শিরোনাম

  গত ৫ বছরে জেএসএস এমপি উন্নয়ন করতে পারেনি, যা করেছে আওয়ামীলীগ করেছে : দিপংকর তালুকদার   এখন থেকে সরকারি চাকরিতে যোগ দেওয়ার আগে মাদক পরীক্ষা বাধ্যতামূলক   'বান্দরবানে বিদেশি পর্যটকদের ভ্রমণে কোনো নিষেধাজ্ঞা নেই'   'নির্বাচনী প্রচারণায় রঙিন পোস্টার বা ব্যানার ব্যবহার করা যাবে না'   ৫৮টি নিউজ পোর্টাল খুলে দিয়েছে বিটিআরসি   বুধবার থেকে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করবেন প্রধানমন্ত্রী   বিএনপি ক্ষমতায় এলে শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন করার চেষ্ঠা করবো: মনি স্বপন দেওয়ান   তিন পাহাড়ে নৌকা নিয়ে মাঠে দৌড়াবেন যারা   আগামীকাল খালেদা জিয়ার অগ্নিপরীক্ষা   হিরোকে জিরো বানানো এত সহজ নয়, সফল হিরো আলমের চ্যালেঞ্জ   খাগড়াছড়িতে বনের রাজা পেয়েছেন ইউপিডিএফের প্রার্থী নতুন কুমার চাকমা   বিশ্বের প্রথম উঁচু ভাস্কর্য 'চীনের স্প্রিং টেম্পল বুদ্ধ'   আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস || আদিবাসীদের মানবাধিকার প্রতিষ্ঠায় এগিয়ে আসার অাহ্বান   বনের রাজা সিংহকে নিয়ে রাঙ্গামাটিতে দৌড়াবেন ঊষাতন তালুকদার   আজ বিশ্ব মানবাধিকার দিবস   নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থীদের জন্য যেসব মার্কা দেওয়া হচ্ছে...   নির্বাচনে প্রচার-প্রচারণায় সকল প্রার্থীদের যা যা মেনে চলতে হবে   নির্বাচনে গাড়ি প্রতীক পেয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী ইমরান এইচ সরকার   দেশে ৫৮টি নিউজ পোর্টাল বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে বিটিআরসি   পার্বত্য চট্টগ্রামে শান্তি ফিরিয়ে আনার জন্য শেখ হাসিনাকে শান্তিতে নোবেল পুরস্কার দেওয়া উচিত
প্রচ্ছদ / জাতীয় / খ্রিস্টান ও বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের কল্যাণে ট্রাস্ট গঠনের জন্য জাতীয় সংসদে বিল পাস

খ্রিস্টান ও বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের কল্যাণে ট্রাস্ট গঠনের জন্য জাতীয় সংসদে বিল পাস

প্রকাশিত: ২০১৮-০৪-১১ ১১:১৭:০৭

   আপডেট: ২০১৮-০৫-০১ ১৪:৪৬:৪৩

নিউজ ডেস্ক

খ্রিস্টান ও বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের কল্যাণে ট্রাস্ট গঠনের জন্য জাতীয় সংসদে আলাদা দু’টি বিল পাস হয়েছে। ধর্মমন্ত্রীর পক্ষে রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক মঙ্গলবার (১০ এপ্রিল) ‘খ্রিস্টান ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট বিল-২০১৮’ ও ‘বৌদ্ধধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট বিল-২০১৮’ পাসের প্রস্তাব উত্থাপন করলে সেগুলো কণ্ঠভোটে পাস হয়।

এর আগে, বিলের ওপর দেওয়া জনমত যাচাই-বাছাই কমিটিতে পাঠানো ও সংশোধনী প্রস্তাবগুলোর নিষ্পত্তি করা হয়।

গত ১৪ ফ্রেব্রুয়ারি বিল দু’টি সংসদে উত্থাপন করেন ধর্মমন্ত্রী মতিউর রহমান। পরে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে সংসদে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য বিল দু’টি ধর্ম মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয়।

আদালতের নির্দেশে সামরিক শাসন আমলে করা ‘বুদ্ধিস্ট রিলিজিয়াস ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট অর্ডিন্যান্স’ ও ‘ক্রিশ্চিয়ান রিলিজিয়াস ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট অর্ডিন্যান্স’ বাতিল করে নতুন আইন করার জন্য এই বিল দু’টি আনা হয়।

বিল দু’টির প্রতিটিতে একজন চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে ১০ সদস্যের বোর্ড গঠনের কথা বলা হয়েছে। সেখানে ধর্মমন্ত্রীকে বোর্ডের চেয়ারম্যান আর মন্ত্রণালয়ের সচিবকে সদস্য সচিবের দায়িত্ব পালনের প্রস্তাব করা হয়েছে

আপনার মন্তব্য

আলোচিত