শিরোনাম

  নৌকার জয় সুনিশ্চিত : প্রধানমন্ত্রী   আজ ইউপিডিএফ’র ২০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী   এবার থাইল্যান্ডে বৈধ হলো গাঁজা   ইউপিডিএফ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সকলকে সংগ্রামী শুভেচ্ছা জানালেন প্রসিত বিকাশ খীসা   চীনা শিশুরা আর স্কুল পালাতে পারবে না!   আবার ক্ষমতায় গেলে ভুল সংশোধন করা হবে : কাদের   প্রধানমন্ত্রী থেকে মাতৃভাষার বই পেয়েছে ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠীর শিশুরা   শুভ বড়দিন আজ   রোহিঙ্গাদের জন্য শীতবস্ত্র পাঠাল ভারত   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪০০ অধিক ছাড়িয়েছে   টাকার মালা উপহার পেলেন ফখরুল!   মধ্যরাত থেকে নির্বাচনী মাঠে সেনাবাহিনী   ভোটের দিন ২৪ ঘণ্টা সব যান চলাচল বন্ধ   সেনা মোতায়েনে ভোটারদের মধ্যে আস্থা ফিরে আসবে: সিইসি   পানছড়িতে ইউপিডিএফের নির্বাচনী অফিসে এলোপাতাড়ি ব্রাশ ফায়ারে ২ জন নিহত!   জেএসসি ও পিইসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ   আগামী ৩০ তারিখ আমরা নৌকার বিজয় নিয়ে ঘরে ফিরবো: দীপংকর তালুকদার   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২২২ জন   যারা মানুষ পুড়িয়ে মারে তাদের ভোট দেবেন নাঃ প্রধানমন্ত্রী   ২৮ ডিসেম্বর থেকে ১ জানুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত ৪ দিন মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা
প্রচ্ছদ / খেলাধুলা / ব্রাজিলকে রুখে দিতে প্রস্তুত বেলজিয়াম

ব্রাজিলকে রুখে দিতে প্রস্তুত বেলজিয়াম

প্রকাশিত: ২০১৮-০৭-০৫ ২০:৪৮:৫৬

   আপডেট: ২০১৮-০৭-০৫ ২০:৫৭:৪৬

স্পোর্টস ডেস্ক

রাশিয়া বিশ্বকাপে ব্রাজিলকে সেরা দল হিসেবে অভিহিত করলেও কোয়ার্টারফাইনালে তারা কোন প্রকার ছাড় পাবে না বলে জানিয়েছেন বেলজিয়াম তারকা ভিনসেন্ট কোম্পানি।

এই দশকের অন্যতম মেধাবী দল বেলজিয়াম আগামীকাল শুক্রবার কোয়ার্টার ফাইনালে কাজানে ৫ বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের মুখোমুখি হবে। কোম্পানি সাংবাদিকদের বলেন, ‘চলতি বিশ্বকাপে ব্রাজিল হচ্ছে সবচেয়ে শক্তিশালী দল। এটি একটি স্বীকৃতি। তার মানে এই নয় যে তাদের বিপক্ষে আমাদের সুযোগ ভাল কিছু করার সুযোগ নেই।’

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ১-০ গোলে জয় পাওয়া গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে বদলী হিসেবে মাঠে নামা এই বেলজিয়ান ডিফেন্ডার বলেন, ‘ব্রাজিলের বিপক্ষে হেরে যাবার ভয়ে নিদ্রাহীন রাত কাটানো কোন খেলোয়াড় আমাদের নেই। রক্ষণভাগে তারা বেশ শক্তিশালী। আক্রমণ ও রক্ষণ উভয় বিভাগেই তারা উতরে গেছে। তারা একক মোকাবেলায় কাউকে ভয় পায় না। যে কোন পরিস্থিতিতে জট খোলার জন্য তাদের কাছে সব সময় একটি চাবি মজুদ থাকে।’

ম্যানচেস্টার সিটির অদম্য তারকা ৩২ বছর বয়সি কোম্পানি বলেন, এডেন হ্যাজার্ড, কেভিন ডি ব্রুইয়ানের মত খেলোয়াড়দের নিয়ে বেলজিয়াম গর্ব করতে পারে। তবে ব্রাজিলের মত দলকে হারাতে হলে তাদেরকে অবশ্যই দলগত পারফর্মেন্স দেখাতে হবে। তিনি বলেন, ‘আমরা তাদের দিকে তাকিয়ে আছি। তবে এই ম্যাচে যদি আমরা কোন একক নৈপুণ্যে নির্ভর করতে চাই, তাহলে হারতে হবে।’

শেষ ষোলর লড়াইয়ে জাপানের কাছে ২-০ গোলে পিছিয়ে পড়ার পরও শেষ মুহূর্তে ৩-২ গোলের রোমঞ্চকর এক জয় নিয়ে কোয়ার্টারফাইনাল নিশ্চিত করেছে বেলজিয়াম। ইতোমধ্যে অনেকগুলো ফেভারিট দল টুর্নামেন্ট থেকে ছিঠকে পড়েছে। এটিই ফুটবলের মূল আকর্ষল।

কোম্পানি বলেন, ‘আমরা ফুটবলের একটি আকর্ষণীয় স্টাইল গড়েছি। প্রতিপক্ষের জালে প্রচুর গোল করে নিজেদের ভাল একটি দল হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছি। ব্রাজিলের বিপক্ষে যদি ভাল খেলতে পারি তাহলে আরো বেশি সমর্থককে আকৃষ্ট করতে পারবো। নিরপেক্ষ দর্শকরা সব সময় ভাল ফুটবলের প্রশংসা করে। যেমনটি খেলে থাকে হল্যান্ড। আমরাও এখন নিয়মিতভাবে উন্নতি করছি। ব্রাজিলের বিপক্ষে এখন আর একটি ধাপে পৌঁছাতে হবে। আমি অন্তত মনে করছি, আমরা পারব।’

কালকের গুরুত্বপূর্ণ কোয়ার্টার ফাইনালের ওই ম্যাচে বেলজিয়ামকে অবশ্যই নেইমার থামানোর উপায় খুঁজে বের করতে হবে। রাশিয়ায় তার পারফর্মেন্স যেমন সবাইকে মুগ্ধ করেছে তেমনি ফাউলের বিপরীতে অতিরিক্ত প্রতিক্রিয়ার সমালোচনাও হয়েছে জোড়ালোভাবে।

নেইমার তার সামনে পড়েলে কি করবেনÑ ব্রাজিলীয় সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে কোম্পানি উল্টো তাদের দিকে সেটি ছুঁড়ে দিয়ে জিজ্ঞেস করেন, ‘এ ক্ষেত্রে আপনারা তাকে কি বলবেন? আপনারা ব্রাজিলীয় সাংবাদিক। আহ, আমি দেখছি আপনারা উত্তর দিতে ভয় পাচ্ছেন। তবে নেইমারের কার্মকান্ড নিয়ে আমি পরোয়া করি না। ম্যাচটি যদি একক নৈপুণ্য নির্ভর হয় তাহলে আমাদের কোন সুযোগ থাকবে না। আমরা যদি দলবদ্ধভাবে খেলতে পারি, তাহলে আমরা কিছু একটা করতে পারবো। এটাই আমার কাছে সবচেয়ে বেশি বিবেচ্য।’

এবারের টুর্নামেন্টে এ পর্যন্ত জয়ের ধারা ধরে রাখা দু’দলই একইভাবে নিজেদের প্রমান করে সামনে এগিয়ে যেতে আত্মবিশ্বাসী মনোভাব পোষন করেছে। টুর্ণামেন্টে সর্বোচ্চ ১২টি গোল দিয়ে বেলজিয়াম যেমনভাবে নিজেদের শক্তিশালী আক্রমনভাগকে আরো একবার সামনে নিয়ে আসতে চায়, ঠিক সেভাবেই এ পর্যন্ত মাত্র ১ গোল হজম করা ব্রাজিল তাদের রক্ষনভাগের উপর পুরো আস্থা নিয়েই মাঠে নামবে।

বেলজিয়ামের কোচ রবার্তো মার্টিনেজও দলের পারফরমেন্সে আস্থা রেখে ব্রাজিলকে সতর্ক করে দিয়েছেন। দলীয় শক্তিকে আরো বৃদ্ধি করার তাগিদেই ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের তারকা মিডফিল্ডার মারোনে ফেলাইনিকে মূল একাদশে ফিরিয়ে আনার ইঙ্গিত দিয়েছেন মার্টিনেজ।

জাপানের বিপক্ষে শেষ ১৬’র ম্যাচে দুই গোলে পিছিয়ে থেকেও স্টপেজ টাইমের শেষ মিনিটে নাকের চাডলির গোলে কাউন্টার এ্যাটাক থেকে গোল করে ৩-২ ব্যবধানে জয় ছিনিয়ে নেয় মার্টিনেজের দল। ম্যাচের ৬৫ মিনিটে ফেলাইনি ও চাডলি মাঠে নামার পরে অন্য রকম এক উদ্দীপনা ফিরে পায় রেড ডেভিলসরা। ড্রিয়েস মার্টিনস ও ইয়ানিক কারাসকোর জায়গায় এই দু’জন নামার সাথে সাথে শারিরীক ভাবেই জাপানীজরা শক্তিতে পিছিয়ে পড়ে। বদলী হিসেবে নেমে ফেলাইনি ও চাডলি দুজনেই গোল করেছেন।

সে কারনেই কাজানে অনুষ্ঠিতব্য ম্যাচে ব্রাজিলের বিপক্ষে মূল একাদশে ফেলাইনির খেলার শতভাগ সম্ভাবনা রয়েছে বলেই মার্টিনেজ ইঙ্গিত দিয়েছেন। এ সম্পর্কে মার্টিনেজ বলেছেন, ‘একজন কোচ হিসেবে এই দলে আমার সামনে অনেক উপায় খোলা আছে। কিন্তু আমি ভালভাবেই জানি আমাকে কি করতে হবে। আমাদের শক্তির প্রয়োজন। সোমবার আমরা যেভাবে খেলেছি সেই একই ধরনের মানসিকতা দেখাতে পারলে আমাদের বড় সুযোগ রয়েছে। এটা আমাদের খেলোয়াড়দের জন্য স্বপ্নের ম্যাচ। তারা এই ধরনের ম্যাচ খেলার জন্য জন্ম নিয়েছে। স্বাভাবিক ভাবেই আমরা জয়ের জন্যই মাঠে নামবো। কিন্তু ব্রাজিলের বিপক্ষে অবশ্যই সেটা প্রত্যাশিত নয়।’

এদিকে মেক্সিকোর বিপক্ষে শেষ ১৬’র ম্যাচে ব্রাজিল খুব সহজে জয় পায়নি। যদিও ম্যাচের শেষটা ছিল দাপুটে। ম্যাচটিতে যথারীতি নেইমার ছিলেন কেন্দ্রবিন্দুতে। নিজে একটি গোল করা ছাড়াও অপর গোলটিতে এসিস্ট করেছেন। সাথে সাথে আরেকবার প্রমান করেছেন দলের প্রয়োজনে নিজের ফর্মের শীর্ষেই সবসময় থাকেন এই সুপারস্টার। যদিও এটাই তার অসম্ভব প্রতিভার শেষ সীমানা নয়, এখনো তার অনেক কিছুই দেবার বাকি আছে। ম্যাচ শেষে মেক্সিকান খেলোয়াড় ও কোচ হুয়ান কার্লোস ওসোরিও’র ব্যপক সমালোচনার মধ্যে পড়তে হয়েছে নেইমারকে। বিশেষ করে ওসোরিও অভিযোগ করে বলেছেন অযথাই ‘অভিনয়’ করে নেইমার রেফারির দৃষ্টি আকর্ষনের চেষ্টা করেছেন।

কিন্তু ব্রাজিলের সাবেক তারকা রিভালডো মনে করেন এই সমস্ত সমালোচনা উপেক্ষা করে নেইমারের শুধুমাত্র নিজের খেলার উপর মনোনিবেশ করা উচিত। বেলজিয়ামও নিশ্চিতভাবে সকল গুরুত্বের কেন্দ্রবিন্দুতে নেইমারকেই রাখবেন। অফিসিয়াল ইন্সটাগ্রাম পেজে রিভালডো লিখেছেন, ‘নেইমার তুমি তোমার স্বাভাবিক খেলা চালিয়ে যাও। অন্যদের সমালোচনা নিয়ে তোমার চিন্তিত হবার কোন কারন নেই।

কারন অনেকেই ইতোমধ্যেই দেশে ফিরে গিয়েছে। তুমি যদি ড্রিবল করতে চাও তবে তাই করো। তুমি যদিও বল মাথার উপর দিয়ে নিয়ে যেতে চাও তবে সেটাও করো, তুমি যদি গোল করতে চাও, করো। ফাউলের বিপরীতে যদি পড়ে যাও, যাও। মাটিতে পড়ে গিয়ে কিছুটা সময় নিতে হলে সেটাও করো, কারন সবাই তাই করে। সমস্যা হলো তুমি আমাদের দেশের আইডল এবং এটাই কিছু কিছু মানুষের সহ্য হয়না। আমি জানি না কেন। সবসময়ের মতই সব কিছুকে পিছনে ফেলে শুধুমাত্র আমাদেরকে ভাল ফুটবল উপহার দাও।’

বহিষ্কারাদেশের কারনে ব্রাজিল দলে থাকছেননা মিডফিল্ডার কাসেমিরো। এদিকে থাইয়ের ইনজুরির কারনে ডগলাস কস্তার খেলা নিয়েও শঙ্কা রয়েছে। নেইমার যদিও ভাল খেলে ব্রাজিলও ভাল খেলবে, এটাই মূল কথা। মেক্সিকোর বিপক্ষে নিজেকে প্রমানের পরে এই কথাটা আরো বড় করে সামনে চলে এসেছে। তাই বরাবরের মতই ব্রাজিলের অন্য সকলের থেকে নেইমারের দিকেই সকলের দৃষ্টি থাকবে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত