শিরোনাম

  ঢাবি শিক্ষার্থী প্রকট চাকমাসহ ১৩ শিক্ষার্থী পেলেন জগন্নাথ হল স্বর্ণপদক   চট্টগ্রামসহ অনেক জায়গায় ভারী বর্ষণ হতে পারে   ভিয়েতনামে বন্যায় ২০ জনের মৃত্যু , ১ লাখ ১০ হাজার হেক্টর জমির ফসল বিনষ্ট   দৈনিক আমার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানের ওপর হামলা   ছাত্রলীগকে প্রধানমন্ত্রী সতর্ক করেছেন: কাদের   থানকুনি পাতার জাদুকরি উপকারিতা   চট্টগ্রাম কর্ণফুলীতে ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ, গ্রেফতার ৩   পাহাড়ে শান্তি প্রতিষ্ঠা ও উন্নয়নে সেনাবাহিনীর ভূমিকা অপরিসীম : প্রধানমন্ত্রী   চিকিৎসা খাতে নতুন আবিষ্কার রঙিন ও থ্রি-ডি এক্স-রে   গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কেঁদেছেন প্রধানমন্ত্রী   না ফেরার দেশে রাজীব মীর   নানিয়াচর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান প্রীতিময় চাকমাকে অপহরণ   ছেলেদের চেয়ে এবারও এগিয়ে মেয়েরা   চট্টগ্রাম বোর্ডের পাশের হার ৬২.৭৩ %   যারা ফেল করেছে তাদের বকাঝকা করবেন না : প্রধানমন্ত্রী   এইচএসসি তে পাসের ধস নেমেছে এবার   এইচএসসি ও সমমানে পাসের হার এবার ৬৬.৬৪   হাসপাতাল ছাড়ার পর এবার থাই কিশোররা সবাই শ্রামণ হয়ে প্রবজ্যা গ্রহণ করবে   থাইল্যান্ডের গুহায় আটকা পড়া কিশোররা হাসপাতাল ছেড়েছে   ৮ দল নিয়ে বাম গণতান্ত্রিক জোটের আত্মপ্রকাশ
প্রচ্ছদ / রাজনীতি / হরতাল শেষে বামদের নতুন কর্মসূচি

হরতাল শেষে বামদের নতুন কর্মসূচি

প্রকাশিত: ২০১৭-১১-৩০ ১৮:২৪:১২

নিউজ ডেস্ক

বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে আধাবেলা হরতাল কর্মসূচি সফলভাবে পালনের দাবি করেছেন বিপ্লবী ওয়াকার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড সাইফুল হক। হরতাল শেষে তিনি নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন।

বৃহস্পতিবার সকাল ৬টা থেকে শুরু হওয়া আধাবেলা হরতাল শেষ হয়েছে দুপুর ২টায়। হরতাল কর্মসূচি শেষ হবার আগে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে নতুন কর্মসূচিতে ঘোষণা করে  সাইফুল হক বলেন, আগামীকাল শুক্রবার সারাদেশে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করা হবে। আর ঢাকায় কাল বিকেল ৪টায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করা হবে।

এ সময় ২৪ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দিয়ে হরতালের সমন্বয়ের দায়িত্বে থাকা এই বাম নেতা বলেন, আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে সরকার যদি বিদ্যুতের বর্ধিত মূল্য না কমায় তাহলে বিক্ষোভ কর্মসূচি থেকে পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণা দেওয়া হবে।

বিদ্যুতের বর্ধিত দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে সরকারের তরফ থেকে পুলিশের বাধার নিন্দা জানিয়ে সাইফুল হক জানান, কিশোরগঞ্জ, খুলনা, চৌগাছা, গাইবান্ধা, জামালপুর, কুমিল্লা, দিনাজপুর, যশোর, বগুড়া, নারায়ণগঞ্জ ও ঢাকার মোহাম্মদপুরে পুলিশ হরতাল সমর্থকদের ওপর লাঠিচার্জ করেছে।

এছাড়া সকালে সিপিবি অফিসে পুলিশের হামলা ও কর্মীদের গ্রেপ্তারের প্রতিবাদে এই বিক্ষোভ কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে।

বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে বক্তব্য দিতে গিয়ে কমরেড সাইফুল হক বলেন, বাঁচার দাবিতে আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। মুনাফার নামে এলএলজি কোম্পানির পকেটে অর্থ তুলে দিয়ে বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি করা সরকার বন্ধ না করলে তাদের পতন ঘটানো হবে।

বাসদের সাধারণ সম্পাদক কমরেড খালেকুজ্জামান বলেন, দেশের সবাই আমাদের হরতালে সমর্থন দিয়েছেন। ১২ জন বুদ্ধিজীবী বিভিন্ন পত্রিকায় তাদের লেখনির মাধ্যমে আজ প্রতিবাদ জানিয়েছে বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির বিরুদ্ধে।

গণসংহতী আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়ক জুনায়েদ সাকী বলেন, এটা ন্যায্য আন্দোলন। আমাদের শক্তি ন্যায্যতা। সরকার ডাকাতের মতো অর্থ লুট করছে। আটদিন গণশুনানি করে সরকারকে বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছিল বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি অযৌক্তিক। এটা তখন তারা বুঝেছিল। কিন্তু তবুও সরকার বিদ্যুতের দাম বাড়িয়েছে, যা জনগণের সাথে ধোকা দেওয়া ছাড়া আর কিছু না।

এদিকে  বাম দলের হরতালে বিএনপি সমর্থন দিলেও রাজপথে তাদের উপস্থিত ছিল না। এ নিয়ে বাম মোর্চার জাতীয় কমিটির সদস্য আমেনা আক্তার অভিযোগ করে বলেন, বিএনপি রাজনৈতিক ফয়দার জন্য আমাদের হরতালে সমর্থন দিয়েছে। তারাও সরকারের মতো ক্ষমতার পাগল।

হরতাল পালন শেষে সমাবেশে আরো উপস্থিত ছিলেন বাম মোর্চার সমন্বয়কারী মোশরেফা মিশু, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড মোশারফ হোসেন নান্নু, ওয়াকার্স পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য কমরেড লক্ষ্মী চক্রবর্তী প্রমুখ।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত