আজ শুক্রবার, | ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭ ইং

শিরোনাম

  সন্তুু লারমার কুশপুত্তলিকা দাহ করার প্রতিবাদে ও স্বেচ্ছায় বাঘাইছড়িতে আ. লীগের অর্ধশত পাহাড়ী নেতা-কর্মীর পদত্যাগ   পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তি চুক্তিতে যেসব বিষয় অবাস্তবায়িত রয়ে গেছে   অনাদী রঞ্জন চাকমা হত্যাকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বরাবর স্মারকলিপি   রাংগামাটি বাঘাইছড়ি পৌরসভা ও ইউনিয়নে স্বেচ্ছায় আরো ২১ জন পাহাড়ি আ. লীগ নেতার পদত্যাগ   এবার আয়ারল্যান্ড থেকে সু চির \'ফ্রিডম অব ডাবলিন সিটি’ পুরস্কার প্রত্যাহার   শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস আজ   রোহিঙ্গাদের জন্য ১৪ দশমিক ৫ মিলিয়ন ডলার অনুদান দিবে যুক্তরাষ্ট্র   ২০ হাজার ভিক্ষু নিয়ে মান্দালয়ে অনুষ্ঠিত হবে থাইল্যান্ড এবং মিয়ানমারের মহাদান অনুষ্ঠান   মিয়ানমারে রয়টার্সের দুই সাংবাদিক আটক, দোষী সাব্যস্ত হলে ১৪ বছর কারাদন্ড হতে পারে   ত্রিপুরা রাজ্যে মায়েদের সন্তান পালনের জন্য ছুটি দুই বছর   প্যারিসে শীর্ষক গণশুনানি ও জলবায়ু পরিবর্তনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ   আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ কনফেডারেশন মহাসচিব হিসেবে নির্বাচিত হলেন ত্রিপুরা বৌদ্ধ ভিক্ষু   জালালাবাদ এসোসিয়েশন অফ টরোন্টোর ট্রাস্টী এবং উপদেষ্টামণ্ডলীর পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত   ত্রাণের উপর ঘুমাচ্ছে রোহিঙ্গারা , শীতে কেমন আসে লংগদুর পাহাড়িরা?   পার্বত্য এলাকায় আইন শৃঙ্খলা রক্ষার প্রাথমিক দায়িত্ব আঞ্চলিক ও জেলা পরিষদের ওপর ন্যস্ত করার সুপারিশ   হামলার অভিযোগে আটককৃত ব্যক্তিরা রাঙ্গাপানি ও ভেদভেদী এলাকার অটোরিক্সা চালক, ছাত্র ও দিনমজুর   তিব্বতীয় মুসলমানরা দালাই লামাকে এখনো নেতা হিসেবে মনে করে   রাঙ্গামাটিতে ৬৯ গ্রামবাসী ও জেএসএস সদস্যের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা, নিরীহ ১৯ জনকে গ্রেফতার, ১২ জনকে হয়রানির অভিযোগ   নিউইয়র্কে হামলাকারী সন্দেহভাজন ব্যক্তি চট্টগ্রাম থেকে, পরিবার আতঙ্কিত   বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চ ভাষণের বিশ্ব স্বীকৃতিতে কানাডার অটোয়ায় বাংলাদেশ হাইকমিশনের আনন্দ শোভাযাত্রা

বান্দরবানে জনসংহতি সমিতির নেতা ও পিসিপি নেতাকর্মী সহ ১৫ জনকে জেলহাজতে প্রেরণ

প্রকাশিত: ২০১৭-১১-২০ ২০:৪০:০২

   আপডেট: ২০১৭-১১-২০ ২২:৩৬:১৬

নিজস্ব প্রতিবেদক,বান্দরবান

বান্দরবানে জনসংহতি সমিতির নেতা ও পিসিপি নেতাকর্মী সহ ১৫ জনকে জেলহাজতে পাঠিয়েছেন আদালত।২০ নভেম্বর সোমবার চাঁদাবাজি ও অপহরণ মামলা অভিযোগে জামিন আবেদন মঞ্জুর না করে তাদেরকে কারাগারে পাঠানো হয়।

নেতাকর্মীদের মধ্যে রয়েছেন- মৌজা হেডম্যান মংপু মারমা,রুমা উপজেলা চেয়ারম্যান অংথোয়াই চিং মারমা, কেন্দ্রীয় সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক জলিমং মারমা, জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক রোয়াংছড়ি উপজেলা চেয়ারম্যান ক্যবামং মারমা, নুয়াপতং ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সম্ভু কুমার তঞ্চঙ্গ্যা, জনসংহতি সমিতির জেলা শাখার সহসভাপতি চিংহ্লা মং চাক,  যুব সমিতির সভাপতি মস্তু মারমা, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের সভাপতি অজিত তঞ্চঙ্গ্যা, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের নেতা পাস্মেন বম ও উবাচিং মারমা।

নেতাকর্মীদের মধ্যে মামলা থেকে জামিন পেয়েছেন শম্ভু কুমার তঞ্চঙ্গ্যা , উপজেলা চেয়ারম্যান ক্যবামং মারমা ,অংথোয়াই চিং মারমা নোয়াপতং ইউপি চেয়ারম্যান ।

অভিযোগ রয়েছে, গত বছরের জুন মাসে আওয়ামী লীগের সদর উপজেলার নেতা মংপু অপহরণের ঘটনায় জনসংহতি সমিতি ও পিসিপি নেতাকর্মীদের সম্পৃক্ততা রয়েছে।

তবে জনসংহতি সমিতির পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, গতবছর ১৪ জুন ২০১৬ বান্দরবান সদর উপজেলার রাজভিলা ইউনিয়নের জামছড়ি মুখ গ্রামের অধিবাসী ও আওয়ামীলীগের সদস্য মংপু মারমাকে কে বা কারা অপহরণের ঘটনার সাথে জড়িত করে জনসংহতি সমিতি, পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ ও যুব সমিতির নেতাকর্মী ও নিরীহ গ্রামবাসীর ৩৮ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতনামা আরও ১৫/২০ জনের বিরুদ্ধে পুলিশ ও সেনাপ্রশাসনের যোগসাজশে স্থানীয় আওয়ামীলীগ কর্তৃক এক মিথ্যা ও সাজানো মামলা দায়ের করা হয়।

এর আগেও ১৮ আগস্ট ২০১৬ বান্দরবানে আবারও চাঁদাবাজিসহ বিভিন্ন মিথ্যা অভিযোগে মংসানু মারমা নামে আওয়ামীলীগের সমর্থক কর্তৃক জনসংহতি সমিতি ও পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের ১৬ জন সদস্যদের বিরুদ্ধে; ২৩ আগস্ট ২০১৬ মোঃ মহিউদ্দিন নামে এক লাইনম্যান কর্তৃক চাঁদাবাজি, ছিনতাইসহ বিভিন্ন মিথ্যা অভিযোগে জেএসএস ও পিসিপির ১৬ জনের বিরুদ্ধে; এবং ১ আগস্ট মো: আবদুল করিম নামে জনৈক আওয়ামীলীগ নেতা কর্তৃক চাঁদাবাজির অভিযোগে জনসংহতি সমিতির ১০ জন সদস্যদের বিরুদ্ধে পর পর তিনটি মামলা দায়ের করা হয়।

এরই প্রতিবাদে সম্প্রতি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার, ধর - পাকড় ও হয়রানি বন্ধের দাবিতে বান্দরবান জেলা সদর ও ঢাকা সহ কয়েকটি স্থানে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির নেতাবৃন্দরা ও সাধারণ জনগণ। তারা অবিলম্বে এ মামলা হতে জনসংহতি সমিতির নেতাকর্মীদের নাম প্রত্যাহারের জোর দাবি জানান।এছাড়া নেতাকর্মীদের অবিলম্বে মামলা থেকে প্রত্যাহার করা না হলে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি অবরোধ হরতালসহ কঠোর আন্দোলনে যাওয়ার হুমকি উচ্চারণ করা হয়।

আপনার মন্তব্য

এ বিভাগের আরো খবর




আলোচিত