শিরোনাম

  নৌকার জয় সুনিশ্চিত : প্রধানমন্ত্রী   আজ ইউপিডিএফ’র ২০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী   এবার থাইল্যান্ডে বৈধ হলো গাঁজা   ইউপিডিএফ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সকলকে সংগ্রামী শুভেচ্ছা জানালেন প্রসিত বিকাশ খীসা   চীনা শিশুরা আর স্কুল পালাতে পারবে না!   আবার ক্ষমতায় গেলে ভুল সংশোধন করা হবে : কাদের   প্রধানমন্ত্রী থেকে মাতৃভাষার বই পেয়েছে ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠীর শিশুরা   শুভ বড়দিন আজ   রোহিঙ্গাদের জন্য শীতবস্ত্র পাঠাল ভারত   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪০০ অধিক ছাড়িয়েছে   টাকার মালা উপহার পেলেন ফখরুল!   মধ্যরাত থেকে নির্বাচনী মাঠে সেনাবাহিনী   ভোটের দিন ২৪ ঘণ্টা সব যান চলাচল বন্ধ   সেনা মোতায়েনে ভোটারদের মধ্যে আস্থা ফিরে আসবে: সিইসি   পানছড়িতে ইউপিডিএফের নির্বাচনী অফিসে এলোপাতাড়ি ব্রাশ ফায়ারে ২ জন নিহত!   জেএসসি ও পিইসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ   আগামী ৩০ তারিখ আমরা নৌকার বিজয় নিয়ে ঘরে ফিরবো: দীপংকর তালুকদার   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২২২ জন   যারা মানুষ পুড়িয়ে মারে তাদের ভোট দেবেন নাঃ প্রধানমন্ত্রী   ২৮ ডিসেম্বর থেকে ১ জানুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত ৪ দিন মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা
প্রচ্ছদ / জাতীয় / অ্যাডভোকেট শক্তিমান চাকমা বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ছিলেন : কাদের

অ্যাডভোকেট শক্তিমান চাকমা বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ছিলেন : কাদের

প্রকাশিত: ২০১৮-০৫-০৩ ২১:২৯:১২

   আপডেট: ২০১৮-০৫-০৩ ২১:৩৭:২৩

ঢাকা

পার্বত্য চট্টগ্রামের শান্তি প্রতিষ্ঠার প্রক্রিয়াকে বানচাল করতেই রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলা চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট শক্তিমান চাকমাকে হত্যা করা হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সেতুমন্ত্রী বলেন, অ্যাডভোকেট শক্তিমান চাকমা বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের মেধাবী ছাত্র ছিলেন। তিনি দীর্ঘদিন চট্টগ্রামের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন এবং পাহাড়ি-বাঙালি সম্প্রীতি রক্ষায় ছিলেন একজন নিবেদিত কর্মী।

বৃহস্পতিবার (৩ মে) দুপুরে দলের দফতর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপের গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে কাদের এ মন্তব্য করেন। তার ভাষ্যে, পাহাড়ে শান্তি ও স্থিতিশীল পরিবেশ বিনষ্টের জন্যই এ ধরনের ন্যাক্কারজনক হত্যাকাণ্ড সংঘঠিত হচ্ছে।

বেলা ১১টার দিকে নিজের বাসভবন থেকে বেরিয়ে উপজেলা পরিষদ কার্যালয়ে যাওয়ার পথে শক্তিমানকে লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি করা হয়। স্থানীয়রা তখন তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। এ ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হন তার সঙ্গে থাকা রূপম চাকমা নামে আরেকজন।

বিবৃতিতে ওবায়দুল কাদের বলেন, এ বর্বর হত্যাকাণ্ড পার্বত্য চট্টগ্রামের শান্তি প্রতিষ্ঠার প্রক্রিয়াকে বানচাল করার ষড়যন্ত্র ছাড়া আর কিছুই নয়। পার্বত্যাঞ্চলের উন্নয়ন শান্তি-সম্প্রীতি ও মানবাধিকার প্রতিষ্ঠায় এই ষড়যন্ত্রকারী সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত খুনিদের অবিলম্বে গ্রেফতারের দাবিও জানান আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক।

এর আগে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘কালপ্রিটদের খুঁজে বের করতেই হবে।’

বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে সমসাময়িক ইস্যু নিয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে এসেই আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের শক্তিমান চাকমার নিহত হওয়ার খবর জানান। শক্তিমান একই সঙ্গে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির (এমএনলারমা) সহ-সভাপতি।

প্রেস ব্রিফিং স্থল থেকেই রাঙামাটির এসপিকে ফোন দেন মন্ত্রী। ফোন দিয়ে তিনি বলেন, ‘শাক্তিমানকে কি মেরে ফেলেছে? হি ইজ নো মোর? যারা খুন করেছে তাদের কি এখন তোমরা খুঁজে বের করার চেষ্টা করছ না? কেউ কি অ্যারেস্ট হয়েছে?’ ওপাশ থেকে এসপি কী বলেন তা শোনা যায়নি।

এরপরই ওবায়দুল কাদের এসপিকে বলেন, ‘না, না, বি সিরিয়াস অ্যাবাউট ইট। কালপ্রিটদের খুঁজে বের করতেই হবে।’

সড়ক পরিবহনমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, ‘লোকটা (শক্তিমান চাকমা) উপজেলা চেয়ারম্যান, আমার নিজের জেলায়ও না। কিন্তু ওর মৃত্যুতে আমার ভেতরে খুব তোলপাড় হচ্ছে। স্বাভাবিক মৃত্যু হলে কথা ছিল। ওখানে তো ইন্টারনাল প্রবলেম চলছে।’

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বাসা থেকে অফিসের যাওয়ার পথে রাঙামটি উপজেলা পরিষদের সামনে আসার পর গাড়ি থেকে নামতেই তাকে গুলি করা হয়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়, গুলিবিদ্ধ হন তার এক সহকর্মী।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত