শিরোনাম

  পাহাড় কাটা ও পাহাড়ের ঢালে অবৈধ বসবাসকারীদের কঠোরভাবে প্রতিরোধের আহ্বান দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রীর   আগামীকাল খাগড়াছড়িতে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডেকেছে পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদ   এইচএসসি : পেছাল ভূগোল দ্বিতীয় পত্রের পরীক্ষা   পানছড়িতে ইউপিডিএফের নেতাকে গুলি করে হত্যা   আদিবাসী লৈঙ্গিক পরিচয়ের কারণে বৈষম্য ঘটেছে : মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়   পাহাড়ে বৃষ্টি হলে আশ্রয়কেন্দ্রে যাওয়ার আহ্বান   শিশু ধর্ষণে মৃত্যুদণ্ডের বিধান হচ্ছে ভারতে   সংখ্যালঘুদের নিয়ে বিভ্রান্তিকর খবর বন্ধ হওয়া উচিত : সজীব ওয়াজেদ জয়   কুয়েত বৌদ্ধ সমিতির উদ্যোগে বর্ষবিদায় ও বর্ষবরণ অনুষ্টান সম্পন্ন   পার্বত্য চট্টগ্রামের উপজাতিদের সতর্ক করলেন হেফাজত ইসলাম   পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় কর্তৃক আদিবাসী নারীর ছবি চুরি করার অভিযোগ   থাইল্যান্ডে আজ থেকে শুরু হয়েছে জলকেলি উৎসব 'সংক্রান '   বৈসুক, সাংগ্রাই ও বিজু সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির প্রতীক : তথ্যমন্ত্রী   রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদে চাকরি বিজ্ঞপ্তি   আদিবাসীদের জানালেন, পহেলা বৈশাখে শুঁটকি ভর্তা খাবেন প্রধানমন্ত্রী   অনির্বান চাকমাসহ ২৫ পুলিশের উচ্চপর্যায়ে রদবদল   আজ আদিবাসীদের ঐতিহ্যবাহী ফুল বিজু   রাঙ্গামাটি নানিয়াচরে ইউপিডিএফের কর্মীকে গুলি করে হত্যা   কোটা বাতিল, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী এবং প্রতিবন্ধীদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থার মাধ্যমে সরকারি চাকরি   রোহিঙ্গা নারীদের হামলায় রোহিঙ্গা নারী আহত
প্রচ্ছদ / আন্তর্জাতিক / সন্তানের কাছে যেমন ছিলেন স্টিফেন হকিং

সন্তানের কাছে যেমন ছিলেন স্টিফেন হকিং

প্রকাশিত: ২০১৮-০৩-১৮ ১১:২০:১১

অনলাইন ডেস্ক

পদার্থবিজ্ঞানী স্টিফেন হকিং পারিবারিক জীবন কিভাবে অতিবাহিত করছেন? কিভাবে কেটেছে তার সংসার? সন্তানের কাছে স্টিফেন হকিং কেমন ছিলেন? একজন বিখ্যাত ব্যক্তি সম্পর্কে এরকম নানা প্রশ্নের উকি দেয়াটা স্বাভাবিক ব্যাপার।

ব্যক্তিগত জীবনে স্টিফেন হকিং দুই বিয়ে করেন। প্রথম বিয়ের দুই বছর আগে মোটর নিউরোন রোগে আক্রান্ত হন তিনি।

জানা যায়, মোটর নিউরোন রোগটি ধরা পড়ার ২ বছর পর ১৯৬৫ সালের ১৪ জুলাই স্টিফেন হকিংসের সঙ্গে বিয়ে হয় ভাষাতত্ত্বের ছাত্রী জেন উইলডের। যদিও রোগটি ধরা পড়ার এক বছর আগে পারিবারিক এক অনুষ্ঠানে হকিংয়ের সঙ্গে জেনের প্রথম পরিচয় হয়। বিয়ের পর স্টিফেন ও জেন দম্পত্তির ঘরে জন্ম নেয় তিন সন্তান- রবার্ট, লুসি, টিম। তবে হকিংসের অসুস্থতার কারণে এই তিন সন্তানকে আগলে রাখতে হতো জেনকেই। আবার হকিংসের সেবা যত্নেও করতে হতো তাকে।

এদিকে, পরিবারে আর্থিক স্বচ্ছলতা আসতে থাকলে স্টিফেন হকিংসকে সার্বক্ষণিক দেখাশোনা করার জন্য একজন নার্স নিয়োগ করা হয়। ১৯৯৫ সালে জেনের সাথে হকিংয়ের ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়। আর সেই বছরের সেপ্টেম্বরে হকিং তার নার্স এলিনা মেসনকে বিয়ে করেন। দশ বছর সংসারের পর ২০০৬ সালে এলিনার সাথে তার ছাড়াছাড়ি হয়ে যায়। পরে স্টিফেনের সাথে প্রথম স্ত্রী জেনের সম্পর্ক ভালো হতে শুরু করে।

হকিংসের ছোট ছেলে টিম বলেন, পাঁচ বছর বয়স পর্যন্ত বাবার কথা কিছুই বুঝতাম না। আমার বাবা তার নিজস্ব ভঙ্গিতে কথা বলতেন। আমার পক্ষে বাবার আধো আধো কথা বোঝা খুব কঠিন ছিল। তবে বাবার সাথে জোড়া লাগানো কথা বলার যে বক্স ছিল সেটা কখনোই আমার কাছে বাধা হিসেবে ছিল না। বরং বক্সটি আমাদের মধ্যে একটা ভালোবাসার বন্ধন তৈরি করেছিল।

তিনি বলেন, বাবা ভয়েস সিনথেসাইজারের মাধ্যমে কথা বলতেন। আমি যখন এটা বুঝতে পারলাম, তখন আর বাবার সাথে কথা বলতে কোনো সমস্যা হতো না। এটা আমার পরিবারের জন্য মর্মস্পশী বিষয় হলেও আমরা শুরু থেকেই বাবার সাথে সম্পর্ক তৈরি করতে পেরেছিলাম। বাবা দাবা খেলায় বেশ দক্ষ ছিলেন। তাই সময় পেলেই বাবার সাথে দাবা খেলতে বসে যেতেন বলেও জানান টিম।

গত ১৪ মার্চ ক্যামব্রিজে নিজ বাসভবনে মৃত্যুবরণ করেন স্টিফেন হকিং। মহাবিশ্বের সৃষ্টি রহস্যের তাত্ত্বিক ব্যাখায় কৃষ্ণবিবর ও বিকিরণতত্ত্বের ব্যাখা দিয়ে তিনি এ সময়ের শ্রেষ্ঠ বিজ্ঞানীর স্থানটি দখল করে নেন। সূত্র: বিবিসি।

 

আপনার মন্তব্য

আলোচিত