পাওয়া যায়।

রয়টার্সের দুই সাংবাদিক ওয়া লোন (৩১) এবং কিয়াও সোয়ের (২৮) তদন্তে এই গণহত্যার বিষয়টি উঠে আসে। রাষ্ট্রের গোপনীয়তা লঙ্ঘনের অভিযোগে ডিসেম্বরেই তাদের গ্রেফতার করা হয় এবং এখনো তারা বন্দি রয়েছেন।

রয়টার্সের অনুসন্ধানে হত্যার চিত্র বেরিয়ে আসার পর মিয়ানমার সেনাবাহিনী জানায়, নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা ওই ১০ জনকে হত্যা করেছে বলে তদন্তে উঠে এসেছে এবং এ ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

গত বছরের ২৫ আগস্ট রাখাইনে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর পূর্ব-পরিকল্পিত সহিংসতা জোরালো হয়। হত্যা-ধর্ষণসহ বিভিন্ন ধারার সহিংসতা ও নিপীড়ন থেকে বাঁচতে বাংলাদেশে পালিয়ে আসে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর প্রায় ৭ লাখ মানুষ।

জানুয়ারিতে সম্পাদিত ঢাকা-নেপিদো প্রত্যাবাসন চুক্তি অনুযায়ী বাংলাদেশে আশ্রিত রোহিঙ্গাদের রাখাইনে ফিরিয়ে নেওয়া শুরু হওয়ার কথা থাকলেও বাংলাদেশের পাঠানো প্রথম ৮ হাজার রোহিঙ্গার তালিকা নিয়েই শুরু হয়েছে আমলাতান্ত্রিক জটিলতা।

জাতিসংঘ, অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল, যুক্তরাষ্ট্রসহ বিভিন্ন সংস্থা ধারাবাহিকভাবে বলে আসছে, রাখাইন এখনো রোহিঙ্গাদের জন্য নিরাপদ নয়। রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনকে অবশ্যই স্বেচ্ছামুলক ও নিরাপদ হতে হবে। তাদের ফিরিয়ে দিতে হবে নিরাপদে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত