শিরোনাম

  প্রযুক্তি ফাঁদে পড়েছেন রাঙ্গামাটির জেলা প্রশাসক   সেনাক্যাম্প কমান্ডার কর্তৃক জনপ্রতিনিধিদের উপর হয়রানি ও নির্যাতনের ঘটনায় জেএসএসের প্রতিবাদ   বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে ১ কোটি মানুষের কর্মসংস্থান হবে : প্রধানমন্ত্রী   রোনালদোর গোলে এগিয়ে গেল পর্তুগাল   ইন্দোনেশিয়ায় ফেরি ডুবিতে নিখোঁজ ১৯২   চালু হলো বাইসাইকেল শেয়ারিং সেবা   আলজি দাধাহ || আলোময় চাকমা   বাংলাদেশের সমর্থকদের প্রতি মেসির ভালোবাসা   জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিল ত্যাগ যুক্তরাষ্ট্রের   পাহাড় ধস, পাহাড়িরা নয়, দায়ী মূলত সমতল থেকে নিয়ে যাওয়া বাঙালিরা : আবু সাদিক   কবি সুফিয়া কামালের ১০৭তম জন্মবার্ষিকী আজ   মিশরকে ৩-১ গোলে উড়িয়ে দিল রাশিয়া   পোল্যান্ডকে ২-১ গোলে হারিয়ে মাঠে নাচ দেখাল সেনেগাল   জাতীয় অধ্যাপক হলেন তিন বরেণ্য শিক্ষাবিদ   এক সপ্তাহে পাহাড়ে ৩ জন আঞ্চলিক নেতাকর্মী খুন   অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে রোহিঙ্গাদের মধ্যে সংঘর্ষে আহত ১০, নিহত ১   কলম্বিয়ার বিপক্ষে জাপানের জয়   চট্টগ্রামে সড়ক দুর্ঘটনায় মডেল তিথি বড়ুয়া নিহত   বাংলাদেশ থেকে তিক্ত অভিজ্ঞতা নিয়ে নিজের দেশে ফিরলেন জার্মান তরুণী   খুনের ঘটনায় জড়িত সন্দেহে প্রধান শিক্ষক দেবদাস চাকমাকে আটক করেছে পুলিশ
প্রচ্ছদ / লাইফ স্টাইল / কাজের চাপ ঝেড়ে ফেলার ৮ উপায়

কাজের চাপ ঝেড়ে ফেলার ৮ উপায়

প্রকাশিত: ২০১৭-০৩-৩০ ১৩:০৯:০৩

লাইফ স্টাইল ডেস্ক

পেশাগত জীবনে উন্নতি করতে চাইলে প্রতিটি কাজ সঠিকভাবে করা চাই। তবে শত কাজের পেছনে ছুটতে গিয়ে চাপ পড়ে শরীর ও মনে। তাই নিজের কাজটুকু যতটা পারা যায় আনন্দের সাথেই করা উচিত। অফিসের সময় কাজ নিয়ে ভাবনা হয়তো আপনার কাজকে এগিয়ে দেবে। কিন্তু অফিসের সময়ের বাইরেও যদি কাজ নিয়েই ভাবতে থাকেন তাহলে সেটি স্বাস্থ্যকে ক্ষতিগ্রস্ত করবে। অবনতি ঘটাবে পারিবারিক ও ব্যক্তিগত সম্পর্কে।

এ ছাড়া বেশি উদ্বেগের কারণে আপনার অফিসে কাজের মানও খারাপ হয়ে যেতে পারে। এমনটাই জানিয়েছেন সান ফ্রান্সিসকো-ভিত্তিক মনোবিজ্ঞানী ডক্টর স্টিভ ওরমা। তবে কীভাবে কাজের চাপ থেকে মুক্ত থাকা যাবে সে বিষয়েও আছে পরামশ্য। আজ রইলো কাজের চাপ ঝেড়ে ফেলার ৮টি উপায়।

অফিসের পথে গান শুনুন, বই পড়ুন
অফিসে ঢুকেই আপনাকে অনেক কাজ করতে হবে! এই ভাবনা থেকে মুক্তি পেতে প্রথমেই যেই কাজটি করতে পারেন সেটি হলো, অফিসে যাওয়ার পথে বাস বা ট্রেনে বসে পড়ে ফেলতে পারেন পছন্দের কোনো বই। অথবা হেড ফোন কানে লাগিয়ে শুনে নিতে পারেন পছন্দের কোনো গান। এগুলো কাজের চাপের ভাবনা থেকে আপনাকে হাজার মাইল দূরে নিয়ে যাবে এবং কাজ শুরুর আগে মনকেও বেশ ফুরফুরে করে দেবে।

পোশাকে ঢিলে করুন
যদি স্যুট, ব্যুট, টাই পরে অফিসে যান, তবে স্যুটটি খুলে রাখুন অথবা টাইটি একটু ঢিলে করুন এটা আপনাকে কিছুটা আরাম দেবে।

নিজেকে সময় দিন
সারাদিনের ব্যস্ততার মাঝেও নিজের জন্য কিছুটা সময় রাখুন। ৩০ মিনিটের জন্য একদম একা হয়ে যান। সম্ভব হলে একটি চমৎকার গোসল (শাওয়ার) নিন। নিজের পছন্দের কাজ করুন।

উদ্বেগ ঝেড়ে ফেলুন
যদি আপনার অফিসের কাজের সময় সকালবেলা হয় তাহলে বিকেলের দিকটায় অবসর থাকার চেষ্টা করুন। এ সময় শ্বাস প্রশ্বাসের ব্যায়াম করুন এবং পেশির ব্যায়াম করুন। এই দুটো বিষয় কাজের উত্তেজনা থেকে রেহাই দিতে সাহায্য করবে আপনাকে।

খেতে বসে কাজের আলোচনা বন্ধ করুন
কাজের উদ্বেগ অনেকটা বরফের বলের মতো। এটা সারাক্ষণ তার শীতল পরশ দিতে চাইবে। অনেকেই রাতের খাবারের সময় হয়তো বন্ধু বা সঙ্গীর সঙ্গে অফিসের কাজগুলো নিয়ে আলোচনা করেন। এটা না করাই ভালো। খাওয়ার সময় কেবল খাবারের দিকেই মনোযোগ দিন।

সময়ের কাজ সময়ে করুন
সময়ের কাজ সময়ে শেষ করুন। যখন আপনি কোনো প্রতিবেদন বা প্রকল্প তৈরি করছেন তখন সেটি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে শেষ করার চেষ্টা করুন। কাজ জমিয়ে রাখলে চাপ বাড়বে। চেষ্টা করুন অফিসের সময়ের মধ্যেই কাজগুলো শেষ করতে। কাজ যদি বাসায় নিয়ে যান আপনার পরিবার এবং ব্যক্তিগত সম্পর্ক ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।

দিনশেষে কাজের সফলতার স্বাদ নিন
সম্প্রতি ফ্লোরিডা বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি গবেষণায় বলা হয়েছে, দিন শেষে কয়েক মিনিট কাজের সফলতাগুলো ভাবুন। যেসব কাজ আপনি শেষ করেছেন এবং যেই কাজগুলো ভালো হয়েছে সেগুলো নিয়ে ভাবুন। একটি নোট খাতায় লিখেও রাখতে পারেন বিষয়গুলো। এটা অফিস থেকে বের হওয়ার পরও আপনাকে একটি ভালো অনুভূতি দেবে।

কাজের বাইরে অনুষ্ঠান
চমৎকার কোনো ফুটবল ম্যাচ, রোমান্টিক রাতের খাবার, বাসার কোনো পার্টি- যাই করুন না কেন অফিসের সময়ের পরে করুন। এতে সানন্দে অনুষ্ঠানটি উপভোগ করতে পারবেন। এগুলো আপনার কাজের একঘেয়েমিকে দূর করতেও সাহায্য করবে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত