শিরোনাম

  ২৪ ডিসেম্বর থেকে পার্বত্য এলাকাসহ মাঠপর্যায়ে সশস্ত্র বাহিনী মোতায়েন করা হবে   গ্রাম আদালতের একটি সফল গল্প   টেকনোক্র্যাট মন্ত্রীদের পদত্যাগের পর চার মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব বণ্টন   আগামী ২৪ ডিসেম্বর জেএসসি ও প্রাথমিক সমাপনীর ফল প্রকাশ   নির্বাচনকালীন ইউএনও-ডিসির স্বাক্ষরে শিক্ষকদের বেতন-ভাতা : শিক্ষা মন্ত্রণালয়   খালেদার মনোনয়ন বাতিলের বিরুদ্ধে হাইকোর্টের বিভক্ত আদেশ   'তিন পার্বত্য জেলায় ৩৮ টি ভোটকেন্দ্রে হেলিকপ্টার ব্যবহার করা হবে'   সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ন নির্বাচন নিশ্চিত করার আহ্বান ইউরোপীয় দেশগুলোর   তরুণ ও নারী ভোটাররাই আওয়ামী লীগের বিজয়ের প্রধান হাতিয়ারঃ কাদের   গত ৫ বছরে জেএসএস এমপি উন্নয়ন করতে পারেনি, যা করেছে আওয়ামীলীগ করেছে : দিপংকর তালুকদার   এখন থেকে সরকারি চাকরিতে যোগ দেওয়ার আগে মাদক পরীক্ষা বাধ্যতামূলক   'বান্দরবানে বিদেশি পর্যটকদের ভ্রমণে কোনো নিষেধাজ্ঞা নেই'   'নির্বাচনী প্রচারণায় রঙিন পোস্টার বা ব্যানার ব্যবহার করা যাবে না'   ৫৮টি নিউজ পোর্টাল খুলে দিয়েছে বিটিআরসি   বুধবার থেকে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করবেন প্রধানমন্ত্রী   বিএনপি ক্ষমতায় এলে শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন করার চেষ্ঠা করবো: মনি স্বপন দেওয়ান   তিন পাহাড়ে নৌকা নিয়ে মাঠে দৌড়াবেন যারা   আগামীকাল খালেদা জিয়ার অগ্নিপরীক্ষা   হিরোকে জিরো বানানো এত সহজ নয়, সফল হিরো আলমের চ্যালেঞ্জ   খাগড়াছড়িতে বনের রাজা পেয়েছেন ইউপিডিএফের প্রার্থী নতুন কুমার চাকমা
প্রচ্ছদ / জাতীয় / রাঙ্গামাটিতে গ্রেফতার আতঙ্কে পালিয়ে বেড়াচ্ছে পাহাড়ি যুবকরা, আ.লীগের ১২ নেতার পদত্যাগ

রাঙ্গামাটিতে গ্রেফতার আতঙ্কে পালিয়ে বেড়াচ্ছে পাহাড়ি যুবকরা, আ.লীগের ১২ নেতার পদত্যাগ

প্রকাশিত: ২০১৭-১২-০৮ ২১:২০:১৯

   আপডেট: ২০১৭-১২-০৮ ২১:৩৩:০২

রাঙ্গামাটি থেকে

রাঙামাটি জুরাছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অরবিন্দু চাকমার হত্যার ঘটনায় জড়িত সন্দেহে অনেক জনকে ইতিমধ্যে আটক করেছে পুলিশ।

জনসংহতি সমিতি জানিয়েছে, পুলিশ শুধু সন্দেহের উপর নিরীহ পাহাড়ীদেরও আটক করেছে। এই নিয়ে পাহাড়ি পুরুষদের মধ্যে আতংক বিরাজ করছে। বাড়িতে থাকতে পাড়ছে না বলে জানিয়েছেন।

সংশিষ্টরা জানিয়েছেন- যুবক দলদের যাকে পাচ্ছে তাকে ধরে নিয়ে যাচ্ছে। অধিকাংশ গ্রেফতারকৃত যুবক নিরীহ বলে জানা গেছে। রাঙ্গাপানি ,ভেদভেদী,আসামবস্তি সহ কয়েকটি এলাকায় পুলিশ এখনো টহল দিচ্ছে। এতে গ্রেফতারের ভয়ে গ্রামছাড়া হয়েছেন পাহাড়ী যুবকরা।

এদিকে আজ শুক্রবার অরবিন্দু চাকমার হত্যার তিন দিনের মাথায় আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের ১২ জন নেতা পদত্যাগ করেছেন।

তারা হলেন-মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক দীপংকর কার্ব্বারী,উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি কালাধন চাকমা, যুগ্ম সম্পাদক পব্বন বিকাশ চাকমা, সহ-সভাপতি অনিল কুমার চাকমা, যুবলীগের অর্থ সম্পাদক উত্তম কুমার চাকমা, জুরাছড়ি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি হৃদয় রঞ্জন চাকমা, কৃষকলীগের ধর্মবিষয়ক সম্পাদক সনদ কুমার চাকমা, কার্যকরী কমিটির সদস্য ফুলেশ্বর চাকমা, ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক রপ্তদীপ চাকমা ,সাবেক দুমদুম্যা ইউপি চেয়ারম্যান রাজিয়া চাকমা, বনযোগীছড়া ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত ওয়ার্ড সদস্য কৃষ্ণা চাকমা ও মহিলালীগের ধর্মবিষয়ক সম্পাদক টুনি চাকমা।

বেলা সাড়ে ১১টায় উপজেলা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে তারা ব্যক্তিগত ও পারিবারিক সমস্যার কারণে দলীয় সকল কার্যক্রম থেকে স্বেচ্ছায় অব্যহতি নিচ্ছেন বলে জানান।

এর আগে ও গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে আওয়ামী লীগ নেতাদের ওপর হামলার অভিযোগে পাঁচজন পাহাড়ি যুবক সহ ১৪ জন আটক করেছে পুলিশ। আজ শুক্রবার সকালে রাঙামাটি শহরের আসামবস্তি এলাকা থেকে বিলাইছড়ি উপজেলা পরিষদদের চেয়ারম্যান শুভমঙ্গল চাকমাকে হামলার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার রাত সোয়া ৮টার দিকে অরবিন্দকে গুলি করে হত্যা এবং রাসেল মার্মার উপর হামলার করেছে দুর্বৃত্তরা। তার একই দিনে মঙ্গলবার সকাল ১০টার দিকে অনাদী রঞ্জন চাকমা নামে সাবেক এক ইউপি মেম্বারকে ও গুলি করে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। তার দুইদিন পর আবার রাঙ্গামাটি শহরের বিজয় নগরের ভালেদি আদামে সন্ত্রাসী কায়দায় ঝর্ণা খীসা নামে এক মহিলাকে কুপিছে দুর্বৃত্তরা।

এই হামলার দায় কেউ এখনো স্বীকার করেনি। জনসংহতি সমিতি জানিয়েছেন শুধু সন্দেহের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে নিরীহ মানুষদের হয়রানি করা হচ্ছে। আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতারা বলেছেন হয়ত হামলার পিছনে সম্পৃক্ত থাকতে পারে। পুলিশ বলছেন উপযুক্ত প্রমাণ পেলে যে দলের হোক না কেন ব্যবস্থা করা হবে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত