শিরোনাম

  নৌকার জয় সুনিশ্চিত : প্রধানমন্ত্রী   আজ ইউপিডিএফ’র ২০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী   এবার থাইল্যান্ডে বৈধ হলো গাঁজা   ইউপিডিএফ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সকলকে সংগ্রামী শুভেচ্ছা জানালেন প্রসিত বিকাশ খীসা   চীনা শিশুরা আর স্কুল পালাতে পারবে না!   আবার ক্ষমতায় গেলে ভুল সংশোধন করা হবে : কাদের   প্রধানমন্ত্রী থেকে মাতৃভাষার বই পেয়েছে ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠীর শিশুরা   শুভ বড়দিন আজ   রোহিঙ্গাদের জন্য শীতবস্ত্র পাঠাল ভারত   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪০০ অধিক ছাড়িয়েছে   টাকার মালা উপহার পেলেন ফখরুল!   মধ্যরাত থেকে নির্বাচনী মাঠে সেনাবাহিনী   ভোটের দিন ২৪ ঘণ্টা সব যান চলাচল বন্ধ   সেনা মোতায়েনে ভোটারদের মধ্যে আস্থা ফিরে আসবে: সিইসি   পানছড়িতে ইউপিডিএফের নির্বাচনী অফিসে এলোপাতাড়ি ব্রাশ ফায়ারে ২ জন নিহত!   জেএসসি ও পিইসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ   আগামী ৩০ তারিখ আমরা নৌকার বিজয় নিয়ে ঘরে ফিরবো: দীপংকর তালুকদার   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২২২ জন   যারা মানুষ পুড়িয়ে মারে তাদের ভোট দেবেন নাঃ প্রধানমন্ত্রী   ২৮ ডিসেম্বর থেকে ১ জানুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত ৪ দিন মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা
প্রচ্ছদ / লাইফ স্টাইল / আপনার ছোট বোন থাকার সুবিধা

আপনার ছোট বোন থাকার সুবিধা

প্রকাশিত: ২০১৭-০৪-১৭ ০৯:৩২:৩২

লাইফ স্টাইল ডেস্ক

একজন মেয়ের জীবনে ছোট ভাই বা বোন থাকার মজাই আলাদা। বিশেষ করে ছোট বোন থাকলে দু’বোনে মিলে অনেক বেশি আনন্দের দিন কাটে। এমন অনেক ধরনের বিষয় রয়েছে জীবনে যা ছোট বোন ছাড়া অন্য কারো কাছ থেকে পাওয়া সম্ভব নয়।

আপনি কারোও রোল মডেল, ভাবতেই ভালো লাগে- আপনার ছোট বোনের কাছে আপনিই অনুকরণ যোগ্য ব্যক্তি। সে আপনার অনেক কিছু অনুকরণ করে। এ বিষয়টি অনেক বেশি আনন্দের।

আপনি পরিবারের বড় একজন, সে অনুভূতিও অসাধারণ: যদি আপনার ছোটো কেউ না থাকতো তাহলে কিন্তু আপনিই পরিবারের সবচেয়ে ছোটো হতেন। ছোটো ভাইয়েরাও কিন্তু বড় হয়ে বড় বড় ভাব ধরে, কিন্তু ছোটো বোনেরা তা করে না। এ অনুভূতিটিও বেশ ভালো।

আপনার না বলা কথাগুলো ছোট বোনটি না বুঝলেও তাকে বলতে পারেন: যে কথাগুলো পরিবার বা বন্ধুবান্ধবকে বলতে পারেন না সে কথাগুলো নিশ্চয়ই কাউকে না কাউকে বলা উচিত। ছোটো বোন থাকলে কথাগুলো বলার জন্য মানুষ খোঁজা লাগে না। সে কিছু না বুঝলেও তাকে বলে মন হালকা করে নেয়া যায়।

আপনার বন্ধুরা আপনার ছোট বোনকে পছন্দ করেন: আপনার সব বন্ধুরা আপনার ছোটো বোনকে অনেক পছন্দ করেন। তার কথা সব সময় জিজ্ঞেস করেন। এটিও কিন্তু এক্সট্রা একটি সুবিধা। আপনি কিন্তু বাড়তি মনোযোগ পাচ্ছেন আপনার বোনটির কারণে।

আপনাদের চোখে চোখে কথা বলার নিজস্ব কিছু ভাষা আছে: বোনেরা এক সাথে থাকলে নিজেদের মধ্যে এক ধরনের ভাষার তৈরি হয় যা অন্য কারো বোঝার সাধ্য হয় না। মজার কিছু দেখলে চোখে চোখে কথা বলে আলাদা ধরনের আনন্দ নেয়া যায় শুধুমাত্র ছোটবোন থাকলেই।

ছোট বোনটির বাহানা দিতে পারেন বাইরে বেরোনোর সময়: বাইরে যেতে ইচ্ছে করছে, কিন্তু মা দিচ্ছেন না একা বাইরে যেতে। ছোটো বোনকে দেখিয়ে অনায়েসেই বলা যায় ‘ওকে পার্কে নিয়ে যাই’ বা ‘ও আইসক্রিম খেতে চাচ্ছে’।

আপনার ছেলেমানুষি থেকে বিরত থাকার পেছনের কারণ ছোট বোন: অনেক সময় নিজের চোখের পানিও কিন্তু ধরে রাখা যায় ছোট বোনটির দিকে তাকিয়ে, কারণ সে আপনাকে দেখছে। অনেক ছেলেমানুষি কাজ করা থেকেও নিজেকে বিরত রাখতে পারবেন ছোটো বোনের দিকে তাকিয়ে।

চোখের সামনে ছোট বোনটির বড় হওয়ার বিষয়টি কিন্তু মন্দ নয়: বড় বোন হিসেবে জন্ম থেকেই আপনি আপনার বোনকে দেখে আসছেন। তার সেই ছোট বেলা থেকে আপনার সামনে বড় হয়ে যাওয়ার বিষয়টি কিন্তু বেশ মজার। তাকে অন্তত বলতে পারবেন ‘তোকে, আমি এ এক আঙুলের সমান দেখেছি’।

আপনার ব্যবহৃত জিনিস তার নতুন সঙ্গী: আপনার ব্যবহৃত ছোট হয়ে যাওয়া জিনিসগুলো সঙ্গী করে নিয়ে সে যখন আপনার সামনেই হাঁটাহাঁটি করে তখনও কিন্তু বেশ ভালোই লাগে।

আপনার উদ্ভট সব কর্মকাণ্ডের সাক্ষী ছোট বোন: আপনার উদ্ভট কর্মকাণ্ড, ইচ্ছা এবং নানা ধরনের এক্সপেরিমেন্টের শিকার আর সাক্ষী যাই বলুন না কেন আপনার ছোটো বোন। তার চুল ইচ্ছে মতো বাঁধা, তার ওপর মেকআপ এক্সপেরিমেন্ট করা ইত্যাদি ছোট বোন না থাকলে করতে পারতেন না।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত