শিরোনাম

  ২৪ ডিসেম্বর থেকে পার্বত্য এলাকাসহ মাঠপর্যায়ে সশস্ত্র বাহিনী মোতায়েন করা হবে   গ্রাম আদালতের একটি সফল গল্প   টেকনোক্র্যাট মন্ত্রীদের পদত্যাগের পর চার মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব বণ্টন   আগামী ২৪ ডিসেম্বর জেএসসি ও প্রাথমিক সমাপনীর ফল প্রকাশ   নির্বাচনকালীন ইউএনও-ডিসির স্বাক্ষরে শিক্ষকদের বেতন-ভাতা : শিক্ষা মন্ত্রণালয়   খালেদার মনোনয়ন বাতিলের বিরুদ্ধে হাইকোর্টের বিভক্ত আদেশ   'তিন পার্বত্য জেলায় ৩৮ টি ভোটকেন্দ্রে হেলিকপ্টার ব্যবহার করা হবে'   সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ন নির্বাচন নিশ্চিত করার আহ্বান ইউরোপীয় দেশগুলোর   তরুণ ও নারী ভোটাররাই আওয়ামী লীগের বিজয়ের প্রধান হাতিয়ারঃ কাদের   গত ৫ বছরে জেএসএস এমপি উন্নয়ন করতে পারেনি, যা করেছে আওয়ামীলীগ করেছে : দিপংকর তালুকদার   এখন থেকে সরকারি চাকরিতে যোগ দেওয়ার আগে মাদক পরীক্ষা বাধ্যতামূলক   'বান্দরবানে বিদেশি পর্যটকদের ভ্রমণে কোনো নিষেধাজ্ঞা নেই'   'নির্বাচনী প্রচারণায় রঙিন পোস্টার বা ব্যানার ব্যবহার করা যাবে না'   ৫৮টি নিউজ পোর্টাল খুলে দিয়েছে বিটিআরসি   বুধবার থেকে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করবেন প্রধানমন্ত্রী   বিএনপি ক্ষমতায় এলে শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন করার চেষ্ঠা করবো: মনি স্বপন দেওয়ান   তিন পাহাড়ে নৌকা নিয়ে মাঠে দৌড়াবেন যারা   আগামীকাল খালেদা জিয়ার অগ্নিপরীক্ষা   হিরোকে জিরো বানানো এত সহজ নয়, সফল হিরো আলমের চ্যালেঞ্জ   খাগড়াছড়িতে বনের রাজা পেয়েছেন ইউপিডিএফের প্রার্থী নতুন কুমার চাকমা
প্রচ্ছদ / আন্তর্জাতিক / ২০ হাজার ভিক্ষু নিয়ে মান্দালয়ে অনুষ্ঠিত হবে থাইল্যান্ড এবং মিয়ানমারের মহাদান অনুষ্ঠান

২০ হাজার ভিক্ষু নিয়ে মান্দালয়ে অনুষ্ঠিত হবে থাইল্যান্ড এবং মিয়ানমারের মহাদান অনুষ্ঠান

প্রকাশিত: ২০১৭-১২-১৩ ২০:৫৪:৪০

   আপডেট: ২০১৭-১২-১৪ ১৫:০৪:০৮

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

থাইল্যান্ড এবং মিয়ানমারে দুই দেশের সম্পর্ক জোরদার করতে মিয়ানমার মান্দালয় বিভাগীয় সরকার একটি গণ দান অনুষ্ঠান আয়োজন করেছে।

আগামী ২১ শে জানুয়ারী মান্দলয়ের চ্যানমিথারজি বিমানবন্দরের নিকটে অনুষ্ঠানটি উদযাপন করা হবে। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রায় মান্দালয় থেকে ২০,০০০ ভিক্ষু অংশগ্রহণ করার আশা করা যাচ্ছে। এছাড়া ও থাইল্যান্ড থেকে ৬০ জন ভিক্ষুকে নিমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

ধর্ম এবং সংস্কৃতির কেন্দ্রীয় মন্ত্রী, মান্দালয়ের মুখ্যমন্ত্রী এবং অন্যান্য আঞ্চলিক সরকারি কর্মকর্তা সহ সাংগঠনিক কমিটির সদস্যরা এই পুন্যনুষ্ঠান আয়োজন করেছে।

কমিটির মতে, থাইল্যান্ডের ভিক্ষুরা দ্বিতীয় বারের মত এবং মান্দালয় বিভাগের বিভিন্ন স্থান থেকে স্থানীয় সন্যাসীরা প্রথম বারের মত এই অনুষ্ঠানে যোগদান করবে।

কমিটির সভাপতি ইউ সু লিন বলেন , এই অনুষ্ঠানটি অনন্য ভূমিকায় পালন করা হবে যা আগে এই রকম অনুষ্ঠান মান্দালয়ে হয়নি।

তিনি আরো বলেন, এই মহতী অনুষ্ঠানটি শুধুমাত্র মায়ানমার ও থাইল্যান্ডের মধ্যে সম্পর্ককে শক্তিশালী করবে না, বরং দেশের বৌদ্ধ সংস্কৃতির সংরক্ষণও করবে। যা মান্দালয়ে ঐতিহাসিকভাবে পালন করা হবে।

কমিটির মতে, থাইল্যান্ডের ধাম্মাকায়া ফাউন্ডেশন এই অনুষ্ঠানটি করতে ২ লাখ ৯৩ হাজার ডলার দান করেছে।

এখন আমরা চ্যানমিথর্জি বিমানবন্দর পরিষ্কার করছি ,কারণ এয়ারপোর্টটি তাদুদে ছড়িয়ে নেওয়ার আগ পর্যন্ত এক দশকেরও বেশি সময় ধরে পরিত্যক্ত অবস্থায় রয়েছে জায়গাটি।

অনুষ্ঠানটি সফলভাবে পালন করতে এবং যানজট নিরসনের জন্য আমাদের প্রধান মন্ত্রী এই স্থানটি বেছে নিয়েছেন বলে ইউ সু লিন জানান।

এর আগে ২০১৫ সালে সেপ্টেম্বর মাসে ১০ হাজার ভিক্ষু দিয়ে থাইল্যান্ড এবং মিয়ানমার মান্দালয়ে এই রকম অনুষ্ঠান করেছিল।

এছাড়াও সংগঠন কমিটি বলেছে যে - এই অনুষ্ঠানটি আমন্ত্রিত সন্ন্যাসীদের থেকে যারা অনুষ্ঠানে যোগ দেবে তাদের প্রত্যেকের জন্য (মিয়ানমারের স্থানীয় মুদ্রা) অন্তত ৩০ হাজার কিয়াত দান দেওয়া হবে।

অনুষ্ঠানে যারা যারা অংশগ্রহণ করতে ইচ্ছুক আগামী ১৫ জানুয়ারির মধ্যে কমিটির সাথে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।

সূত্র- ইরাবতি।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত