শিরোনাম

  নৌকার জয় সুনিশ্চিত : প্রধানমন্ত্রী   আজ ইউপিডিএফ’র ২০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী   এবার থাইল্যান্ডে বৈধ হলো গাঁজা   ইউপিডিএফ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সকলকে সংগ্রামী শুভেচ্ছা জানালেন প্রসিত বিকাশ খীসা   চীনা শিশুরা আর স্কুল পালাতে পারবে না!   আবার ক্ষমতায় গেলে ভুল সংশোধন করা হবে : কাদের   প্রধানমন্ত্রী থেকে মাতৃভাষার বই পেয়েছে ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠীর শিশুরা   শুভ বড়দিন আজ   রোহিঙ্গাদের জন্য শীতবস্ত্র পাঠাল ভারত   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪০০ অধিক ছাড়িয়েছে   টাকার মালা উপহার পেলেন ফখরুল!   মধ্যরাত থেকে নির্বাচনী মাঠে সেনাবাহিনী   ভোটের দিন ২৪ ঘণ্টা সব যান চলাচল বন্ধ   সেনা মোতায়েনে ভোটারদের মধ্যে আস্থা ফিরে আসবে: সিইসি   পানছড়িতে ইউপিডিএফের নির্বাচনী অফিসে এলোপাতাড়ি ব্রাশ ফায়ারে ২ জন নিহত!   জেএসসি ও পিইসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ   আগামী ৩০ তারিখ আমরা নৌকার বিজয় নিয়ে ঘরে ফিরবো: দীপংকর তালুকদার   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২২২ জন   যারা মানুষ পুড়িয়ে মারে তাদের ভোট দেবেন নাঃ প্রধানমন্ত্রী   ২৮ ডিসেম্বর থেকে ১ জানুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত ৪ দিন মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা
প্রচ্ছদ / তথ্য-প্রযুক্তি / ইন্টারনেটে নিরাপত্তা : ২০ পরামর্শ দিয়েছে সিএসবি

ইন্টারনেটে নিরাপত্তা : ২০ পরামর্শ দিয়েছে সিএসবি

প্রকাশিত: ২০১৭-১০-০৫ ১০:৩৩:১৩

প্রযুক্তি ডেস্ক

সোশ্যাল মিডিয়া, ই-কমার্স বা অনলাইন লেনদেনসহ ইন্টারনেট দুনিয়ায় দৈনন্দিন পথ চলায় নিরাপদ থাকতে ২০টি পরামর্শ দিয়েছে সাইবার স্পেস অব বাংলাদেশ (সিএসবি)।

সেই সঙ্গে কেউ সাইবার অপরাধের শিকার হলে সহায়তা দেয়ার কথাও জানিয়েছে তারা। প্রয়োজনে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে সঙ্গে নিয়ে এ সাহায্য করবে সিএসবি। যে পরামর্শগুলো দেয়া হয়েছে সেগুলো হল-

১. অন্তত প্রতি মাসে একবার ফেসবুক/ই-মেইলের পাসওয়ার্ড পরিবর্তন করে ফেলুন।

২. ফেসবুক ও ই-মেইলে লগইন অ্যাপ্রুভাল দিয়ে রাখুন। রিকভারি ই-মেইল ব্যবহার করুন।

৩. ফেসবুকে কোনো কিছু যাচাই না করে শেয়ার ও কমেন্ট করবেন না। শেয়ারকৃত পোস্টটি মিথ্যা কিংবা ভুয়া হতে পারে।

৪. পরিচিত বা অপরিচিত কেউ কোনো লিঙ্ক দিলে সেখানে যাচাই না করে ক্লিক করবেন না। ক্লিক করলেই আপনার তথ্য চলে যেতে পারে।

৫. উন্মুক্ত জায়গার ফ্রি ওয়াইফাই ব্যবহার করবেন না। এটি একটি ফাঁদ হতে পারে।

৬. অপরিচিত কেউ আপনার মেইলে কোনো লিঙ্ক বা ডাউনলোড ফাইল দিলে ক্লিক করবেন না। ডাউনলোড ফাইলে ভাইরাস থাকতে পারে।

৭. আপনার উইন্ডোজ এবং সব সফটওয়্যার নিয়মিত আপডেট রাখুন।

৮. পেইড এন্টিভাইরাস ব্যবহার করুন।

৯. অনলাইনে যেখান সেখান থেকে কোনো সফটওয়্যার ডাউনলোড করবেন না। এতে বিভিন্ন ম্যালওয়্যার থাকতে পারে।

১০. সোশ্যাল মিডিয়াতে শিশু, মহিলা ও ফ্যামিলির ছবি দেবেন না। কারণ এ ছবি দিয়ে অপরাধীরা আপনাকে ব্ল্যাকমেইল করতে পারে।

১১. ফেসবুকে মোবাইল নম্বর, ই-মেইল ও জন্মতারিখ অনলি মি করে রাখুন।

১২. সোশ্যাল মিডিয়া, ই-মেইল ও জব সাইটে আলাদা আলাদা ই-মেইল ও পাসওয়ার্ড ব্যবহার করুন।

১৩. সোশ্যাল মিডিয়াতে সুন্দর, আকর্ষণীয় ছবি, অ্যাপস দেখলে ক্লিক করবেন না।

১৪. আপনার স্মার্টফোন, বিভিন্ন ডিভাইস সাময়িক সময়ের জন্য হলেও অন্যের হাতে দেবেন না।

১৫. ই-কমার্স সাইট বা অনলাইনে কেনাকাটা করার সময় ভালো করে দেখে নিন সাইটটি বিশ্বস্ত ওয়েবসাইট কিনা। না হলে আপনি প্রতারিত হতে পারেন।

১৬. ফ্রি ও পাইরেটেট সফটওয়্যার ব্যবহার করবেন না। এতে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

১৭ . আপনার অফিসের কর্মচারী, কর্মকর্তাদের সাইবার সিকিউরিটির ওপর প্রশিক্ষণ দিন।

১৮. যেখান সেখান থেকে পুরনো স্মার্টফোন, বিভিন্ন ধরনের ডিভাইস ক্রয় করবেন না। আপনি যে ফোনটি কিনেছেন সেটা দিয়ে হয়তো আগের ব্যবহারকারী অপরাধমূলক কোনো কাজ করেছে।

১৯. সোশ্যাল মিডিয়াতে অনলাইনে ডলার কেনাবেচা করার সময় অপরিচিত কারও সঙ্গে লেনদেন করবেন না।

২০. সাইবার ক্রাইমের শিকার হলে চুপচাপ থাকবেন না। আপনার পরিবার এবং পুলিশের সহায়তা নিন। অনলাইনে যত তথ্য কম দেবেন ততই আপনার জন্য ভালো।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত