শিরোনাম

  ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠীর জন্য মাতৃভাষায় পুস্তক প্রকাশনার বিধান রেখে খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা   সরকারী চাকরিতে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ও পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জন্য কোটা না হলেও সমস্যা হবে না   রুয়েটে ভর্তি পরীক্ষার আবেদন শুরু   দুই আদিবাসী কিশোরী ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্তদের সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি   দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টি ও ভারী বর্ষণ হতে পারে   আদিবাসী মানবাধিকার সুরক্ষাকর্মীদের সম্মেলন ২০১৮ উদযাপন   ব্লগার বাচ্চু হত্যার সঙ্গে ‘জড়িত’ ২ জঙ্গি নিহত   জুমের বাম্পার ফলনে রাঙ্গামাটির চাষিদের মুখে হাসি   সরকারি চাকরিতে আদিবাসী কোটা বহাল দাবি জানাল আদিবাসীরা   আয়ারল্যান্ড প্রবাসী বাংলাদেশের এক মন্ত্রী দ্বারা হেনস্ত হওয়াতে হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের নিন্দা   শেখ হাসিনার জনপ্রিয়তা উল্লেখযোগ্য বৃদ্ধি পেয়েছে   মিয়ানমারে রয়টার্সের দুই সাংবাদিককে সাত বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত   শহীদ আলফ্রেড সরেন হত্যার ১৮ বছর: হত্যাকারীদের দ্রুত বিচারের দাবি জাতীয় আদিবাসী পরিষদের   ভারতের কাছে ১-০ গোলে হেরেছে বাংলাদেশের মেয়েরা   সরকারী চাকরিতে নিয়োগের ক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধা ছাড়া সব কোটা বাতিল হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী   জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনান মারা গেছেন   ঈদের ছুটি কাটানো হলোনা টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ার নিরীহ ধীরাজ চাকমার   খাগড়াছড়িতে পৃথক ঘটনার জন্য জেএসএস(সংস্কারবাদী) ও নব্য মুখোশ বাহিনীকে দায়ী করেছে : ইউপিডিএফ   নানিয়ারচর থেকে খাগড়াছড়ি   খাগড়াছড়িতে ৬ জনকে গুলি করে হত্যা !
প্রচ্ছদ / খেলাধুলা / অবশেষে ম্যারাডোনা গ্যালারি থেকে হাসপাতালে

অবশেষে ম্যারাডোনা গ্যালারি থেকে হাসপাতালে

প্রকাশিত: ২০১৮-০৬-২৭ ১৩:০৩:৩৮

   আপডেট: ২০১৮-০৬-২৭ ১৩:১৩:৫৮

স্পোর্টস ডেস্ক

চলতি বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনার দুইটি ম্যাচেই দর্শকসারিতে ছিলেন দেশটির কিংবদন্তী ফুটবলার ডিয়েগো ম্যারাডোনা। ফিফার ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর ছাড়াও নিজ দেশের শুভাকাঙ্ক্ষী হিসেবেই খেলা দেখেছেন ম্যারাডোনা। যার ফলে কখনো ভেসেছেন উত্তেজনায়, কখনো থমকে গেছেন হতাশায়।

এমন দৃষ্টান্ত মঙ্গলবার নাইজেরিয়ার বিপক্ষে আর্জেন্টিনার বাঁচা - মরা লড়াইয়ে দেখিয়েছিলেন ডিয়েগো ম্যারাডোনা। লিওনেল মেসির গোলে নাইজেরিয়ার বিপক্ষে এগিয়ে গিয়েছিল আর্জেন্টিনা। দ্বিতীয়ার্ধে পেনাল্টি থেকে সমতা ফেরায় নাইজেরিয়া। ম্যাচের ৮৬তম মিনিটে আর্জেন্টিনাকে এগিয়ে দিয়েছেন মার্কোস রোহো। এসময় বেশ উত্তেজিত ছিলেন ম্যারাডোনা।

নাইজেরিয়ার সঙ্গে ম্যাচটিতে প্রথমার্ধের ১৪ মিনিটে গোলের মুখ দেখেন মেসি৷ তখনও টিভি ক্যামেরাতে দেখা যায় আকাশের দিকে তাকিয়ে এক বিচিত্র অঙ্গভঙ্গি করছেন ফুটবলের প্রাক্তন রাজপুত্র৷ পরে রোজোর গোল আর্জেন্টিনার ম্যাচ পকেটে পোরার সঙ্গে সঙ্গেই গ্যালারি থেকে মিডল ফিঙ্গার দেখান বিশ্ব ফুটবলের ‘মহম্মদ বিন তুঘলক’৷

কিন্তু ম্যাচ শেষে হঠাৎই মিডল ফিঙ্গার কেন দেখাতে গেলেন ম্যারাডোনা? অনেকেই মনে করছেন আর্জেন্টিনার সমালোচকদের উদ্দেশ্যেই ওই রকম অশালীন অঙ্গুলি প্রদর্শন করেছেন মারাদোনা৷ তবে এখানেও একটা ব্যাপার থেকে যায়৷ বিশ্বকাপ শুরুর আগে আর্জেন্টাইন কিংবদন্তি জানিয়েছিলেন ‘গ্রুপ পর্বও’ পেরোবে না এই আর্জেন্টিনা দল৷ আর ঠিক এটাই হতে যাচ্ছিল৷ অবশ্য বিশ্বকাপের একদম শুরুতে ‘মেসির হাতে বিশ্বকাপ দেখতে চাই’ বলেও মন্তব্য করেছিলেন ম্যারাডোনা৷ তবে কারণ যাই হোক না কেন ম্যারাডোনার এই বিতর্কিত ছবি সোশ্যাল মিডিয়াতে সঙ্গে সঙ্গে ভাইরাল হয়ে যায়৷

শুধু তাই নয়, খেলা শুরুর আগে ও ম্যারাডোনা আর মেসিদের উপর ভরসা করেনা। এখন থেকে সে মেক্সিকোর সমর্থক। এমন দাবি করেছিলেন তিনি। কিন্তু আর্জেন্টিনা জেতার পর তিনি উল্লাসে আত্মহারা হয়ে উঠেন।

শেষ পর্যন্ত নতুন দাবি করলেন তিনি সে মেক্সিকোর সমর্থক বলে দাবি করেছিলেন আসলে সেটি মনের কষ্টে ইঙ্গিত দিয়েছিলেন। কারণ আগের ম্যাচে আর্জেন্টিনার রেজাল্ট ভাল ছিলনা। ম্যাচের আগে মেসিদের সাথেও সাক্ষাৎ করতে পারেনি।

এদিকে, রুদ্ধশ্বাস ম্যাচ শেষে অসুস্থ হয়ে পড়েন ম্যারাডোনা। নিয়ে যাওয়া হল হাসপাতালে। আর্জেন্টিনার একটি সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে, রক্তচাপ বেড়ে যাওয়াতেই অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন দিয়েগো। পড়ে ব্যক্তিগত বিমানে তিনি মস্কো উড়ে যান।

ডিয়েগো ম্যারাডোনার বিশ্বকাপ বললে ভুল হবে না মেক্সিকোর আসরকে। ১৯৮৬ সালের ফুটবল মহাযজ্ঞে আর্জেন্টাইন অধিনায়কের জাদুকরী পারফরম্যান্সে মুগ্ধ হয়েছে গোটা বিশ্ব। বলতে গেলে একাই তিনি জিতিয়েছেন লাতিন আমেরিকার দেশটির দ্বিতীয় শিরোপা। বিশ্বকাপের ১৩তম আসরে নিজে ৫ গোল করার পাশাপাশি ম্যারাডোনা সতীর্থদের দিয়ে করিয়েছিলেন আরও ৫ গোল।

মেক্সিকো সিটির ফাইনালে পশ্চিম জার্মানিকে ২-১ গোলে হারিয়ে দ্বিতীয় শিরোপা ঘরে তোলে আর্জেন্টিনা। ২৫ বছর বয়সী অধিনায়ক ম্যারাডোনার হাত ধরেই এসেছে শিরোপাটি। কোয়ার্টার ফাইনালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ২-১ গোলের জয়ের পথে দুই গোলই করেছিলেন ম্যারাডোনা। যার একটি ‘হ্যান্ড অব গড’, অন্যটি ‘গোল অব দ্য সেঞ্চুরি’। এরপর বেলজিয়ামের বিপক্ষে সেমিফাইনালেও ম্যারাডোনা করেন জোড়া লক্ষ্যভেদ। সেই পারফরম্যান্সের ধারায় ফাইনালে পশ্চিম জার্মানিকে ঘায়েল। ১৯৮৬ সালের বিশ্বকাপটা তাই ম্যারাডোনা ও আর্জেন্টিনার।

এদিকে, দ্বিতীয় রাউন্ডে প্রতিপক্ষ হিসাবে ফ্রান্সকে পেয়েছে আর্জেন্ট