শিরোনাম

  ভুটানকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে ফাইনালে বাংলাদেশের মেয়েরা   খাগড়াছড়িতে সেটেলার কর্তৃক পাহাড়ী নারীকে ধর্ষণ চেষ্ঠা   গুলো-গুলি || আলোময় চাকমা   বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে ফুল দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা   মহালছড়িতে আবার ৩ গ্রামবাসীকে অপহরণ করেছে সন্ত্রাসীরা   আজ খালেদা জিয়ার জন্মদিন!   বাঙালির শোকের দিন আজ   বঙ্গবন্ধুর শোক দিবসে ২১০টি গরু জবাই দিয়ে কাঙালি ভোজ আয়োজন !   পিসিপি ২৬ তম কাউন্সিল ও ছাত্র সম্মেলন সম্পন্ন , নিপন ত্রিপুরাকে সভাপতি ও অমর শান্তি চাকমাকে সাধারণ সম্পাদক   পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়ন : অর্থনৈতিক না রাজনৈতিক সমস্যা ?   খাগড়াছড়িতে ৪ গ্রামবাসীকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে   শান্তি চুক্তির পর পাহাড়ে যে উন্নয়ন হয়েছে তা টেলিটক থেকে মেসেজ করে আমরা পৌঁছে দেব : তারানা হালিম   এবার বিশ্বের মধ্যে খারাপ শহরের তালিকায় ২য় স্থানের নাম লিখেছে ঢাকা , বাংলাদেশ   জিয়াউর রহমানই পাহাড়ে সমতল থেকে মানুষ নিয়ে অশান্তির বীজ বপন করেছিল   সরকারি চাকরিজীবীরা বেতন-বোনাস পাচ্ছেন বৃহস্পতিবার   নেপালকে ৩-০ গোলে হারিয়ে সেমিফাইনালে মারিয়া মান্দার দল বাংলাদেশ   দৈনিক সমকালের সম্পাদক গোলাম সারওয়ার আর নেই   শহিদুলের মুক্তির দাবি জানিয়েছেন নোবেলজয়ী স্টিগলিজসহ ১৩ বরেণ্য ব্যক্তিত্ব   খাগড়াছড়িতে ৪ গ্রামবাসীকে অপহরণ করেছে সন্ত্রাসীরা   রিমান্ড শেষে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন অভিনেত্রী নওশাবা
প্রচ্ছদ / আন্তর্জাতিক / জবাইয়ের জন্য পশু বিক্রি নিষিদ্ধ করল ভারত

জবাইয়ের জন্য পশু বিক্রি নিষিদ্ধ করল ভারত

প্রকাশিত: ২০১৭-০৫-২৬ ২১:৫৫:৪০

অনলাইন ডেস্ক

পশুবাজারে জবাইয়ের জন্য গরু, মহিষ বিক্রিতে বিধিনিষেধ আরোপ করল ভারতের নরেন্দ্র মোদির সরকার। শুধুমাত্র কৃষিকাজের জন্যই পশু কেনা-বেচা করা যাবে। বৃহস্পতিবার কেন্দ্রের পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে একটি নির্দেশিকা জারি করা হয়েছে।

নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, ‘প্রিভেনশন অফ ক্রয়েলিটি টু অ্যানিমেলস অ্যাক্ট ১৯৬০’-এর আওতায় কৃষিকাজের জন্য পশু বাজারে কেনাবেচা করা যাবে। কিন্তু জবাইয়ের জন্য গবাদি পশু ক্রয়-বিক্রয় করা যাবে না। একইসঙ্গে ওই নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, গরু কেনার ৬ মাসের মধ্যে সেটিকে বিক্রি করা যাবে না। কৃষি কাজে গরুকে লাগানো হবে, এজন্য প্রয়োজনীয় নথি দিতে হবে। তা না হলে তিনি গরু বা মহিষ কিনতে পারবেন না। তবে শুধু গরু বা মহিষই নয়, গরু ও মহিষের বাচ্চা, বয়স্ক পশু, উট জবাইয়ের জন্য বিক্রি করা যাবে না।

লাইসেন্স নিয়ে যারা পশু জবাই করছে সেসব কসাইখানা চালু থাকবে। কেন্দ্রীয় সরকারের এই নির্দেশিকার ফলে দেশ থেকে গোমাংস বিক্রি হয়তো পুরোপুরি নিষিদ্ধ হল না, তবে বাজারে গরু বিক্রির উপরে নিষেধাজ্ঞা চাপানোয় কার্যত গোমাংস বিক্রি বন্ধ হয়ে যাবে। কারণ গোটা দেশে লাইসেন্সধারী কসাইখানার সংখ্যা কম। একইসঙ্গে দেশের বৈদেশিক মুদ্রা আয়ে ঘাটতি পড়বে, সেই সঙ্গে এই পেশার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদেরও রোজগারে টান পড়বে। বিশেষ করে মাংস ও চামড়া ব্যবসার সঙ্গে জড়িত মুসলিম ব্যবসায়ীরা চূড়ান্ত কর্ম সমস্যার মুখোমুখি হতে পারে। ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে ছোট পশু পালকরাও।

আগামী তিন মাসের মধ্যে এই নির্দেশিকা কার্যকর করতে বলা হয়েছে। পশু বিক্রির আগে ক্রেতা ও বিক্রেতা দুপক্ষকেই কাগজপত্র দেখাতে হবে। দেখাতে হবে কৃষি জমির নথি। গরু কেনার পর স্থানীয় রাজস্ব অফিসে নথি জমা দিতে হবে ক্রেতাকে। পাশাপাশি জেলার পশু চিকিৎসকের কাছেও ওই নথি জমা দিতে হবে।

কেন্দ্রীয় পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের নতুন নিয়ম অনুযায়ী পশুর বাজারে পশুদের চিকিৎসা থেকে স্বাস্থ্যকর পরিবেশ রাখতে হবে। পাশাপাশি সীমান্ত এলাকার ৫০ কিলোমিটার এলাকার মধ্যে পশুবাজার খোলা যাবে না। আর রাজ্যগুলোর সীমানার ২৫ কিলোমিটারের মধ্যে খোলা যাবে না পশু বাজার।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত