শিরোনাম

  পাহাড় কাটা ও পাহাড়ের ঢালে অবৈধ বসবাসকারীদের কঠোরভাবে প্রতিরোধের আহ্বান দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রীর   আগামীকাল খাগড়াছড়িতে সকাল-সন্ধ্যা হরতাল ডেকেছে পার্বত্য বাঙালি ছাত্র পরিষদ   এইচএসসি : পেছাল ভূগোল দ্বিতীয় পত্রের পরীক্ষা   পানছড়িতে ইউপিডিএফের নেতাকে গুলি করে হত্যা   আদিবাসী লৈঙ্গিক পরিচয়ের কারণে বৈষম্য ঘটেছে : মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়   পাহাড়ে বৃষ্টি হলে আশ্রয়কেন্দ্রে যাওয়ার আহ্বান   শিশু ধর্ষণে মৃত্যুদণ্ডের বিধান হচ্ছে ভারতে   সংখ্যালঘুদের নিয়ে বিভ্রান্তিকর খবর বন্ধ হওয়া উচিত : সজীব ওয়াজেদ জয়   কুয়েত বৌদ্ধ সমিতির উদ্যোগে বর্ষবিদায় ও বর্ষবরণ অনুষ্টান সম্পন্ন   পার্বত্য চট্টগ্রামের উপজাতিদের সতর্ক করলেন হেফাজত ইসলাম   পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় কর্তৃক আদিবাসী নারীর ছবি চুরি করার অভিযোগ   থাইল্যান্ডে আজ থেকে শুরু হয়েছে জলকেলি উৎসব 'সংক্রান '   বৈসুক, সাংগ্রাই ও বিজু সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির প্রতীক : তথ্যমন্ত্রী   রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদে চাকরি বিজ্ঞপ্তি   আদিবাসীদের জানালেন, পহেলা বৈশাখে শুঁটকি ভর্তা খাবেন প্রধানমন্ত্রী   অনির্বান চাকমাসহ ২৫ পুলিশের উচ্চপর্যায়ে রদবদল   আজ আদিবাসীদের ঐতিহ্যবাহী ফুল বিজু   রাঙ্গামাটি নানিয়াচরে ইউপিডিএফের কর্মীকে গুলি করে হত্যা   কোটা বাতিল, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী এবং প্রতিবন্ধীদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থার মাধ্যমে সরকারি চাকরি   রোহিঙ্গা নারীদের হামলায় রোহিঙ্গা নারী আহত
প্রচ্ছদ / জাতীয় / খ্রিস্টান ও বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের কল্যাণে ট্রাস্ট গঠনের জন্য জাতীয় সংসদে আলাদা দু’টি বিল পাস

খ্রিস্টান ও বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের কল্যাণে ট্রাস্ট গঠনের জন্য জাতীয় সংসদে আলাদা দু’টি বিল পাস

প্রকাশিত: ২০১৮-০৪-১১ ১১:১৭:০৭

নিউজ ডেস্ক

খ্রিস্টান ও বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের কল্যাণে ট্রাস্ট গঠনের জন্য জাতীয় সংসদে আলাদা দু’টি বিল পাস হয়েছে। ধর্মমন্ত্রীর পক্ষে রেলমন্ত্রী মুজিবুল হক মঙ্গলবার (১০ এপ্রিল) ‘খ্রিস্টান ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট বিল-২০১৮’ ও ‘বৌদ্ধধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট বিল-২০১৮’ পাসের প্রস্তাব উত্থাপন করলে সেগুলো কণ্ঠভোটে পাস হয়।

এর আগে, বিলের ওপর দেওয়া জনমত যাচাই-বাছাই কমিটিতে পাঠানো ও সংশোধনী প্রস্তাবগুলোর নিষ্পত্তি করা হয়।

গত ১৪ ফ্রেব্রুয়ারি বিল দু’টি সংসদে উত্থাপন করেন ধর্মমন্ত্রী মতিউর রহমান। পরে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে সংসদে প্রতিবেদন দেওয়ার জন্য বিল দু’টি ধর্ম মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে পাঠানো হয়।

আদালতের নির্দেশে সামরিক শাসন আমলে করা ‘বুদ্ধিস্ট রিলিজিয়াস ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট অর্ডিন্যান্স’ ও ‘ক্রিশ্চিয়ান রিলিজিয়াস ওয়েলফেয়ার ট্রাস্ট অর্ডিন্যান্স’ বাতিল করে নতুন আইন করার জন্য এই বিল দু’টি আনা হয়।

বিল দু’টির প্রতিটিতে একজন চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে ১০ সদস্যের বোর্ড গঠনের কথা বলা হয়েছে। সেখানে ধর্মমন্ত্রীকে বোর্ডের চেয়ারম্যান আর মন্ত্রণালয়ের সচিবকে সদস্য সচিবের দায়িত্ব পালনের প্রস্তাব করা হয়েছে

আপনার মন্তব্য

এ বিভাগের আরো খবর



আলোচিত