শিরোনাম

  নৌকার জয় সুনিশ্চিত : প্রধানমন্ত্রী   আজ ইউপিডিএফ’র ২০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী   এবার থাইল্যান্ডে বৈধ হলো গাঁজা   ইউপিডিএফ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সকলকে সংগ্রামী শুভেচ্ছা জানালেন প্রসিত বিকাশ খীসা   চীনা শিশুরা আর স্কুল পালাতে পারবে না!   আবার ক্ষমতায় গেলে ভুল সংশোধন করা হবে : কাদের   প্রধানমন্ত্রী থেকে মাতৃভাষার বই পেয়েছে ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠীর শিশুরা   শুভ বড়দিন আজ   রোহিঙ্গাদের জন্য শীতবস্ত্র পাঠাল ভারত   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪০০ অধিক ছাড়িয়েছে   টাকার মালা উপহার পেলেন ফখরুল!   মধ্যরাত থেকে নির্বাচনী মাঠে সেনাবাহিনী   ভোটের দিন ২৪ ঘণ্টা সব যান চলাচল বন্ধ   সেনা মোতায়েনে ভোটারদের মধ্যে আস্থা ফিরে আসবে: সিইসি   পানছড়িতে ইউপিডিএফের নির্বাচনী অফিসে এলোপাতাড়ি ব্রাশ ফায়ারে ২ জন নিহত!   জেএসসি ও পিইসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ   আগামী ৩০ তারিখ আমরা নৌকার বিজয় নিয়ে ঘরে ফিরবো: দীপংকর তালুকদার   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২২২ জন   যারা মানুষ পুড়িয়ে মারে তাদের ভোট দেবেন নাঃ প্রধানমন্ত্রী   ২৮ ডিসেম্বর থেকে ১ জানুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত ৪ দিন মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা
প্রচ্ছদ / রাজনীতি / আওয়ামী লীগকে ভোট না দিলেও আমি জোর করে ভোট ছিনতাই করব না: কাদের

আওয়ামী লীগকে ভোট না দিলেও আমি জোর করে ভোট ছিনতাই করব না: কাদের

প্রকাশিত: ২০১৮-১২-১৭ ১৬:৫৩:৪০

   আপডেট: ২০১৮-১২-১৭ ১৬:৫৪:৫৫

অনলাইন ডেস্ক >>

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন,  আমি ভোট ছিনতাই করব না। জনগণ আমাকে বা আওয়ামী লীগকে ভোট না দিলেও আমি জোর করে ভোট ছিনতাই করব না। আগামী ৬ মাসের মধ্যে আমার নির্বাচনী এলাকার প্রত্যন্ত অঞ্চলে গ্যাস আসবে। কাজের জন্য উন্নয়নের জন্য সবার কাছে নৌকা মার্কায় ভোট চাই।

রবিবার মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, আমি নির্বাচিত হলে কারো ওপর কোনো প্রতিশোধ নেব না। আমাকে ভোট না দিলেও প্রতিশোধ নেব না। জোর করে কারো কাছ থেকে ভোট নেয়া যায় না। মওদুদ আহমদ ২০০১ সালে আমার মা ও আমার স্ত্রীকে ভোট কেন্দ্রে আসতে দেয়নি। অপমান করে ভোট কেন্দ্র থেকে তাড়িয়ে দিয়েছিল।

সেতুমন্ত্রী বলেন, নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র চলছে। কোথায় কোথায় বৈঠক হচ্ছে সব আমার জানা আছে। এবার ভোট বানচালের চেষ্টা করলে জনগণ ও ভোটারদের নিয়ে তা প্রতিরোধ করা হবে।

ওরা নাকি ভোট পাহারা দেবে, আমাদের ভোট রক্ষা করার লোকও আছে। দেশের উন্নয়ন চাইলে নৌকায় ভোট দিন। ওবায়দুল কাদের বলেন, আওয়ামী লীগ যখন ক্ষমতায় ছিল না মুক্তিযোদ্ধারা তখন অবহেলিত ছিল। আপনারা কি সে দুঃসময় অন্ধকারে ফিরে যেতে চান?

এবার যদি বিকল্প কেউ দেশের ক্ষমতায় আসে তাহলে এ দেশ অন্ধকারে চলে যাবে। এদেশ আগুন সন্ত্রাসের কাছে জিম্মি হয়ে যাবে। ওরা যদি আসতে পারে একদিনে সারা দেশে রক্তের বন্যা বইয়ে দেবে। একদিনে সারা দেশে লাশের পাহাড় সৃষ্টি করবে। ওরা ক্ষমতায় আসলে মুক্তিযোদ্ধাদেরকে হত্যা করবে। এদেশকে তালেবান রাষ্ট্রে পরিণত করবে।

তিনি মওদুদ আহমদ ও জাতীয় ঐক্যফন্টের নেতাদের উদ্দেশে বলেন, মওদুদ আহমদ আপনার বেলা শেষ। ২২ বছরে এ এলাকাকে অন্ধকারে ডুবিয়ে রেখেছিলেন। আপনাকে ভোট দিয়ে জনগণ আবার অন্ধকার ফিরিয়ে আনতে চায় না। মওদুদ আহমদকে কেউ বিশ্বাস করে না। তার প্রতিশ্রুতিকে মানুষ ভুয়া মনে করে।

কাদের মওদুদ আহমদের উদ্দেশে আরও বলেন, উন্নয়নের নামে মিথ্যাচারে ভাঙ্গা রেকর্ড বাজাচ্ছে। অস্ত্র দিয়ে ভোট ডাকাতি করবেন সেদিন চলে গেছে। আপনি সেই ব্যক্তি যিনি এলাকায় সকাল ১১টার আগেই ভোট শেষ করেছেন। ২২বছর ক্ষমতায় ছিলেন, বিজয় দিবসে চ্যালেঞ্জ করছি একটি কাজ করেছেন মওদুদ তা দেখাতে পারবেন। আমার কাজ গ্রামে গ্রামে, মাকড়শার জালের মত রাস্তা। অনেকের বাড়ির দরজাও পাকা হয়েছে। এখানে আগে বিদ্যুৎ ছিল না, এখন ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে গেছে। মওদুদ আহমদের আমলে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ১৬ ঘণ্টা লোডশেডিং ছিল, তা আপনাদের সবার মনে আছে। তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, সে অন্ধকারে আপনারা আবার ফিরে যেতে চান?

সেতুমন্ত্রী বলেন, ড. কামালের জন্য দুঃখ হয়। তিনি জামায়াত, দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি ও হাওয়া ভবনের যুবরাজ তারেক রহমানের নির্দেশে ঐক্যফ্রন্ট করেছেন। আ.স.ম রব, সময়ে রব অসময়ের নিরব। উনিও এখন যেমনি নাচাও তেমনি নাচে, পুতুলের কী দোষ? তিনিও এখন অনেক নাচানাচি করছেন। তাদের ধানের শীষ পেটের বিষ, ধানের শীষ সাপের বিষ।

ওবায়দুল কাদের বলেন, শেখ হাসিনার আমলে ৩৪টি টিভি চ্যানেল হয়েছে। পাকিস্তানের বুদ্ধিজীবীরা টিভিতে বাংলাদেশের উন্নয়ন দেখে বলে, আমাদেরকে বাংলাদেশ বানাও। আমাদেরকে একজন হাসিনা দাও। আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, আর্থসামজিক সূচকে পাকিস্তান বাংলাদেশের অনেক পেছনে রয়েছে। অনেক কিছুরই সূচকে শুধু পাকিস্তান নয়, ভারত, নেপাল, শ্রীলঙ্কা আমাদের অনেক পেছনে রয়েছে। যদি উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে চান, তাহলে শেখ হাসিনাকে ক্ষমতায় রাখতে হবে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত