শিরোনাম

  নৌকার জয় সুনিশ্চিত : প্রধানমন্ত্রী   আজ ইউপিডিএফ’র ২০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী   এবার থাইল্যান্ডে বৈধ হলো গাঁজা   ইউপিডিএফ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সকলকে সংগ্রামী শুভেচ্ছা জানালেন প্রসিত বিকাশ খীসা   চীনা শিশুরা আর স্কুল পালাতে পারবে না!   আবার ক্ষমতায় গেলে ভুল সংশোধন করা হবে : কাদের   প্রধানমন্ত্রী থেকে মাতৃভাষার বই পেয়েছে ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠীর শিশুরা   শুভ বড়দিন আজ   রোহিঙ্গাদের জন্য শীতবস্ত্র পাঠাল ভারত   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪০০ অধিক ছাড়িয়েছে   টাকার মালা উপহার পেলেন ফখরুল!   মধ্যরাত থেকে নির্বাচনী মাঠে সেনাবাহিনী   ভোটের দিন ২৪ ঘণ্টা সব যান চলাচল বন্ধ   সেনা মোতায়েনে ভোটারদের মধ্যে আস্থা ফিরে আসবে: সিইসি   পানছড়িতে ইউপিডিএফের নির্বাচনী অফিসে এলোপাতাড়ি ব্রাশ ফায়ারে ২ জন নিহত!   জেএসসি ও পিইসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ   আগামী ৩০ তারিখ আমরা নৌকার বিজয় নিয়ে ঘরে ফিরবো: দীপংকর তালুকদার   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২২২ জন   যারা মানুষ পুড়িয়ে মারে তাদের ভোট দেবেন নাঃ প্রধানমন্ত্রী   ২৮ ডিসেম্বর থেকে ১ জানুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত ৪ দিন মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা
প্রচ্ছদ / আন্তর্জাতিক / সিলেট থেকে যাওয়া ১৩ শিক্ষার্থী নিহত

সিলেট থেকে যাওয়া ১৩ শিক্ষার্থী নিহত

প্রকাশিত: ২০১৮-০৩-১২ ২২:৫৯:১১

   আপডেট: ২০১৮-০৩-১৩ ০০:৩৬:২১

অনলাইন ডেস্ক

নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুতে বাংলাদেশি বিমান বিধ্বস্ত হয়েছে। ঢাকা থেকে কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণের উদ্দেশ্যে ৬৭ যাত্রী নিয়ে ছেড়ে যাওয়া ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের দেশ কিউ-৪০০ মডেলের বিমানটির অন্তত ৫০ যাত্রী নিহত হয়েছে বলে জানাচ্ছে দেশটির প্রথমসারির সংবাদমাধ্যম মাই রিপাবলিকা।

৬৭ যাত্রীর মধ্যে সিলেটের জালালাবাদ রাগীব-রাবেয়া মেডিকেল কলেজের ১৩ জন শিক্ষার্থী ছিলেন। তারা সবাই নেপালী নাগরিক। সিলেটে থেকে মেডিকেলে পড়ালেখা করছিলেন তারা। এদের সবারই মৃত্যু হয়েছে বলে ঢাকা ট্রিবিউন সূত্রে জানা গেছে।  এদের মধ্যে ১১ জন মেয়ে শিক্ষার্থী ও ২ জন ছেলে শিক্ষার্থী রয়েছে। তারা সবাই ১৯ তম ব্যাচের ফাইনাল ইয়ারের শিক্ষার্থী।

আবেদ হোসেন জানান, নিহতরা সবাই ফাইনাল ইয়ারের পরীক্ষা শেষ করে নিজেদের দেশ নেপালে ছুটি কাটাতে গিয়েছিলেন। নেপাল পৌছার পরই এ দুর্ঘটনার স্বীকার হলেন তারা।

এদিকে এ বিষয়টি নিশ্চিত জালালাবাদ রাগীব-রাবেয়া মেডিকেল কলেজের উপ-পরিচালক ডা. আরমান আহমদ শিপলু।

ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের জেনারেল ম্যানেজার রাজ কুমার ছেত্রি জানিয়েছেন, ‘বিমানটি খুব বাজেভাবে বিধ্বস্ত হওয়ায় প্রাথমিকভাবে ৫০ জনের মৃত্যু হয়েছে। আমরা উদ্ধার কাজ চালিয়ে যাচ্ছি। এছাড়া দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানেরও চেষ্টা চলছে। এর মধ্যে গুরুতর আহতাবস্থায় ১৪ জনকে উদ্ধার করে সিনামঙ্গলের নিউ বানেশ্বর ও কেএমসি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।’

ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বাংলাদেশি এয়ারপোর্ট ম্যানেজার ইমন জানিয়েছেন, বিমানটির ৬৭ যাত্রীর মধ্যে ১ জন চাইনিজ, ১জন মালদ্বীপ ও ৩২ জন বাংলাদেশী নাগরিক। ফ্লাইটটিতে সরকারি বা উচ্চ পর্যায়ের কোনো রাজনৈতিক ব্যক্তি ছিলনা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, দুপুরে এয়ারপোর্টের রানওয়েতে প্রচণ্ড কালো ধোঁয়া দেখা যায়। এরপরই নিশ্চিত হওয়া যায় যে একটি প্লেন বিধ্বস্ত হয়েছে। বিমানবন্দরের মুখপাত্র প্রেম নাথ ঠাকুর বলেন, বিমানটি রানওয়েতে নামার সঙ্গে সঙ্গে চাকায় আগুন ধরে যায়। এরপরই সেটি বিমানবন্দরের পাশেই একটি ফুটবল খেলার মাঠে আছড়ে পড়ে। বিমানটি ঢাকা থেকে দুপুর ২ টা ২০ মিনিটে ত্রিভুবন বিমানবন্দরে এসে পৌঁছায়। বিধ্বস্ত প্লেনটির আগুন নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করা হচ্ছে।

এদিকে,নেপালে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনসের উড়োজাহাজ বিধ্বস্ত হয়ে হতাহতের ঘটনার জন্য পাইলটের ভুলকেই দায়ী করেছে নেপাল।

কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের জেনারেল ম্যানেজার রাজ কুমার ছেত্রী আল জাজিরাকে বলেন, কন্ট্রোল রুমের নির্দেশনা অমান্য করে ভুল দিকে ল্যান্ড করায় উড়োজাহাজটি রানওয়ে থেকে ছিটকে পড়ে।

তিনি বলেন, কন্ট্রোল রুম অনুমতি দিয়েছিল দক্ষিণ প্রান্ত দিয়ে ল্যান্ড করার। কিন্তু উড়োজাহাজটি আকাশে ক'টি চক্কর দিয়ে উত্তর প্রান্তে অবতরণ করে।

এদিকে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইনসের সিইও ইমরান আসিফ এক প্রেস ব্রিফিঙয়ে বলছেন, এঘটনায় উড়োজাহাজের পাইলট আবিদ সুলতান আহত হয়েছেন। তাঁকে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

আসিফ আরো বলেন, বিমানবন্দরে পাইলট ও কন্ট্রোল রুমের মধ্যে একটি ''মিসকমিউনিকেশন'' হয়েছিল বলে আমরা সন্দেহ করছি। ইউটিউবে একটি ভিডিও আছে, যাতে পাইলট ও কন্ট্রোল রুমের মধ্যেকার কথাবার্তা দেখা যাচ্ছে। এর ভিত্তিতেই আমরা এ অনুমান করছি। 

আপনার মন্তব্য

আলোচিত