আজ শনিবার, | ২১ অক্টোবর ২০১৭ ইং

শিরোনাম

  কুমিল্লায় বিশ্ব শান্তি প্যাগোডা উদ্বোধন   আগামীকাল থেকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা শুরু   নিজ নিজ মাতৃভাষা শেখার আহ্বান জানালেন \'উন্দুচ্যে বৈদ্য\'   বান্দরবানে জনসংহতি সমিতির সাধারণ সম্পাদক ক্যবামং মারমা পুনরায় উপজেলা চেয়ারম্যানে দায়িত্ব নিলেন   রোহিঙ্গাদের সংক্রামক রোগ পার্বত্য চট্টগ্রামে ছড়িয়ে পড়তে পারে || বিশেষজ্ঞদের কড়া সতর্ক   বৃষ্টি হতে পারে সারাদেশে, তিন নম্বর সংকেত দেখিয়ে যাওয়ার বুলেটিন   শিক্ষক এবং শিক্ষকতা || মুহম্মদ জাফর ইকবাল   ঢাবি ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শুরু   মিয়ানমারের বিলাসবহুল হোটেল অগ্নিকান্ডে পুড়ে ছাই   যারা সন্ত্রাসের সাথে জড়িত তাদের ধর্ম পরিচয় আর থাকেনাঃ দলাই লামা   বিশ্বের সবচেয়ে বেশি শীত যেখানে   মন্ট্রিয়লে রোহিঙ্গাদের সহায়তায় চ্যারেটি ফান্ড ‘রেইজিং গালা’   বাঁশ কোড়ল আদিবাসীদের ঐতিহ্যবাহী প্রিয় খাবার   ঢাবির \'ক\' ও \'চ\' ইউনিটের ফল প্রকাশ   দেশে ফিরেছেন খালেদা জিয়া   শ্যামা পূজা বৃহস্পতিবার   মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতায় চীনে আদিবাসীদের থামি পড়ে অংশগ্রহণ করবেন জেসিয়া ইসলাম   সন্ত্রাসীদের ধরতে শীঘ্রই তিন পার্বত্য জেলায় র‍্যাবের নতুন ইউনিট যাচ্ছে   পূর্ণ্য তীর্থ পূর্ব বিনাজুরী গ্রামের নিয়তি রানী বড়ুয়া চলে গেলেন না ফেরার দেশে   বেরোবির প্রভাষক পদে মাহমুদুলকে নিয়োগ দিতে উচ্চ আদালতের নির্দেশ

আপনার ছোট বোন থাকার সুবিধা

প্রকাশিত: ২০১৭-০৪-১৭ ০৯:৩২:৩২

লাইফ স্টাইল ডেস্ক

একজন মেয়ের জীবনে ছোট ভাই বা বোন থাকার মজাই আলাদা। বিশেষ করে ছোট বোন থাকলে দু’বোনে মিলে অনেক বেশি আনন্দের দিন কাটে। এমন অনেক ধরনের বিষয় রয়েছে জীবনে যা ছোট বোন ছাড়া অন্য কারো কাছ থেকে পাওয়া সম্ভব নয়।

আপনি কারোও রোল মডেল, ভাবতেই ভালো লাগে- আপনার ছোট বোনের কাছে আপনিই অনুকরণ যোগ্য ব্যক্তি। সে আপনার অনেক কিছু অনুকরণ করে। এ বিষয়টি অনেক বেশি আনন্দের।

আপনি পরিবারের বড় একজন, সে অনুভূতিও অসাধারণ: যদি আপনার ছোটো কেউ না থাকতো তাহলে কিন্তু আপনিই পরিবারের সবচেয়ে ছোটো হতেন। ছোটো ভাইয়েরাও কিন্তু বড় হয়ে বড় বড় ভাব ধরে, কিন্তু ছোটো বোনেরা তা করে না। এ অনুভূতিটিও বেশ ভালো।

আপনার না বলা কথাগুলো ছোট বোনটি না বুঝলেও তাকে বলতে পারেন: যে কথাগুলো পরিবার বা বন্ধুবান্ধবকে বলতে পারেন না সে কথাগুলো নিশ্চয়ই কাউকে না কাউকে বলা উচিত। ছোটো বোন থাকলে কথাগুলো বলার জন্য মানুষ খোঁজা লাগে না। সে কিছু না বুঝলেও তাকে বলে মন হালকা করে নেয়া যায়।

আপনার বন্ধুরা আপনার ছোট বোনকে পছন্দ করেন: আপনার সব বন্ধুরা আপনার ছোটো বোনকে অনেক পছন্দ করেন। তার কথা সব সময় জিজ্ঞেস করেন। এটিও কিন্তু এক্সট্রা একটি সুবিধা। আপনি কিন্তু বাড়তি মনোযোগ পাচ্ছেন আপনার বোনটির কারণে।

আপনাদের চোখে চোখে কথা বলার নিজস্ব কিছু ভাষা আছে: বোনেরা এক সাথে থাকলে নিজেদের মধ্যে এক ধরনের ভাষার তৈরি হয় যা অন্য কারো বোঝার সাধ্য হয় না। মজার কিছু দেখলে চোখে চোখে কথা বলে আলাদা ধরনের আনন্দ নেয়া যায় শুধুমাত্র ছোটবোন থাকলেই।

ছোট বোনটির বাহানা দিতে পারেন বাইরে বেরোনোর সময়: বাইরে যেতে ইচ্ছে করছে, কিন্তু মা দিচ্ছেন না একা বাইরে যেতে। ছোটো বোনকে দেখিয়ে অনায়েসেই বলা যায় ‘ওকে পার্কে নিয়ে যাই’ বা ‘ও আইসক্রিম খেতে চাচ্ছে’।

আপনার ছেলেমানুষি থেকে বিরত থাকার পেছনের কারণ ছোট বোন: অনেক সময় নিজের চোখের পানিও কিন্তু ধরে রাখা যায় ছোট বোনটির দিকে তাকিয়ে, কারণ সে আপনাকে দেখছে। অনেক ছেলেমানুষি কাজ করা থেকেও নিজেকে বিরত রাখতে পারবেন ছোটো বোনের দিকে তাকিয়ে।

চোখের সামনে ছোট বোনটির বড় হওয়ার বিষয়টি কিন্তু মন্দ নয়: বড় বোন হিসেবে জন্ম থেকেই আপনি আপনার বোনকে দেখে আসছেন। তার সেই ছোট বেলা থেকে আপনার সামনে বড় হয়ে যাওয়ার বিষয়টি কিন্তু বেশ মজার। তাকে অন্তত বলতে পারবেন ‘তোকে, আমি এ এক আঙুলের সমান দেখেছি’।

আপনার ব্যবহৃত জিনিস তার নতুন সঙ্গী: আপনার ব্যবহৃত ছোট হয়ে যাওয়া জিনিসগুলো সঙ্গী করে নিয়ে সে যখন আপনার সামনেই হাঁটাহাঁটি করে তখনও কিন্তু বেশ ভালোই লাগে।

আপনার উদ্ভট সব কর্মকাণ্ডের সাক্ষী ছোট বোন: আপনার উদ্ভট কর্মকাণ্ড, ইচ্ছা এবং নানা ধরনের এক্সপেরিমেন্টের শিকার আর সাক্ষী যাই বলুন না কেন আপনার ছোটো বোন। তার চুল ইচ্ছে মতো বাঁধা, তার ওপর মেকআপ এক্সপেরিমেন্ট করা ইত্যাদি ছোট বোন না থাকলে করতে পারতেন না।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত