শিরোনাম

  ঢাবি শিক্ষার্থী প্রকট চাকমাসহ ১৩ শিক্ষার্থী পেলেন জগন্নাথ হল স্বর্ণপদক   চট্টগ্রামসহ অনেক জায়গায় ভারী বর্ষণ হতে পারে   ভিয়েতনামে বন্যায় ২০ জনের মৃত্যু , ১ লাখ ১০ হাজার হেক্টর জমির ফসল বিনষ্ট   দৈনিক আমার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানের ওপর হামলা   ছাত্রলীগকে প্রধানমন্ত্রী সতর্ক করেছেন: কাদের   থানকুনি পাতার জাদুকরি উপকারিতা   চট্টগ্রাম কর্ণফুলীতে ধর্ষণের শিকার গৃহবধূ, গ্রেফতার ৩   পাহাড়ে শান্তি প্রতিষ্ঠা ও উন্নয়নে সেনাবাহিনীর ভূমিকা অপরিসীম : প্রধানমন্ত্রী   চিকিৎসা খাতে নতুন আবিষ্কার রঙিন ও থ্রি-ডি এক্স-রে   গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কেঁদেছেন প্রধানমন্ত্রী   না ফেরার দেশে রাজীব মীর   নানিয়াচর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান প্রীতিময় চাকমাকে অপহরণ   ছেলেদের চেয়ে এবারও এগিয়ে মেয়েরা   চট্টগ্রাম বোর্ডের পাশের হার ৬২.৭৩ %   যারা ফেল করেছে তাদের বকাঝকা করবেন না : প্রধানমন্ত্রী   এইচএসসি তে পাসের ধস নেমেছে এবার   এইচএসসি ও সমমানে পাসের হার এবার ৬৬.৬৪   হাসপাতাল ছাড়ার পর এবার থাই কিশোররা সবাই শ্রামণ হয়ে প্রবজ্যা গ্রহণ করবে   থাইল্যান্ডের গুহায় আটকা পড়া কিশোররা হাসপাতাল ছেড়েছে   ৮ দল নিয়ে বাম গণতান্ত্রিক জোটের আত্মপ্রকাশ
প্রচ্ছদ / রাজনীতি / সমাজতান্ত্রিক বিপ্লব পৃথিবীকে বদলে দিয়েছে : রাশেদ খান মেনন

সমাজতান্ত্রিক বিপ্লব পৃথিবীকে বদলে দিয়েছে : রাশেদ খান মেনন

প্রকাশিত: ২০১৭-১১-১১ ২৩:৫২:৫৬

   আপডেট: ২০১৭-১১-১২ ০০:০১:২৮

নিউজ ডেস্ক

অক্টোবর বিপ্লবের শতবর্ষ উদযাপন অনুষ্ঠানের সমাপনী সমাবেশ ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি কমরেড রাশেদ খান মেনন এমপি বলেছেন, সমাজতান্ত্রিক বিপ্লব পৃথিবীকে বদলে দিয়েছে এবং এই পৃথিবীর সভ্যতাকে বাঁচিয়েছে। এই বিপ্লবের ফলেই পরাধীন দেশ ও জাতিগুলো মুক্তির পথ দেখেছিল।

আমাদের বাংলাদেশের মানুষের মানষ গঠন হয়েছিল অক্টোবর বিপ্লবের কারণে। যার জন্য ১৯৬৯ সালে গ্রামের কৃষক শ্রমজীবি মানুষ শ্লোগান তুলেছিল ‘শ্রমিক কৃষক অস্ত্র ধরো বাংলাদেশ স্বাধীন করো’। আর তার মধ্যদিয়ে এ দেশে সূচিত হয়েছিল মুক্তিযুদ্ধের নতুন পথ চলা।

শনিবার বিকেল ৩টায় কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পাটির উদ্যেগে ‘পুঁজিবাদ-নয় সমাজতন্ত্রই মানবমুক্তির পথ’ স্লোগান নিয়ে অক্টোবর বিপ্লবের শতবর্ষ পালনের সমাপনী সমাবেশ আয়োজনে করা হয়। এ ছাড়াও ঘোষণা পাঠ ও সবশেষে ‌র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়।

শ্রমিকদের বেতন বৃদ্ধি না করায় ক্ষোভ প্রকাশ করে মেনন বলেন, ‘দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি চরমে! নিত্যপণ্যের দাম বাড়লেও শ্রমজীবী মানুষের কথা কেউ ভাবছে না। আমার শ্রমিক মজুরি কমিশন পায় না, ঠিক মতো বেতন পায় না। পে-স্কেলও হয় না। অনেকের পে-স্কেল বাড়লেও আমার কৃষক শ্রমিক ভাইদের কোনো পে-স্কেল হয় না।তাই তাদের জীবন পরিচলানাই কষ্টসাধ্য। দেশ এগিয়ে যাচ্ছে অর্থনৈতিক উন্নয়ন হচ্ছে কিন্তু এই উন্নয়ন কার জন্য?

এ সময় তিনি আরো বলেন, 'সমাজতন্ত্র অলীক কল্পনা নয়, এটা বাস্তব। রুশ বিপ্লবের মধ্য দিয়ে এটি বাস্তবে প্রয়োগ হয়েছিল। আমাদের সংবিধানে আমরা সমাজতন্ত্রকে মূলনীতি হিসেবে গ্রহণ করেছি, সুতারাং তার বাস্তবায়ন সাংবিধানিক দায়িত্ব। এটা দুঃখজনক যে, দেশের অর্থনীতি নয়া উদারনীতি দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে। এর ফলে তার নিয়ন্ত্রণ চলে গেছে লুটেরা পুজিপতিদের হাতে। সৃষ্টি হচ্ছে আয় বৈষম্য। গ্রাম-শহরের মধ্যে বৈষম্যের বিপরীতে সমাজতান্ত্রিক আদর্শনীতি গ্রহণ করা না হলে উন্নয়নের সুফল জনগণ পাবে না। '

অনুষ্ঠানে ঘোষণা পাঠ করেন ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড ফজলে হোসেন বাদশা, এমপি। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন পলিটব্যুরো কমরেড নুর আহমদ বকুল। সভায় পলিটব্যুরো, কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দসহ বিভিন্ন জেলার নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

সমাবেশ শেষে উপস্থিত কয়েক হাজার নেতাকর্মী কাস্তে হাতুড়ি খচিত লাল পতাকা হাতে নিয়ে ‌র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করেন। এ সময় শহীদ মিনার থেকে শুরু করে দোয়েল চত্তর হয়ে হাইকোর্ট মাজার রোড দিয়ে কদম ফোয়ারা হয়ে, পল্টন মোড় ঘুরে প্রেস ক্লাবের সামনে গিয়ে র‌্যালিটি শেষ হয়। এর আগে সমাবেশের শুরুতে উদ্বোধনী সংগীত পরিবেশন করেন গণসংগীত শিল্পী ফকির আলমগীর ও তার দল, গণশিল্পী সংস্থা ও কেন্দ্রীয় খেলাঘরের শিল্পীরা।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত