শিরোনাম

  গত ৫ বছরে জেএসএস এমপি উন্নয়ন করতে পারেনি, যা করেছে আওয়ামীলীগ করেছে : দিপংকর তালুকদার   এখন থেকে সরকারি চাকরিতে যোগ দেওয়ার আগে মাদক পরীক্ষা বাধ্যতামূলক   'বান্দরবানে বিদেশি পর্যটকদের ভ্রমণে কোনো নিষেধাজ্ঞা নেই'   'নির্বাচনী প্রচারণায় রঙিন পোস্টার বা ব্যানার ব্যবহার করা যাবে না'   ৫৮টি নিউজ পোর্টাল খুলে দিয়েছে বিটিআরসি   বুধবার থেকে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করবেন প্রধানমন্ত্রী   বিএনপি ক্ষমতায় এলে শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন করার চেষ্ঠা করবো: মনি স্বপন দেওয়ান   তিন পাহাড়ে নৌকা নিয়ে মাঠে দৌড়াবেন যারা   আগামীকাল খালেদা জিয়ার অগ্নিপরীক্ষা   হিরোকে জিরো বানানো এত সহজ নয়, সফল হিরো আলমের চ্যালেঞ্জ   খাগড়াছড়িতে বনের রাজা পেয়েছেন ইউপিডিএফের প্রার্থী নতুন কুমার চাকমা   বিশ্বের প্রথম উঁচু ভাস্কর্য 'চীনের স্প্রিং টেম্পল বুদ্ধ'   আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস || আদিবাসীদের মানবাধিকার প্রতিষ্ঠায় এগিয়ে আসার অাহ্বান   বনের রাজা সিংহকে নিয়ে রাঙ্গামাটিতে দৌড়াবেন ঊষাতন তালুকদার   আজ বিশ্ব মানবাধিকার দিবস   নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থীদের জন্য যেসব মার্কা দেওয়া হচ্ছে...   নির্বাচনে প্রচার-প্রচারণায় সকল প্রার্থীদের যা যা মেনে চলতে হবে   নির্বাচনে গাড়ি প্রতীক পেয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী ইমরান এইচ সরকার   দেশে ৫৮টি নিউজ পোর্টাল বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে বিটিআরসি   পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তি ফিরিয়ে আনার জন্য শেখ হাসিনাকে শান্তিতে নোবেল পুরস্কার দেওয়া উচিত
প্রচ্ছদ / জাতীয় / আগামীতে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের জন্য আলাদা মন্ত্রণালয় গঠন করবেন প্রধানমন্ত্রী

আগামীতে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের জন্য আলাদা মন্ত্রণালয় গঠন করবেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত: ২০১৮-১২-০৪ ১৫:০৫:০৭

   আপডেট: ২০১৮-১২-০৪ ১৫:০৮:০৬

অনলাইন ডেস্ক >>

সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের জন্য আলাদা মন্ত্রণালয় গঠনের বিষয়টি আলোচনায় এলে প্রধানমন্ত্রী জানতে চান, ভারতে এ ধরনের কোনো মন্ত্রণালয় আছে কিনা। থাকলে তিনিও বাংলাদেশে আগামীবার সংখ্যালঘু মন্ত্রণালয় করবেন।

এ সময় খালিদ মাহমুদ চৌধ্রুী প্রধানমন্ত্রীকে জানান, ভারতে পৃথক সংখ্যালঘুবিষয়ক মন্ত্রণালয় রয়েছে। পরে প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশেও নতুন এই মন্ত্রণালয় সৃষ্টির পক্ষে নিজের ইতিবাচক মনোভাবের কথা জানান। ভারতে ২০০৬ সালে সংখ্যালঘুদের জন্য পৃথক মন্ত্রণালয় করা হয়, যার মন্ত্রী একজন মুসলিম রাজনীতিবিদ।

গেল শনিবার রাতে গণভবনে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতাদের সঙ্গে আলাপকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব কথা জানান।

সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়স বাড়িয়ে ৩৫ বছর করার বিষয়েও বৈঠকে ইতিবাচক মনোভাব দেখিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিষয়টি নিয়ে আমাদের একটু ভাবতে হবে। কারণ এখন একজন শিক্ষার্থী অনার্স পাস করে ২৪ বছর বয়সে। বয়স বাড়িয়ে ৩৫ বছর করা হলে চাকরিতে যোগ দেওয়ার পর সিনিয়রিটি-জুনিয়রিটির সমস্যা দেখা দিতে পারে। সে ক্ষেত্রে একজন ব্যক্তি একই চাকরির পরীক্ষা যাতে সর্বোচ্চ তিনবার দিতে পারে- তেমন একটা ব্যবস্থা করা যেতে পারে।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে জয়ী হয়ে আবার ক্ষমতায় যেতে পারলে চাকরিতে প্রবেশের বয়স বাড়ানোর বিষয়টি ইতিবাচকভাবে বিবেচনা করা হবে বলে আওয়ামী লীগ নেতাদের জানিয়েছেন তিনি। একই সঙ্গে ফের ক্ষমতায় গেলে দেশের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের জন্য পৃথক মন্ত্রণালয় গঠনেরও আশ্বাস দেন শেখ হাসিনা।

সূত্রঃ আমাদের সময়।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত