আজ শুক্রবার, | ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭ ইং

শিরোনাম

  সন্তুু লারমার কুশপুত্তলিকা দাহ করার প্রতিবাদে ও স্বেচ্ছায় বাঘাইছড়িতে আ. লীগের অর্ধশত পাহাড়ী নেতা-কর্মীর পদত্যাগ   পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তি চুক্তিতে যেসব বিষয় অবাস্তবায়িত রয়ে গেছে   অনাদী রঞ্জন চাকমা হত্যাকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের দাবিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বরাবর স্মারকলিপি   রাংগামাটি বাঘাইছড়ি পৌরসভা ও ইউনিয়নে স্বেচ্ছায় আরো ২১ জন পাহাড়ি আ. লীগ নেতার পদত্যাগ   এবার আয়ারল্যান্ড থেকে সু চির \'ফ্রিডম অব ডাবলিন সিটি’ পুরস্কার প্রত্যাহার   শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস আজ   রোহিঙ্গাদের জন্য ১৪ দশমিক ৫ মিলিয়ন ডলার অনুদান দিবে যুক্তরাষ্ট্র   ২০ হাজার ভিক্ষু নিয়ে মান্দালয়ে অনুষ্ঠিত হবে থাইল্যান্ড এবং মিয়ানমারের মহাদান অনুষ্ঠান   মিয়ানমারে রয়টার্সের দুই সাংবাদিক আটক, দোষী সাব্যস্ত হলে ১৪ বছর কারাদন্ড হতে পারে   ত্রিপুরা রাজ্যে মায়েদের সন্তান পালনের জন্য ছুটি দুই বছর   প্যারিসে শীর্ষক গণশুনানি ও জলবায়ু পরিবর্তনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ   আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ কনফেডারেশন মহাসচিব হিসেবে নির্বাচিত হলেন ত্রিপুরা বৌদ্ধ ভিক্ষু   জালালাবাদ এসোসিয়েশন অফ টরোন্টোর ট্রাস্টী এবং উপদেষ্টামণ্ডলীর পরিচিতি সভা অনুষ্ঠিত   ত্রাণের উপর ঘুমাচ্ছে রোহিঙ্গারা , শীতে কেমন আসে লংগদুর পাহাড়িরা?   পার্বত্য এলাকায় আইন শৃঙ্খলা রক্ষার প্রাথমিক দায়িত্ব আঞ্চলিক ও জেলা পরিষদের ওপর ন্যস্ত করার সুপারিশ   হামলার অভিযোগে আটককৃত ব্যক্তিরা রাঙ্গাপানি ও ভেদভেদী এলাকার অটোরিক্সা চালক, ছাত্র ও দিনমজুর   তিব্বতীয় মুসলমানরা দালাই লামাকে এখনো নেতা হিসেবে মনে করে   রাঙ্গামাটিতে ৬৯ গ্রামবাসী ও জেএসএস সদস্যের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা, নিরীহ ১৯ জনকে গ্রেফতার, ১২ জনকে হয়রানির অভিযোগ   নিউইয়র্কে হামলাকারী সন্দেহভাজন ব্যক্তি চট্টগ্রাম থেকে, পরিবার আতঙ্কিত   বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চ ভাষণের বিশ্ব স্বীকৃতিতে কানাডার অটোয়ায় বাংলাদেশ হাইকমিশনের আনন্দ শোভাযাত্রা

স্কুল জীবনে যে ৭ কাজ সবাই উপভোগ করেছেন

প্রকাশিত: ২০১৭-০৩-২০ ০১:৪১:০২

ডেইলি সিএইচটি রিপোর্ট

প্রত্যেকের কাছেই জীবনের সেরা সময়- তার ‘স্কুল জীবন’। ঠিক যেন স্বপ্নে মতো স্কুল জীবনের দিনগুলো৷ সত্যিই, স্কুল জীবনের এক আশ্চর্য মাধুর্য ছিল। কিন্তু ঠিক কী কারণে স্কুল জীবনকে সবার কাছে এতো মধুর মনে হয়? এ প্রশ্নের উত্তর জানেন না অরেকেই। তবে আজকের প্রতিবেদনে রয়েছে সে উত্তর। আজ রইল এমন কয়েকটি বিষয়, যা স্কুল জীবনের আনন্দকে বহুগুণে বাড়িয়ে দিত বলেই মনে করা যায়। দেখে নিন, আপনার মতের সাথে মেলে কি না।

ছুটির আনন্দ: স্কুলে কাটানো সময়টুকু যতই আনন্দের হোক না কেন, ছুটির ঘন্টা বেজে উঠতেই এক আশ্চর্য আনন্দে ভরে উঠত মনটা। সেই আনন্দের কোনো তুলনা হয় না।

প্রথম প্রেম: জীবনে প্রথম কাউকে ভালো লাগার ঘটনাটা নিশ্চয়ই স্কুল জীবনেই ঘটেছিল? স্কুলের কোনো এক সহপাঠী বা সহপাঠিনীর দিকে তাকিয়ে উদাস হয়ে যাওয়ার ঘটনা স্কুলেই ঘটত। তার পরে তার দিক থেকে যদি একটুকরো হাসি উপহার পাওয়া যায়, তা হলে তো কথাই নেই। সেই অনুভূতি যেন স্বর্গীয়।

নিজেকে অপরাজেয় মনে করার অনুভূতি: স্কুল জীবনে নিজেকে অপরাজেয় মনে করেননি, এমন কেউ নেই। সেই ভাবনায় সারল্য ছিল, অপরিপক্কতা ছিল, কিন্তু তাতেই ছিল আনন্দ।

উদ্বেগেরও ছিল আলাদা মজা: পরীক্ষার উদ্বেগ ছিল, টিউশনের টেনশন, বাবা-মাযের বকা খাওয়ার ভয়ও কম ছিল না- কিন্তু চাকরি জীবনের উদ্বেগের চেয়ে তো কম ছিল সেই স্ট্রেস।

বন্ধুদের গ্রুপ: সমস্ত সহপাঠীর সাথে তো আর সমান বন্ধুত্ব ছিল না, স্পেশাল ফ্রেন্ডদের নিয়ে ছিল একটি বিশেষ গ্রুপ। তাদের মধ্যে চলত সমস্ত গুপ্তকথার আদানপ্রদান, চলত কোড ল্যাঙ্গুয়েজে কথাবার্তা। যার আনন্দও কম নয়।

প্রিয় টিচারের ক্লাস: শিক্ষক-শিক্ষিকাদের বাদ দিয়ে কি আর স্কুল হয়? অনেক টিচারের মধ্যে কোনো কোনো টিচার ছিলেন বিশেষ প্রিয়। তাদের ক্লাস করতে যে শুধু ভালো লাগত তা নয়, তাদের ব্যক্তিত্বও ছিল বিশেষ মোহসঞ্চারী।

স্কুলের অনুষ্ঠান: স্কুল মানে তো আর শুধু পড়াশোনা নয়, সেই সাথেই ছিল কালচারাল ইভেন্টস, স্পোর্টস- আরও কত কী! সেই সমস্ত অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের মজাই ছিল আলাদা।

আপনার মন্তব্য


আলোচিত