শিরোনাম

  ২৪ ডিসেম্বর থেকে পার্বত্য এলাকাসহ মাঠপর্যায়ে সশস্ত্র বাহিনী মোতায়েন করা হবে   গ্রাম আদালতের একটি সফল গল্প   টেকনোক্র্যাট মন্ত্রীদের পদত্যাগের পর চার মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব বণ্টন   আগামী ২৪ ডিসেম্বর জেএসসি ও প্রাথমিক সমাপনীর ফল প্রকাশ   নির্বাচনকালীন ইউএনও-ডিসির স্বাক্ষরে শিক্ষকদের বেতন-ভাতা : শিক্ষা মন্ত্রণালয়   খালেদার মনোনয়ন বাতিলের বিরুদ্ধে হাইকোর্টের বিভক্ত আদেশ   'তিন পার্বত্য জেলায় ৩৮ টি ভোটকেন্দ্রে হেলিকপ্টার ব্যবহার করা হবে'   সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ন নির্বাচন নিশ্চিত করার আহ্বান ইউরোপীয় দেশগুলোর   তরুণ ও নারী ভোটাররাই আওয়ামী লীগের বিজয়ের প্রধান হাতিয়ারঃ কাদের   গত ৫ বছরে জেএসএস এমপি উন্নয়ন করতে পারেনি, যা করেছে আওয়ামীলীগ করেছে : দিপংকর তালুকদার   এখন থেকে সরকারি চাকরিতে যোগ দেওয়ার আগে মাদক পরীক্ষা বাধ্যতামূলক   'বান্দরবানে বিদেশি পর্যটকদের ভ্রমণে কোনো নিষেধাজ্ঞা নেই'   'নির্বাচনী প্রচারণায় রঙিন পোস্টার বা ব্যানার ব্যবহার করা যাবে না'   ৫৮টি নিউজ পোর্টাল খুলে দিয়েছে বিটিআরসি   বুধবার থেকে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করবেন প্রধানমন্ত্রী   বিএনপি ক্ষমতায় এলে শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন করার চেষ্ঠা করবো: মনি স্বপন দেওয়ান   তিন পাহাড়ে নৌকা নিয়ে মাঠে দৌড়াবেন যারা   আগামীকাল খালেদা জিয়ার অগ্নিপরীক্ষা   হিরোকে জিরো বানানো এত সহজ নয়, সফল হিরো আলমের চ্যালেঞ্জ   খাগড়াছড়িতে বনের রাজা পেয়েছেন ইউপিডিএফের প্রার্থী নতুন কুমার চাকমা
প্রচ্ছদ / আন্তর্জাতিক / এবার আয়ারল্যান্ড থেকে সু চির 'ফ্রিডম অব ডাবলিন সিটি’ পুরস্কার প্রত্যাহার

এবার আয়ারল্যান্ড থেকে সু চির 'ফ্রিডম অব ডাবলিন সিটি’ পুরস্কার প্রত্যাহার

প্রকাশিত: ২০১৭-১২-১৪ ১২:৪৮:৪৫

   আপডেট: ২০১৭-১২-১৪ ২০:৫৯:১১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর নির্যাতনের ঘটনা নিয়ে নিরব থাকায় এবার দেশটির স্টেট কাউন্সিলর ডি ফ্যাক্টর নেত্রী অং সান সুচির ‘ফ্রিডম অব ডাবলিন সিটি’ খেতাব প্রত্যাহার করেছে আয়ারল্যান্ডের ডাবলিন শহরের কাউন্সিলররা।

সু চি’কে এই খেতাব দেয়ার প্রতিবাদে গত মাসে পপ তারকা বব গেল্ডফ তার ‘ফ্রিডম অব ডাবলিন’ পুরস্কার ফিরিয়ে দেন। রাখাইনে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর চালানো অত্যাচার উপেক্ষা করার অভিযোগ করা হয়েছে সু চি’র বিরুদ্ধে।

আয়ারল্যান্ডের সরকারি বার্তাসংস্থার তথ্য অনুযায়ী, ৬২ জন কাউন্সিলরের মধ্যে সুচিকে তালিকা থেকে অপসারণের পক্ষে ভোট দেন ৫৯ জন, বিপক্ষে দেন দুইজন এবং একজন অনুপস্থিত ছিলেন।

মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নিশৃংস অভিযান চালানোর পর প্রাণ বাঁচাতে এ পর্যন্ত আট লাখের বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে পালিয়ে গিয়েছে এবং এ ঘটনায় সুচির ভূমিকা নিয়ে বিশ্বব্যাপি ব্যাপক সমালোচনা হয়। এরই প্রেক্ষিতে বুধবার ডাবলিন সিটি কাউন্সিল এই সিদ্ধান্ত নেয়।

সাম্প্রতিক সহিংসতা এড়াতে ৫ লক্ষেরও বেশী মানুষ বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছেন। আয়ারল্যান্ডের সরকারি বার্তা সংস্থার তথ্য অনুযায়ী, ৬২ জন কাউন্সিলরের মধ্যে সু চি’কে তালিকা থেকে অপসারণের পক্ষে ভোট দেন ৫৯ জন।

এর আগে নভেম্বরে মিয়ানমারের সংখ্যালঘু মুসলিম রোহিঙ্গাদের ওপর নিপীড়নের ঘটনায় নীরব থাকার অভিযোগে ডি ফ্যাক্টর নেত্রী অং সান সু চিকে দেওয়া ‘ফ্রিডম অব দ্য সিটি’ খেতাব চূড়ান্তভাবে কেড়ে নিয়েছিল যুক্তরাজ্যের অক্সফোর্ড সিটি কর্তৃপক্ষ।

কর্তৃপক্ষের দাবি, মিয়ানমার রোহিঙ্গা মুসলিমদের প্রতি যে আচরণ করছে, তাতে সুচির আর ‘ফ্রিডম অব দি সিটি’ নামের ওই পুরস্কারের যোগ্য নন। তাই সেটি চূড়ান্তভাবে প্রত্যাহার করা হল।

চূড়ান্তভাবে সিদ্ধান্তে পোঁছানোর আগে সিটি কাউন্সিলর মেরি ক্লার্কসন একটি ভোটাভুটির প্রস্তাব করেছিলেন। এরপর সম্মিলিত উদ্যোগে বিষয়টি আমলে নিয়ে সুচিকে দেয়া সম্মান প্রত্যাহার করে নিয়েছিল ব্রিটেনের অক্সফোর্ড শহরের নগর কাউন্সিল কর্তৃপক্ষ।

কিন্তু কেন তার কাছ থেকে কেড়ে নেওয়া হল সে বিষয়ে মেরি ক্লার্কসন বলেন, সুচির কাছ থেকে যে কারণে খেতাব কেড়ে নেওয়া হয়েছে কারণ তিনি রোহিঙ্গা চলমান সংকটের উপর নিরব ভূমিকা পালনসহ ঘটনার ধামাচাপা দিতে উদাসীন হয়ে চুপ থেকেছিলেন। তাই আমরা চুড়ান্ত পর্যায়ে সিদ্ধান্তে উপনীত হয়ে খেতাবটি প্রত্যাহার করে নিয়েছি।

মেরি ক্লার্কসন আরও বলেন, ‘আশা করি, আমাদের এই ছোট্ট পদক্ষেপ রোহিঙ্গাদের মানবাধিকার ও ন্যায়বিচার ফেরাতে অন্যদেরকেও উৎসাহ যোগাবে।’

 

-আয়ারল্যান্ড নিউজ,আইরিশ টাইমস

আপনার মন্তব্য

আলোচিত