শিরোনাম

  নানিয়াচর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান প্রীতিময় চাকমাকে অপহরণ   ছেলেদের চেয়ে এবারও এগিয়ে মেয়েরা   চট্টগ্রাম বোর্ডের পাশের হার ৬২.৭৩ %   যারা ফেল করেছে তাদের বকাঝকা করবেন না : প্রধানমন্ত্রী   এইচএসসি তে পাসের ধস নেমেছে এবার   এইচএসসি ও সমমানে পাসের হার এবার ৬৬.৬৪   হাসপাতাল ছাড়ার পর এবার থাই কিশোররা সবাই শ্রামণ হয়ে প্রবজ্যা গ্রহণ করবে   থাইল্যান্ডের গুহায় আটকা পড়া কিশোররা হাসপাতাল ছেড়েছে   ৮ দল নিয়ে বাম গণতান্ত্রিক জোটের আত্মপ্রকাশ   আগামীকাল এইচএসসির ফল প্রকাশ হবে   নেলসন ম্যান্ডেলার জন্ম শতবার্ষিকী আজ   চট্টগ্রাম আঞ্চলিক অফিসেই মিলবে হারানো জাতীয় পরিচয়পত্র   উ. কোরিয়াকে নিরাপত্তা নিশ্চয়তা প্রদানে অংশ নিতে প্রস্তুত রাশিয়া   রাঙামাটিতে ইউপিডিএফ নেতা রাহেলকে ৪ দিনের রিমান্ড দিয়েছে আদালত   এবার খাগড়াছড়িতে সেটেলার কর্তৃক আদিবাসী স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণ   দেশে ছয় মাসে ধর্ষণের শিকার ৫৯২: মহিলা পরিষদ   ফ্রান্সে বিশ্বকাপ বিজয় উল্লাস করতে গিয়ে ব্যাপক সংঘর্ষ-লুটপাট, নিহত ২   মিয়ানমারে জাতিগত ৩ গ্রুপের বিদ্রোহীদের সংঘর্ষে শতাধিক মানুষ পালিয়েছে   নির্বাচন আসছে, সংখ্যালঘুদের মধ্যে চিন্তা বাড়ছে: জাফর ইকবাল   ডুবুরী সানামের জন্য শোক ও মঙ্গলকামনা করেছেন গুহায় আটকা পড়া কিশোররা
প্রচ্ছদ / জাতীয় / রাঙ্গামাটি কাপ্তাই বাঁধের ১৬টি দরজা খুলে দিয়েছে

রাঙ্গামাটি কাপ্তাই বাঁধের ১৬টি দরজা খুলে দিয়েছে

প্রকাশিত: ২০১৭-০৬-১৭ ১১:৩০:১১

প্রতীকী ছবি

রাঙ্গামাটি

গত কয়েকদিনে টানা বর্ষণে রাঙ্গামাটি কর্ণফুলী নদীতে বিশাল আকারে পানি জমে গেছে।বেশী পরিমাণে পানি উঠায় পাহাড়ী এলাকায় ফসলাদি ব্যাপক ক্ষতিসাধন হয়েছে।

এদিকে, হ্রদে পানির চাপ বেড়ে যাওয়ায় বাঁধের ১৬টি দরজা দিয়ে পানি ছেড়ে দিয়েছে কর্ণফুলী বিদ্যুৎ কেন্দ্র কর্তৃপক্ষ।

কর্ণফুলী বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ব্যবস্থাপক আব্দুর রহমান জানিয়েছেন, হ্রদে বর্তমানে ১১০ এমএসএল (মিন সি লেভেল) এর কাছাকাছি পানি চলে আসায় বাঁধটি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে গেছে। এজন্য বাঁধের দরজাগুলো খুলে দেওয়া হয়েছে।

এছাড়া, রাঙামাটিতে পাহাড় ধসের ঘটনায় উদ্ধার অভিযানের কাজ সমাপ্ত ঘোষণা করেছে ফায়ার সার্ভিস। ১৬ জুন শুক্রবার বিকেলে এ ঘোষণা দেয়া হয়। বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নিম্নচাপের প্রভাবে গত রোববার রাত থেকে টানা বৃষ্টি শুরু হয়। সোমবার থেকে চট্টগ্রাম, রাঙামাটি, বান্দরবানসহ পাহাড়ি এলাকাগুলোয় একের পর এক পাহাড় ধসে পড়তে থাকে। মঙ্গলবার সকাল থেকে আসতে থাকে হতাহতের খবর; বাড়তে থাকে লাশের সংখ্যা।

রাঙামাটিতেই এ পর্যন্ত মারা গেছে ১১১জন। ৫ জেলা মিলিয়ে যা ১৫৭ জনে দাঁড়িয়েছে। এখনো বিভিন্ন স্থানে অনেকে মাটিচাপা পড়ে থাকতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। আজ শনিবার রাঙামাটি সার্কিট হাউজের পেছন থেকে আরো একজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত