শিরোনাম

  নৌকার জয় সুনিশ্চিত : প্রধানমন্ত্রী   আজ ইউপিডিএফ’র ২০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী   এবার থাইল্যান্ডে বৈধ হলো গাঁজা   ইউপিডিএফ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সকলকে সংগ্রামী শুভেচ্ছা জানালেন প্রসিত বিকাশ খীসা   চীনা শিশুরা আর স্কুল পালাতে পারবে না!   আবার ক্ষমতায় গেলে ভুল সংশোধন করা হবে : কাদের   প্রধানমন্ত্রী থেকে মাতৃভাষার বই পেয়েছে ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠীর শিশুরা   শুভ বড়দিন আজ   রোহিঙ্গাদের জন্য শীতবস্ত্র পাঠাল ভারত   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪০০ অধিক ছাড়িয়েছে   টাকার মালা উপহার পেলেন ফখরুল!   মধ্যরাত থেকে নির্বাচনী মাঠে সেনাবাহিনী   ভোটের দিন ২৪ ঘণ্টা সব যান চলাচল বন্ধ   সেনা মোতায়েনে ভোটারদের মধ্যে আস্থা ফিরে আসবে: সিইসি   পানছড়িতে ইউপিডিএফের নির্বাচনী অফিসে এলোপাতাড়ি ব্রাশ ফায়ারে ২ জন নিহত!   জেএসসি ও পিইসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ   আগামী ৩০ তারিখ আমরা নৌকার বিজয় নিয়ে ঘরে ফিরবো: দীপংকর তালুকদার   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২২২ জন   যারা মানুষ পুড়িয়ে মারে তাদের ভোট দেবেন নাঃ প্রধানমন্ত্রী   ২৮ ডিসেম্বর থেকে ১ জানুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত ৪ দিন মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা
প্রচ্ছদ / আন্তর্জাতিক / বেসরকারি ইক্যুইটি আসছে ভুটানে

বেসরকারি ইক্যুইটি আসছে ভুটানে

প্রকাশিত: ২০১৮-০১-১৭ ২২:৩৩:২৯

   আপডেট: ২০১৮-০১-১৭ ২২:৩৫:২৮

অনলাইন ডেস্ক

ভুটান এশিয়ার দ্রুত বর্ধনশীল অর্থনীতি হলেও একটি মৌলিক সমস্যা রয়ে গেছে এই হিমালয়ান দেশটিতে। আর তা হলো এর বেসরকারি খাতের বিকাশ ঘটেছে তুলনামূলক কম এবং দেশটি মারাত্মক পুঁজি সংকটে ভুগছে।

আগামী জুনে শেষ হওয়া অর্থ বছরে ভুটান ৮% প্রবৃদ্ধি অর্জন করবে বলে বিশ্বব্যাংক আভাস দিলেও এটা মূলত ভারতীয় সরকারের অর্থায়নকৃত জলবিদ্যুৎ প্রকল্পগুলোর জন্য। অন্যদিকে দেশটির চারভাগের তিনভাগ জনশক্তি নিয়োজিত কৃষি ও সরকারি খাতে। এর কারণ দেশটির বেসরকারি খাতে কোন গতিশীলতা না থাকা – বিশ্বব্যাংকের সাম্প্রতিক এক রিপোর্টে এ কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

২০০৮ সালে ভুটানের প্রথম আইন বিদ্যালয় প্রতিষ্ঠায় সহায়তাকারি সাবেক ব্যবস্থাপনা কনসালটেন্ট মাইকেল বার্থ বলেন, এখনই সবচেয়ে ভালো সুযোগ। তিনি ভুটানের জন্য প্রথম বেসরকারি ইকুইটি ফান্ড গঠনের সারা দুনিয়ার বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ১০০ মিলিয়ন ডলার সংগ্রহের পরিকল্পনা করেছেন।

তার মতে স্থানীয় ছোট ছোট কোম্পানিতে বিনিয়োগের মাধ্যমে উচ্চ হারে মুনাফা অর্জন সম্ভব। দেশটি বিশ্বের সবচেয়ে জনবহুল কয়েকটি দেশের মাঝে অবস্থিত। প্রতিবেশি দেশগুলোর সঙ্গে এর বাণিজ্য চুক্তি রয়েছে। তাছাড়া বিশুদ্ধ পরিবেশের জন্যও এর সুনাম আছে।

হংকংয়ে বার্থ-এর অফিস রয়েছে। সেখানে নিক্কি এশিয়ান রিভিউ’র সঙ্গে তার কথা হয়। তিনি বলেন, প্রত্যক্ষ বিদেশী বিনিয়োগের বিচারে এটা হবে দেশটির বেসরকারি খাতে এককভাবে সবচেয়ে বড় অংকের পুঁজি বিনিয়োগ।

বার্থ মনে করেন যে বিনিয়োগকারীরা তাদের বিনিয়োগের চার থেকে পাঁচগুণ পর্যন্ত ফেরত পেতে পারেন। আগামীতে তিনি তার ভুটান ফান্ডকে লন্ডন স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত করতে চাচ্ছেন। তার বিনিয়োগের লক্ষ্যমাত্রা হলো ৫ মিলিয়ন থেকে ১৫ মিলিয়ন ডলার। এই বিনিয়োগ হবে পর্যটন, কৃষ্টি ও তথ্য প্রযুক্তি খাতে। আর আগামী তিন বছরের মধ্যে তহবিল সংগ্রহ করে এই বিনিয়োগের কাজে হাত দেয়া হবে।

আমেরিকান নাগরিক বার্থ গত এক দশক ধরে ভুটানে সময় দিচ্ছেন। তিনি বলেন, ভুটানের জন্য পুঁজি আনা কঠিন। এখানে ব্যবসায়িক ঋণে সুদের হার ১৭% থেকে ২০%।

তবে ভুটানের এই পুঁজির ঘাটতি মেটাতে ইন্টারন্যাশনাল ফাইন্যান্স কর্পোরেশন (আইএফসি) সম্প্রতি এগিয়ে এসেছে। ২০১৩ সালে ভুটানের ন্যাশনাল ব্যাংকে ২৮.৫ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করে আইএফসি।

এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে ভুটানের এফডিআই প্রাপ্তি সবচেয়ে কম। ফলে এখানে বিদেশী বেসরকারি বিনিয়োগও তেমন নেই। ভুটানের শেয়ার বাজারে নিবন্ধিত হওয়ার সুযোগ দেয়া হয় না বিদেশী ক্রেতাদের।

এত সমস্যার মধ্যেও বার্থের মতো কিছু ব্যক্তি দেশটিতে বেসরকারি বিনিয়োগ নিয়ে আসার জোর প্রচেষ্টা শুরু করেছেন।

সূত্রঃ সাউট এশিয়ান মনিটর।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত