শিরোনাম

  নৌকার জয় সুনিশ্চিত : প্রধানমন্ত্রী   আজ ইউপিডিএফ’র ২০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী   এবার থাইল্যান্ডে বৈধ হলো গাঁজা   ইউপিডিএফ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সকলকে সংগ্রামী শুভেচ্ছা জানালেন প্রসিত বিকাশ খীসা   চীনা শিশুরা আর স্কুল পালাতে পারবে না!   আবার ক্ষমতায় গেলে ভুল সংশোধন করা হবে : কাদের   প্রধানমন্ত্রী থেকে মাতৃভাষার বই পেয়েছে ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠীর শিশুরা   শুভ বড়দিন আজ   রোহিঙ্গাদের জন্য শীতবস্ত্র পাঠাল ভারত   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪০০ অধিক ছাড়িয়েছে   টাকার মালা উপহার পেলেন ফখরুল!   মধ্যরাত থেকে নির্বাচনী মাঠে সেনাবাহিনী   ভোটের দিন ২৪ ঘণ্টা সব যান চলাচল বন্ধ   সেনা মোতায়েনে ভোটারদের মধ্যে আস্থা ফিরে আসবে: সিইসি   পানছড়িতে ইউপিডিএফের নির্বাচনী অফিসে এলোপাতাড়ি ব্রাশ ফায়ারে ২ জন নিহত!   জেএসসি ও পিইসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ   আগামী ৩০ তারিখ আমরা নৌকার বিজয় নিয়ে ঘরে ফিরবো: দীপংকর তালুকদার   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২২২ জন   যারা মানুষ পুড়িয়ে মারে তাদের ভোট দেবেন নাঃ প্রধানমন্ত্রী   ২৮ ডিসেম্বর থেকে ১ জানুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত ৪ দিন মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা
প্রচ্ছদ / সমগ্র দেশ / আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহর ছেলে সাদিক এবার বরিশাল মেয়র প্রার্থী

আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহর ছেলে সাদিক এবার বরিশাল মেয়র প্রার্থী

প্রকাশিত: ২০১৮-০৭-৩০ ২০:৫৮:১১

   আপডেট: ২০১৮-০৭-৩০ ২১:১২:৩৬

ফাইল ছবি। ডেইলি সিএইচটি।

অনলাইন রিপোর্ট

এ বছর বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী আওয়ামী লীগের বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাদিক আবদুল্লাহ। তিনি আলহাজ্ব আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ এর জেষ্ঠ্য পুত্র।

তিনি বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগ এর যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্বরত আছেন।

নির্বাচণের আগে তাঁর পক্ষে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি গোলাম আব্বাস চৌধুরী। তার সঙ্গে ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তালুকদার মো. ইউনুস ও মহানগরের সাধারণ সম্পাদক এ কে এম জাহাঙ্গীর।

এই সিটি করপোরেশনের চতুর্থ নির্বাচনে মেয়র পদে ৬ জন, সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে ৯৪ জন ও সংরক্ষিত নারী কাউন্সিলর পদে ৩৫ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।
শান্তি চুক্তি ১৯৯৭।ছবিঃ পিএমও।

১৯৯৭ সালে ২ ডিসেম্বর পার্বত্য চুক্তি হয়েছিল।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে অস্ত্র জমা দিয়ে এ চুক্তিতে স্বাক্ষর করেছিলেন শান্তি বাহিনীর পক্ষে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির নেতা জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় লারমা (সন্তু লারমা) এবং বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে তৎকালীন চিফ হুইপ।

নগর ভবনের সামনে থেকে তোলা, ফাইল ছবি। ডেইলি সিএইচটি।

এ কারণে চলতি বছর মার্চে মন্ত্রীর পদমর্যাদা পেয়েছিলেন ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ।এতে বলা হয়, সরকার এই মর্মে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেছে যে, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক জাতীয় কমিটি ও পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির মধ্যে সম্পাদিত চুক্তি বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া পরিবীক্ষণ করার লক্ষ্যে গঠিত চুক্তি বাস্তবায়ন কমিটির আহবায়ক আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ এমপি এ পদে অধিষ্ঠিত থাকাকালীন মন্ত্রীর পদমর্যাদা, বেতন ভাতা ও আনুষঙ্গিক অন্যান্য সুযোগ সুবিধা পাবেন।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত