আজ শনিবার, | ২১ অক্টোবর ২০১৭ ইং

শিরোনাম

  কুমিল্লায় বিশ্ব শান্তি প্যাগোডা উদ্বোধন   আগামীকাল থেকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা শুরু   নিজ নিজ মাতৃভাষা শেখার আহ্বান জানালেন \'উন্দুচ্যে বৈদ্য\'   বান্দরবানে জনসংহতি সমিতির সাধারণ সম্পাদক ক্যবামং মারমা পুনরায় উপজেলা চেয়ারম্যানে দায়িত্ব নিলেন   রোহিঙ্গাদের সংক্রামক রোগ পার্বত্য চট্টগ্রামে ছড়িয়ে পড়তে পারে || বিশেষজ্ঞদের কড়া সতর্ক   বৃষ্টি হতে পারে সারাদেশে, তিন নম্বর সংকেত দেখিয়ে যাওয়ার বুলেটিন   শিক্ষক এবং শিক্ষকতা || মুহম্মদ জাফর ইকবাল   ঢাবি ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শুরু   মিয়ানমারের বিলাসবহুল হোটেল অগ্নিকান্ডে পুড়ে ছাই   যারা সন্ত্রাসের সাথে জড়িত তাদের ধর্ম পরিচয় আর থাকেনাঃ দলাই লামা   বিশ্বের সবচেয়ে বেশি শীত যেখানে   মন্ট্রিয়লে রোহিঙ্গাদের সহায়তায় চ্যারেটি ফান্ড ‘রেইজিং গালা’   বাঁশ কোড়ল আদিবাসীদের ঐতিহ্যবাহী প্রিয় খাবার   ঢাবির \'ক\' ও \'চ\' ইউনিটের ফল প্রকাশ   দেশে ফিরেছেন খালেদা জিয়া   শ্যামা পূজা বৃহস্পতিবার   মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতায় চীনে আদিবাসীদের থামি পড়ে অংশগ্রহণ করবেন জেসিয়া ইসলাম   সন্ত্রাসীদের ধরতে শীঘ্রই তিন পার্বত্য জেলায় র‍্যাবের নতুন ইউনিট যাচ্ছে   পূর্ণ্য তীর্থ পূর্ব বিনাজুরী গ্রামের নিয়তি রানী বড়ুয়া চলে গেলেন না ফেরার দেশে   বেরোবির প্রভাষক পদে মাহমুদুলকে নিয়োগ দিতে উচ্চ আদালতের নির্দেশ

ভারতে পারমাণবিক হামলা করার প্রস্তুত রয়েছে চীন!

প্রকাশিত: ২০১৭-০৭-২০ ১০:২১:০৮

   আপডেট: ২০১৭-০৭-২০ ১১:০১:৫০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ভারতের উত্তর প্রদেশের নেতা মুলায়ম সিং যাদব বলেছেন, পাকিস্তানের সঙ্গে মিলে ভারতে পারমাণবিক হামলার পরিকল্পনা করছে। চীন-ভারত বিবাদের বিষয়ে সংযত বক্তব্য দেয়ার সরকারি পরামর্শ উপেক্ষা করে বর্ষীয়ান এই বিরোধী দলীয় নেতা বলেন, ভারতে হামলার জন্য পাকিস্তানে পারমাণবিক বোমা লুকিয়ে রেখেছে চীন। একই সঙ্গে তিব্বতের স্বাধীনতায় সমর্থন ও তিব্বত ইস্যুতে ভারতের অবস্থান বদলাতে দেশটির সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

ভারত-চীন চলমান উত্তেজনার মাঝে বুধবার লোকসভার অধিবেশনে সমাজবাদী পার্টির এই নেতা তিব্বত ইস্যু তুলে ধরেন। এ সময় তিনি প্রতিবেশী দেশগুলো যদি ভারতে হামলা চালায় তাহলে তা মোকাবেলায় সরকার সম্ভাব্য কি ধরনের পদক্ষেপ নিতে পারে তা সংসদসকে জানাতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

ভারত আজ চীনের কাছে থেকে বড় ধরনের বিপদের সম্মুখীন হয়েছে। চীন পাকিস্তানের সঙ্গে হাত মিলিয়েছে। ভারতে হামলার পুরো প্রস্তুতি নিয়েছে তারা

মুলায়ম যাদব বলেন, ভারত আজ চীনের কাছ থেকে বড় ধরনের বিপদের সম্মুখীন হয়েছে। আমি কেন্দ্রীয় সরকারকে গত কয়েক বছর ধরে সতর্ক করেছি। চীন পাকিস্তানের সঙ্গে হাত মিলিয়েছে। ভারতে হামলার পুরো প্রস্তুতি নিয়েছে তারা।

চীন ইস্যুতে কঠোর নীতিতে অটল মুলায়ম বলেন, ভারতের সবচেয়ে বড় প্রতিদ্বন্দ্বী চীন। সরকার কী পদক্ষেপ নিয়েছে? কাশ্মিরে পাক সেনাবাহিনীর সঙ্গে জোট বেঁধেছে চীনা সেনাবাহিনী।

সমাজবাদী পার্টির এই নেতার দাবি, ভারতকে লক্ষ্য করে পাকিস্তানের মাটিতে পারমাণবিক অস্ত্র পুঁতে রেখেছে চীন। তিনি বলেন, ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থাগুলো এ বিষয়ে ভালো জানে।

তিব্বতকে চীনের অংশ ভেবে ভারত যে অবস্থান নিয়েছিল তা ভুল ছিল বলে মন্তব্য করেন মুলায়ম যাদব। তিনি বলেন, তিব্বতের স্বাধীনতায় ভারতের সমর্থন জানানোর সময় এসেছে।

মুলায়ম যাদব বলেন, চীন আমাদের শত্রু, পাকিস্তান নয়। পাকিস্তান আমাদের কোনো ক্ষতি করতে পারে না।

তিনি বলেন, ভুটানকে সুরক্ষা দেয়া ভারতের দায়িত্ব। নেপালের দিকে নজর দিচ্ছে চীন। ভারতের বাজারে ব্যাপক চীনা পণ্যের উপস্থিতিরও সমালোচনা করেন ভারতের সাবেক এই প্রতিরক্ষামন্ত্রী।

এদিকে,ক্রমশ জটিল হচ্ছে পরিস্থিতি! রীতিমত যুদ্ধের হুঙ্কার দিয়ে একেবারে ভারত সীমান্ত ঘেঁষে মহড়া শুরু করেছে চিন। এবার আরও এক ধাপ এগিয়ে উত্তর তিব্বতে বিভিন্ন সামরিক সরঞ্জাম সহ চিনা সেনা পৌঁছে গেল। সূত্রের দাবি, জুনের শেষের দিকে চিনা সেনাদের উপস্থিতি লক্ষ্য করা যায় তিব্বতে। উত্তর তিব্বতের কুনলুন পর্বত এলাকায় এই সামরিক সরঞ্জামগুলি জমা করা হয়েছে। হঠাত করে ভারত-চিনের মধ্যে যখন উত্তেজনা তুঙ্গে তখন হঠাত করে কেন এত সেনা মোতায়েন? তা নিয়ে শুরু হয়েছে ধন্দ। অনেকের মতে, তাহলে কি যুদ্ধের ইঙ্গিত দিচ্ছে চিন?

প্রকাশিত খবরে বলা হয়েছে, সামরিক সমস্ত সরঞ্জাম সড়ক ও রেলপথে ওয়েস্টার্ন থিয়েটার কম্যান্ডের তত্ত্বাবোধানে সরানো হয়েছে। মূলত চিনা সেনার ওয়েস্টার্ন থিয়েটার কম্যান্ড সেনাবাহিনীর অন্য ব্রিগেডের সঙ্গে হাত মিলিয়ে ভারত-চিন সীমান্তে নজরদারির দায়িত্বে রয়েছে। এছাড়া ঝিনজিয়াং এবং তিব্বত এলাকার ওপর নজরাদারি চালানোর দায়িত্বও রয়েছে চিনা সেনাবাহিনীর এই ব্রিগেডের ওপর। তবে গত কয়েকদিন তিব্বতে যে লাইভ-ফায়ার ড্রিলটি অনুশীলন করেছিল চিনা সেনা, তার সঙ্গে সরঞ্জাম সেখানে নিয়ে যাওয়ার কোনও যোগ রয়েছে কিনা সেবিষয়ে কিছু উল্লেখ নেই রিপোর্টে।

এদিকে ডোকালাম পরিস্থিতির জন্যে ভারতকেই সম্পূর্ণ দায়ি করছে চিন। সেখানে ভারতীয় সেনাবাহিনীর অনুপ্রবেশ রুখতেও হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে বেজিংয়ের তরফে। ডোকালাম হচ্ছে সেই এলাকা, যেটা ভারত-চিন এবং ভুটানের মধ্যে অবস্থিত। কৌশলগতভাবে এই জায়গার গুরুত্ব মারাত্মক। আর তা নিয়েই ক্রমশ উত্তেজনা বাড়ছে ভারত-চিনের মধ্যে।

সূত্র : টাইমস অব ইন্ডিয়া।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত