শিরোনাম

  ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠীর জন্য মাতৃভাষায় পুস্তক প্রকাশনার বিধান রেখে খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা   সরকারী চাকরিতে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ও পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জন্য কোটা না হলেও সমস্যা হবে না   রুয়েটে ভর্তি পরীক্ষার আবেদন শুরু   দুই আদিবাসী কিশোরী ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্তদের সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি   দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টি ও ভারী বর্ষণ হতে পারে   আদিবাসী মানবাধিকার সুরক্ষাকর্মীদের সম্মেলন ২০১৮ উদযাপন   ব্লগার বাচ্চু হত্যার সঙ্গে ‘জড়িত’ ২ জঙ্গি নিহত   জুমের বাম্পার ফলনে রাঙ্গামাটির চাষিদের মুখে হাসি   সরকারি চাকরিতে আদিবাসী কোটা বহাল দাবি জানাল আদিবাসীরা   আয়ারল্যান্ড প্রবাসী বাংলাদেশের এক মন্ত্রী দ্বারা হেনস্ত হওয়াতে হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের নিন্দা   শেখ হাসিনার জনপ্রিয়তা উল্লেখযোগ্য বৃদ্ধি পেয়েছে   মিয়ানমারে রয়টার্সের দুই সাংবাদিককে সাত বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত   শহীদ আলফ্রেড সরেন হত্যার ১৮ বছর: হত্যাকারীদের দ্রুত বিচারের দাবি জাতীয় আদিবাসী পরিষদের   ভারতের কাছে ১-০ গোলে হেরেছে বাংলাদেশের মেয়েরা   সরকারী চাকরিতে নিয়োগের ক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধা ছাড়া সব কোটা বাতিল হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী   জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনান মারা গেছেন   ঈদের ছুটি কাটানো হলোনা টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ার নিরীহ ধীরাজ চাকমার   খাগড়াছড়িতে পৃথক ঘটনার জন্য জেএসএস(সংস্কারবাদী) ও নব্য মুখোশ বাহিনীকে দায়ী করেছে : ইউপিডিএফ   নানিয়ারচর থেকে খাগড়াছড়ি   খাগড়াছড়িতে ৬ জনকে গুলি করে হত্যা !
প্রচ্ছদ / খেলাধুলা / ফাইনালে ভারতকে হারাতে চায় আদিবাসী মেয়ে মারিয়া মান্দার দল

ফাইনালে ভারতকে হারাতে চায় আদিবাসী মেয়ে মারিয়া মান্দার দল

প্রকাশিত: ২০১৭-১২-২৩ ১৮:২৮:৩৪

   আপডেট: ২০১৭-১২-২৩ ১৮:৩২:৪৩

স্পোর্টস ডেস্ক

র‍্যাংকিংয়ে অনেক এগিয়ে থাকা ভারতকে উড়িয়ে দিয়ে অনূর্ধ্ব-১৫ সাফ চ্যাম্পিয়নশিপে হ্যাটট্রিক জয় তুলে নিল বাংলাদেশের মেয়েরা। রবিবারের ফাইনালের আগে ৩-০ গোলের এই জয়ে নতুন করে উদ্দীপ্ত করে দিল আনুচিং মারমা, শামসুন্নাহার ও মনিকা চাকমাদের।

কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে রোববার বেলা দুইটায় শিরোপা লড়াইয়ে নামবে দুই দল।সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ মহিলা ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপের প্রথম আসরের শিরোপা জিততে মরিয়া দুই দলই। ম্যাচের আগের দিনের সংবাদ সম্মেলনে ভারত কোচ ময়মল রকির ঘোষণা ‘অল-আউট’ ফুটবল খেলবে তার দল। একই সুর বাংলাদেশ কোচ গোলাম রব্বানী ছোটনের কণ্ঠে।

লিগের শেষ ম্যাচে ভারতকে ৩-০ গোলে হারানোর বাড়তি আত্মবিশ্বাস আছে বাংলাদেশের। তবে দুই দলের কোচই বলেছেন, আগের ম্যাচের ফল মনে রাখছেন না কেউ। নতুন ম্যাচ, নতুন লক্ষ্য নিয়ে নামবেন তারা।

লিগের তিন ম্যাচের সবগুলো বাংলাদেশ জিতেছে ১২ গোল করে; গোল হজম করেনি একটিও। দুই ম্যাচ জেতা ভারত গোল করেছে ১৩টি, খেয়েছে ৩টি। কোনো গোল হজম না করায় রক্ষণভাগের প্রশংসায় পঞ্চমুখ বাংলাদেশ কোচ জানান, শিরোপা হাসি হাসতে আগের তিন ম্যাচের মতো আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলবে তার দল।

আমাদের লক্ষ্য ছিল-আমরা প্রত্যেকটা ম্যাচ জয়ের জন্য নামব। নিজেদের খেলায় থাকব। আমি মনে করি, আমাদের মেয়েরা এ পর্যন্ত সে কাজটি শুরু থেকে করতে পেরেছে। তারা প্রত্যেকটা ম্যাচই শুরু থেকে শেষ মিনিট পর্যন্ত নিজেদের খেলায় থাকতে পেরেছে। নিজেদের খেলাটা খেলতে পেরেছে।

“লিগ ম্যাচের পর গোলকিপার ও ডিফেন্ডারদের নিয়ে আমরা বসেছি। তাদের ধন্যবাদ দিয়েছি। একটা টুর্নামেন্টে আমরা তিনটা ম্যাচ খেলেছি এবং কোনো গোল খাইনি, এটা অবশ্যই আমাদের জন্য ভালো দিক। আমরা সেটা অব্যহত রাখার চেষ্টা করব। আমাদের লক্ষ্য থাকবে ডিফেন্ডার এবং গোলকিপার কোনো গোল খাবে না এবং ফরোয়ার্ডরা যে সুযোগ পাবে, সেটা কাজে লাগাবে।”

চোট কাটিয়ে ফিরেছেন ফরোয়ার্ড তহুরা খাতুন। আরেক ফরোয়ার্ড সাজেদা খাতুন হাঁটুর চোট কাটিয়ে উঠতে না পারায় তাকে ফাইনালে পাচ্ছেন না কোচ। রব্বানী অবশ্য জানালেন বেঞ্চের খেলোয়াড় দিয়ে সাজেদার অভাব পূরণে আত্মবিশ্বাসী তিনি। লিগে ভারতের বিপক্ষে জয়টি বাড়তি আত্মবিশ্বাসী করে তুলেছে দলকে। তবে কোচ জানালেন, ফাইনাল সামনে রেখে মাটিতে পা রাখছেন তার শিষ্যরা।

“তিনটা ম্যাচ তারা ভালো খেলেই জয় লাভ করেছে। তবে ফাইনাল অন্যরকম একটা ম্যাচ। প্রতিপক্ষ দক্ষিণ এশিয়া সবসময়ের ফেভারিট। তাদের হালকাভাবে নেওয়ার কিছু নেই। লিগের ম্যাচ শেষ করে মেয়েদের সঙ্গে বসেছি। সব বিভাগে নিয়ে আলোচনা করেছি। তারা যেন অতিউৎসাহী না হয়, সেটা বলেছি। আপনারাও দেখেছেন, মাঠে তারা প্রাণবন্ত ছিল কিন্তু অতি আত্মবিশ্বাসী ছিল না। আশা করি, ফাইনালেও মেয়েরা সেরাটা দিয়ে দেশবাসীকে খুশি করবে।”

“আমরা সব ধরণের প্রস্তুতি নিয়েছি। মার্জিয়া কর্নার কিক করেছে। গত খেলায় মনিকা সেট-পিসগুলো নিয়েছে। শামসুন্নাহার পেনাল্টি করে। আমাদের সব কিছুই পরিকল্পনামাফিক করা আছে। বেঞ্চেও ভালো খেলোয়াড় আছে আমাদের। ম্যাচের প্রতিটা মুহূর্তে ম্যাচের দৃশ্যপট বদলে যায়। ওদের পরিকল্পনা অনুযায়ী আমাদেরটাও বদল হবে। সবসময়ের জন্য সে পরিকল্পনা করা আছে।”

নিজেদের মাঠে, চেনা দর্শকের সামনে খেলতে নামা বাংলাদেশকে সমীহ করছেন রকি। তবে ভারত কোচেরও চাওয়া লিগ ম্যাচের হার ভুলে ফাইনালে আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলবে তার শিষ্যরা।

মেয়েদের ওপর চাপ বলে কিছু নেই। আগের ম্যাচেও মেয়েদের বলেছিলাম, মাঠে যাও এবং অল-আউট খেলো-ম্যাচটা উপভোগ কর। এ ম্যাচেও মেয়েরা একই মন্ত্র নিয়ে যাবে।ফাইনালের অংশ হতে পেরে খুশি। ফাইনালের জন্য মুখিয়ে আছি এবং ভালো একটা ম্যাচ খেলতে চাই আমরা। আশা করি, দর্শক, গণমাধ্যম সবাই ম্যাচটা উপভোগ করবে। গ্রুপের (লিগের) ফল আমাদেরকে নিরুৎসাহিত করছে না বরং এটা আমাদের ফাইনালে আরও ভালো খেলার জন্য অনুপ্রাণিত করবে।

এদিকে গত সেপ্টেম্বরে না ফেরার দেশে চলে যাওয়া সতীর্থ সাবিনা ইয়াসমিনকে ফাইনালের আগে মনে পড়ছে মারিয়া-নীলাদের। অধিনায়ক মারিয়া মান্ডা জানালেন সাবিনার জন্যই সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ মহিলা ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ জিততে নামবে বাংলাদেশ।

টার্ফে হালকা অনুশীলন মেয়েরা সারল হাসিমুখে। হোটেলে ফেরার আগে নিলুফা ইয়াসমিন নীলা, মনিকা চাকমা, ঋতুপর্না চাকমা প্রত্যয়ী কণ্ঠে জানিয়ে গেলেন ভারতকে হারিয়ে সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ মহিলা ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ জিততে আত্মবিশ্বাসী দল। সংবাদ সম্মেলনে অধিনায়ক মারিয়া মান্ডার কণ্ঠেও একই সুর; ভারতকে হারিয়ে হাসিমুখ ধরে রেখে টুর্নামেন্ট শেষ করতে চান তারা। ট্রফিটা উৎসর্গ করতে চান সাবিনাকে।

“সাবিনা আজ আমাদের সঙ্গে থাকতে পারত। সে থাকলে আমাদের দলটা আরও শক্তিশালী হত। আমরা সাবিনার জন্য খেলব এবং জিতে ট্রফিটা তার জন্যই উৎসর্গ করতে চাই।”

কমলাপুরের বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ সিপাহী মোস্তফা কামাল স্টেডিয়ামে আগামী রোববার বেলা দুইটায় শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচে মুখোমুখি হবে দুই দল। রাউন্ড রবিন লিগের শেষ ম্যাচে ভারতকে ৩-০ ব্যবধানে উড়িয়ে দিয়েছিল স্বাগতিকরা।

আরেকটু পেছনে তাকালে বয়সভিত্তিক পর্যায়ে ভারতের ওপর বাংলাদেশের মেয়েরা ছড়ি ঘোরাচ্ছে বেশ কিছু দিন ধরে। ২০১৬ সালে তাজিকিস্তানে হওয়া এএফসি অনূর্ধ্ব-১৪ আঞ্চলিক চ্যাম্পিয়নশিপে সেরা হওয়ার পথে ভারতকে ৩-১ ও ৪-০ ব্যবধানে হারিয়েছিল বাংলাদেশ।

বয়সভিত্তিক পর্যায়ে দুই ইভেন্ট মিলিয়ে ভারতকে টানা চারবার হারানোর সুযোগ বাংলাদেশের সামনে। মারিয়া-নীলাদের সামনে আরও হাতছানি দিচ্ছে প্রথমবারের মতো হওয়া সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জয়ের সুযোগ।

টানা তিন জয়ে ফাইনালে উঠে আসায় আরও আত্মবিশ্বাসী মারিয়া, “আমরা গত তিনটা ম্যাচ জিতেছি। সামনে ফাইনাল। আমরা ভালো খেলার চেষ্টা করব। আমাদের যতটুকু সামর্থ্য আছে, আমরা সেটা দিয়েই খেলব। ভারত শক্তিশালী, আমরাও শক্তিশালী।”

“গত তিনটা ম্যাচ ভুলে গিয়ে ফাইনালে গিয়ে আমরা কিভাবে চ্যাম্পিয়ন হব, যে মিসগুলো হয়েছে, সেগুলো কিভাবে ঠিক করব, আমরা সেগুলো নিয়েই ভাবছি। ভারত শক্তিশালী, আমরাও সেভাবে প্রস্তুতি নিয়েছি। আমাদের চিন্তা থাকবে আমরা ১৫ মিনিটের মধ্যে গোল দিব।”

গত তিন ম্যাচে প্রতিপক্ষের জালে ১২ গোল করা বাংলাদেশ একটা গোলও হজম করেনি। ডিফেন্ডার নীলা জানালেন রক্ষণ জমাট রেখে লক্ষ্যে পৌঁছানোর।

“গত তিন ম্যাচে যেভাবে খেলছি-ফাইনালে সেভাবে খেলে চ্যাম্পিয়ন হতে চাই। ফাইনালে আমাদের ওপর বাড়তি কোনো চাপ নেই। বরং আমাদের প্রতি সবার, দেশবাসীর সমর্থন আছে। এবার লিগ ম্যাচে একবার ওদের হারিয়েছি, এটা আমাদের আত্মবিশ্বাস আরও বাড়িয়েছে। তবে জানি, ফাইনালে ওরাও লড়াই করবে কিন্তু আমরা নিজেদের খেলাটা খেলে জিততে চাই।”

দুই ম্যাচের সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার পাওয়া মনিকা চাকমার লক্ষ্য লিগ ম্যাচের মতো ফাইনালেও ভারতের জালে গোল উৎসব করা।

“একবার ওদের হারিয়েছি-আবারও হারাতে চাই। নিজেদের মধ্যে আমরা আলোচনা করেছি। আগের ম্যাচে যে ভুল হয়েছে, সেটা নিয়ে কোচ আমাদের কাজ করিয়েছেন। আগের ম্যাচে গোল করেছিলাম, ফাইনালেও গোল করতে চাই।”

মিডফিল্ডার ঋতুপর্ণা চাকমাও প্রত্যয়ী কণ্ঠে জানালেন মাঝমাঠের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে ভারতকে কোণঠাসা করে রাখতে। দর্শকদের মাঠে আসাটাও বাড়তি অনুপ্রেরণার বলেন জানান তিনি।

“মূল লক্ষ্য ছিল ফাইনাল খেলা। এখন আমরা বিজয় নিয়ে মাঠ ছাড়তে চাই। দর্শক বেশি মাঠে আসলে আমাদের জন্য কোনো চাপ হবে না। এটা আমাদের জন্য আরও বেশি অনুপ্রেরণার।”

উল্লেখ্য, অনূর্ধ্ব-১৫ সাফ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপ টুর্নামেন্টে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন কলসিন্দুরের গারো আদিবাসী মেয়ে মারিয়া মান্দা (১৪)। সম্প্রতি ক্যাপ্টেন হিসেবে তাঁর নাম ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন (বাফুফে)।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত