শিরোনাম

  ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠীর জন্য মাতৃভাষায় পুস্তক প্রকাশনার বিধান রেখে খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা   সরকারী চাকরিতে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ও পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জন্য কোটা না হলেও সমস্যা হবে না   রুয়েটে ভর্তি পরীক্ষার আবেদন শুরু   দুই আদিবাসী কিশোরী ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্তদের সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি   দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টি ও ভারী বর্ষণ হতে পারে   আদিবাসী মানবাধিকার সুরক্ষাকর্মীদের সম্মেলন ২০১৮ উদযাপন   ব্লগার বাচ্চু হত্যার সঙ্গে ‘জড়িত’ ২ জঙ্গি নিহত   জুমের বাম্পার ফলনে রাঙ্গামাটির চাষিদের মুখে হাসি   সরকারি চাকরিতে আদিবাসী কোটা বহাল দাবি জানাল আদিবাসীরা   আয়ারল্যান্ড প্রবাসী বাংলাদেশের এক মন্ত্রী দ্বারা হেনস্ত হওয়াতে হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের নিন্দা   শেখ হাসিনার জনপ্রিয়তা উল্লেখযোগ্য বৃদ্ধি পেয়েছে   মিয়ানমারে রয়টার্সের দুই সাংবাদিককে সাত বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত   শহীদ আলফ্রেড সরেন হত্যার ১৮ বছর: হত্যাকারীদের দ্রুত বিচারের দাবি জাতীয় আদিবাসী পরিষদের   ভারতের কাছে ১-০ গোলে হেরেছে বাংলাদেশের মেয়েরা   সরকারী চাকরিতে নিয়োগের ক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধা ছাড়া সব কোটা বাতিল হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী   জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনান মারা গেছেন   ঈদের ছুটি কাটানো হলোনা টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ার নিরীহ ধীরাজ চাকমার   খাগড়াছড়িতে পৃথক ঘটনার জন্য জেএসএস(সংস্কারবাদী) ও নব্য মুখোশ বাহিনীকে দায়ী করেছে : ইউপিডিএফ   নানিয়ারচর থেকে খাগড়াছড়ি   খাগড়াছড়িতে ৬ জনকে গুলি করে হত্যা !
প্রচ্ছদ / জাতীয় / দুই আদিবাসী কিশোরী ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্তদের সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি

দুই আদিবাসী কিশোরী ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্তদের সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি

প্রকাশিত: ২০১৮-০৯-১৫ ১০:২৮:৫৬

   আপডেট: ২০১৮-০৯-১৫ ১০:৩২:০৫

ফাল্গুনী ত্রিপুরা , ঢাকা

গত ১১সেপ্টেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার, সকাল ১১টায় মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন, আইন ও সালিশ কেন্দ্র, ব্লাস্ট, বাংলাদেশ আদিবাসী ফোরাম, বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘ, জনউদ্যোগ, কাপেং ফাউন্ডেশন, বাংলাদেশ আদিবাসী নারী নেটওয়ার্কের উদ্যোগে ঢাকার সেগুন বাগিচার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে বান্দরবানের লামায় দুই কিশোরী ধর্ষণের ঘটনায় নারী ও মানবাধিকার সংগঠনসমূহের প্রতিনিধিদের সরেজমিনে পরিদর্শনোত্তর সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের  পরিচালক রীনা রায়। উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘের সহ-সভাপতি ও নাট্যজন আফরোজা বানু, জনউদ্যোগের আহ্বায়ক ড. মুশতাক কামাল ও সদস্য সচিব তারিক হোসেন মিঠুল ও কাপেং ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক পল্লব চাকমা, আইন ও সালিশ কোন্দ্রের হাসিবুর রহমান সূর্য, ব্লাস্টের অটুট আরেং ও বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘের শরীফ চৌহান প্রমুখ। সঞ্চালনা করেন বাংলাদেশ আদিবাসী নেটওয়ার্কের সদস্য সচিব  চঞ্চনা চাকমা। মূল বক্তব্যে বক্তারা দুই আদিবাসী কিশোরী ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্তদের সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে ন্যায়বিচার দাবি জানান।

উল্লেখ্য যে, বিগত ২২ আগস্ট ২০১৮, অনুমান রাত ১০:১৫ ঘটিকার সময় বান্দরবান জেলার লামা থানাধীন ০৩নং ফাঁসিয়াখালী ইউনিয়নের ০১নং ওয়ার্ডের রাংগতি পাড়া সাকিনস্থ বলিচন্দ্র ত্রিপুরার সেগুন বাগানের ভিতর দুই আদিবাসী ত্রিপুরা কিশোরীকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া যায়। অভিযোগের ভিত্তিতে পরের দিন ২৩ আগস্ট ২০১৮ স্থানীয় পুলিশ প্রশাসনসহ স্থানীয় জনগণ ঘটনাস্থলে যান। ঐদিন রাত ১১:৩৫ ঘটিকায় ভিকটিমদের মধ্যে একজন বাদী হয়ে লামা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন-২০০০ (সংশোধনী/২০০৩) এর ৯(১)/৩০ ধারায় একটি মামলা দায়ের করেন। লামা থানার মামলা নং-০৫/২০১৮। ঘটনাটি সরেজমিন পরিদর্শনের জন্য গত ৪সেপ্টেম্বর ২০১৮ ঢাকা থেকে একটি নাগরিক প্রতিনিধি দল বান্দরবানের লামায় যান। পরিদর্শনের সময় প্রতিনিধিবৃন্দ উপজেলা নির্বাহী অফিসার, লামা থানার ওসি, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, কার্বারী, ত্রিপুরা কল্যাণ সংসদের সাবেক সভাপতি, ত্রিপুরা স্টুডেন্ট ফোরামের দুইজন সদস্য, স্থানীয় সংবাদ প্রতিনিধির সাথে সাক্ষাত করেন।

নাট্যজন আফরোজা বানু বলেন যে বান্দরবানের লামার দুই কিশোরী ধর্ষণের ক্ষেত্রে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। আমরা আশা করব যাদের  বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে, সময়ক্ষেপন না করে তাদেরকে বিচারের আওতায় আনা হোক। তিনি আরো বলেন, এই ঘটনার একটা সুষ্ঠু তদন্ত চাই। যারা ভিকটিম তাদের ক্ষতিপূরণসহ নিরাপত্তার ব্যবস্থা যাতে প্রদান করা হয়।

পল্লব চাকমা বলেন যে, এই ধরনের ঘটনা আগে শুধু আমরা মাঠে, রাস্তায় প্রতিবাদ করতাম। কিন্তু এবার কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠন আমাদের সাথে একত্রিত হয়ে সরেজমিন পরিদর্শনে গিয়ে ওখানকার বাস্তবচিত্র তুলে এনে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে তথ্যগুলো জাতীয় পর্যায়ে উপস্থাপন করছেন। জোর দিয়ে জানাই বিচারহীনতার সংস্কৃতির আবর্তে পড়ে গিয়ে কোন সুষ্ঠু বিচার পাইনা। তাই আমরা আশা করি এই চিত্র উপস্থাপনের পরে কর্তৃপক্ষ যাতে উদ্যোগ নেয় এবং অপরাধীদের যাতে সুষ্ঠু বিচার করা হয়। যারা ভিকটিম তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা এবং তার পাশাপাশি সকল আদিবাসী নারীর নিরাপত্তা নিশ্চিত যেন করা হয়।

ডা.মুশতাক হোসেন তিনটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয় নিয়ে বলেন যে, বাংলাদেশের নারী ও কন্যা শিশুদের যৌন সহিংসতা আশংকাজনকভাবে বেড়ে চলেছে। তাই সরকার যাতে এর দ্রুত বিচার এবং অপরাধীদের গ্রেফতার পদক্ষেপ গ্রহন করে সেই দাবী জানান। তিনি বলেন, আদিবাসী নারীরা এমনিতে বিভিন্ন মৌলিক অধিকার থেকে বঞ্চিত। সমান অধিকার ভোগ করতে পারছে না। তার উপর আদিবাসী নারীদের ধর্ষণ করা হচ্ছে। ভিকটিমদের সকল প্রকার ডাক্তারী পরীক্ষা করা হয়েছে কিন্তু দোষীদের নাম সনাক্ত করে তাদেরকে গ্রেফতার করা হচ্ছে না। এছাড়া তিনি উল্লেখ করেন, যারা অভিযুক্ত তারা আইন শৃঙ্গলা রক্ষাকারী বাহিনী। আমরা জানি যে আইন শৃঙ্গলা রক্ষাকারী বাহিনীদের মধ্যে আইন শৃঙ্গলা ভঙ্গকারীদের দ্রুত শাস্তি প্রদান করা হয়। কিন্তু বাংলাদেশে আইন শৃঙ্গলা রক্ষাকারী বাহিনীকর্তৃক পরিকল্পিত ভাবে অনেক আদিবাসী মেয়ে ধর্ষণের স্বীকার হচ্ছে। কাজেই এই তিনটি বিষয়কে যদি আমরা সামনে আনি আমাদের অবিলম্বে বিচারের দাবীতে সোচ্চার হতে হবে। কেননা আমার মনে হয়, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় পার্বত্য চট্টগ্রাম মন্ত্রণালয় সব জায়গায় স্বারক লিপি দেওয়া দরকার। তাদের সাথে কথা বলে দরকার এবং এই বিষয়টি আরো নজরে আনা দরকার। এই রকম ঘটনার পুনরাবৃত্তি যদি বন্ধ করতে হয় তাহলে ঘটনার আসামীকে চিহ্নিত করতে হবে।

 

সর্বশেষে সংবাদ সম্মেলনে নিম্নলিখিত দাবিনামা উত্থাপন করা হয়-

·      ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত ও ন্যায়বিচার নিশ্চিত করা।

·      ভিকটিমদের সুবিচার নিশ্চিত করা।

·      অভিযুক্তদের অচিরেই গ্রেফতার করা এবং বিচারের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান করা।

·      ভিকটিম ও পরিবারের জন্য উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ, চিকিৎসা ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করা।

আপনার মন্তব্য

এ বিভাগের আরো খবর



আলোচিত