শিরোনাম

  নৌকার জয় সুনিশ্চিত : প্রধানমন্ত্রী   আজ ইউপিডিএফ’র ২০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী   এবার থাইল্যান্ডে বৈধ হলো গাঁজা   ইউপিডিএফ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সকলকে সংগ্রামী শুভেচ্ছা জানালেন প্রসিত বিকাশ খীসা   চীনা শিশুরা আর স্কুল পালাতে পারবে না!   আবার ক্ষমতায় গেলে ভুল সংশোধন করা হবে : কাদের   প্রধানমন্ত্রী থেকে মাতৃভাষার বই পেয়েছে ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠীর শিশুরা   শুভ বড়দিন আজ   রোহিঙ্গাদের জন্য শীতবস্ত্র পাঠাল ভারত   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪০০ অধিক ছাড়িয়েছে   টাকার মালা উপহার পেলেন ফখরুল!   মধ্যরাত থেকে নির্বাচনী মাঠে সেনাবাহিনী   ভোটের দিন ২৪ ঘণ্টা সব যান চলাচল বন্ধ   সেনা মোতায়েনে ভোটারদের মধ্যে আস্থা ফিরে আসবে: সিইসি   পানছড়িতে ইউপিডিএফের নির্বাচনী অফিসে এলোপাতাড়ি ব্রাশ ফায়ারে ২ জন নিহত!   জেএসসি ও পিইসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ   আগামী ৩০ তারিখ আমরা নৌকার বিজয় নিয়ে ঘরে ফিরবো: দীপংকর তালুকদার   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২২২ জন   যারা মানুষ পুড়িয়ে মারে তাদের ভোট দেবেন নাঃ প্রধানমন্ত্রী   ২৮ ডিসেম্বর থেকে ১ জানুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত ৪ দিন মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা
প্রচ্ছদ / জাতীয় / শান্তি চুক্তি পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়নে সন্তু লারমাকে আশ্বাস দিলেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত

শান্তি চুক্তি পূর্ণাঙ্গ বাস্তবায়নে সন্তু লারমাকে আশ্বাস দিলেন মার্কিন রাষ্ট্রদূত

প্রকাশিত: ২০১৮-০৩-১২ ২২:০১:১৯

   আপডেট: ২০১৮-০৩-১২ ২২:২১:৪৮

পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ চেয়ারম্যান জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় ওরফে সন্তু লারমার সাথে মার্কিন রাষ্টদূতের সাক্ষাৎ। ছবিঃ সংগৃহীত।

রাঙ্গামাটি

মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শিয়া স্টিফেন ব্লুম বার্নিকাট রাঙামাটি ও বান্দরবান সফরের প্রথম দিনে সোমবার পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ চেয়ারম্যান জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় ওরফে সন্তু লারমা ও চাকমা রাজপরিবারের সাথে সাক্ষাৎ করেছেন।

সকালে সকালে রাঙ্গামাটি রাজবাড়িতে পৌঁছালে তাকে ফুলের শুভেচ্ছা জানান রাঙ্গামাটি রাজবাড়ি কর্তৃপক্ষ। সেখানে চাকমা চীফ সার্কেল ব্যারিষ্টার দেবাশীষ রায় ও রানী য়েন য়েন এর সাথে আলাপ আলোচনা হয়।

আলাপ আলোচনার মধ্যে সম্প্রতি ঘটে যাওয়া পরিস্থিতি সম্পর্কে তুলে ধরা হয়।

এদিকে, দুপুরের দিকে বার্নিকাট পার্বত্য চট্টগ্রামের আঞ্চলিক পরিষদের চেয়ারম্যান সন্তু লারমার সাথে সাক্ষাৎ করেন।

বৈঠকে পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তি চুক্তির ব্যাপারে আলাপ আলোচনা হয়।

এই প্রসঙ্গে বার্নিকাটকে সন্তু লারমা বলেছেন, পার্বত্য সমস্যা একটি অর্থনৈতিক সমস্যা নয়। "এটি একটি রাজনৈতিক ও জাতীয় সমস্যা"।

শান্তি চুক্তি মোতাবেক- রাজনৈতিক ও শান্তিপূর্ণ উপায়ে সমাধানের লক্ষ্যে শেখ হাসিনা সরকারের সঙ্গে ১৯৯৭ সালের ২ ডিসেম্বর পার্বত্য চুক্তি স্বাক্ষর হয়। এতে স্বাক্ষর করেন বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে আবুল হাসনাত আব্দুল্লাহ এবং শান্তি বাহিনীর পক্ষে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতির নেতা সন্তু লারমা।

সন্তু লারমা আরো বলেছিলেন, শান্তি চুক্তি মোতাবেক পার্বত্য চট্টগ্রামের বাইরে সেটেলার বাঙালিদেরকে যথাযথ ও সম্মানজনকভাবে পুনর্বাসনের পরিবর্তে প্রশাসনের ছত্রছায়ায় সমতল জেলাগুলো থেকে বহিরাগত অভিবাসন অব্যাহত রয়েছে।

এব্যাপারে মার্কিন রাষ্ট্রদূত সন্তু লারমাকে বলেন, সরকার যখন শান্তিচুক্তি করেছে অবশ্যই বাস্তবায়ন করবে। সরকার চুক্তি বাস্তবায়নে আন্তরিক রয়েছে।

তিনি আরো বলেন, পার্বত্য অঞ্চলের শান্তি আনায়ন ও এই অঞ্চলের মানুষের জীবন মানোন্নয়নে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সরকারের সাহার্য্য সংস্থা ইউএসএইড সহায়তা অব্যাহত থাকবে।

বৈঠকে মার্কিন রাষ্ট্রদুতের নেতৃত্বাধীন প্রতিনিধি দলটি ছাড়া পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য গৌতম কুমার চাকমা, নুরুল আলম ও পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা সুবর্ণা চাকমা উপস্থিত ছিলেন।

এরআগে রাঙ্গামাটি রাজবাড়িতে বৈঠক শেষ করে তিনি দুপুরে রাঙ্গামাটি পার্বত্য জেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান রেমলিয়ানা পাংখোয়ার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন।

বৈঠকে রাঙ্গামাটি জেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান রেমলিয়ানা পাংখোয়া, পরিষদের মুখ্য নির্বাহী কর্মকর্তা সাদেক আহামদ সহ পরিষদের সদস্যবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত