আজ শনিবার, | ২১ অক্টোবর ২০১৭ ইং

শিরোনাম

  কুমিল্লায় বিশ্ব শান্তি প্যাগোডা উদ্বোধন   আগামীকাল থেকে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা শুরু   নিজ নিজ মাতৃভাষা শেখার আহ্বান জানালেন \'উন্দুচ্যে বৈদ্য\'   বান্দরবানে জনসংহতি সমিতির সাধারণ সম্পাদক ক্যবামং মারমা পুনরায় উপজেলা চেয়ারম্যানে দায়িত্ব নিলেন   রোহিঙ্গাদের সংক্রামক রোগ পার্বত্য চট্টগ্রামে ছড়িয়ে পড়তে পারে || বিশেষজ্ঞদের কড়া সতর্ক   বৃষ্টি হতে পারে সারাদেশে, তিন নম্বর সংকেত দেখিয়ে যাওয়ার বুলেটিন   শিক্ষক এবং শিক্ষকতা || মুহম্মদ জাফর ইকবাল   ঢাবি ‘ঘ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা শুরু   মিয়ানমারের বিলাসবহুল হোটেল অগ্নিকান্ডে পুড়ে ছাই   যারা সন্ত্রাসের সাথে জড়িত তাদের ধর্ম পরিচয় আর থাকেনাঃ দলাই লামা   বিশ্বের সবচেয়ে বেশি শীত যেখানে   মন্ট্রিয়লে রোহিঙ্গাদের সহায়তায় চ্যারেটি ফান্ড ‘রেইজিং গালা’   বাঁশ কোড়ল আদিবাসীদের ঐতিহ্যবাহী প্রিয় খাবার   ঢাবির \'ক\' ও \'চ\' ইউনিটের ফল প্রকাশ   দেশে ফিরেছেন খালেদা জিয়া   শ্যামা পূজা বৃহস্পতিবার   মিস ওয়ার্ল্ড প্রতিযোগিতায় চীনে আদিবাসীদের থামি পড়ে অংশগ্রহণ করবেন জেসিয়া ইসলাম   সন্ত্রাসীদের ধরতে শীঘ্রই তিন পার্বত্য জেলায় র‍্যাবের নতুন ইউনিট যাচ্ছে   পূর্ণ্য তীর্থ পূর্ব বিনাজুরী গ্রামের নিয়তি রানী বড়ুয়া চলে গেলেন না ফেরার দেশে   বেরোবির প্রভাষক পদে মাহমুদুলকে নিয়োগ দিতে উচ্চ আদালতের নির্দেশ

ইমোনা চাকমার চিকিৎসার্থে দায়িত্ব নিলেন রাংগামাটি সেনা রিজিয়ন কর্তৃপক্ষ

প্রকাশিত: ২০১৭-০৫-২৮ ১৮:০৯:০৫

   আপডেট: ২০১৭-০৬-১২ ০০:২৭:২৬

নিজস্ব প্রতিবেদক

রাঙ্গামাটি জুরাছড়ি এক পাহাড়ি ৪র্থ শ্রেণীর মেধাবী ছাত্রীর চিকিৎসার্থে রাংগামাটি সেনা রিজিয়ন কর্তৃপক্ষ দায়িত্ব নিয়েছেন। মেয়েটির সুস্থ করে তোলার দায়িত্ব বিষয়টি লালন চাকমা নিশ্চিত করেছেন।

লালন চাকমা জানান শনিবার রাত ১১ টার সময় মুঠোফোনে তাকে রোববার রাঙ্গামাটি সেনা জোনে আসতে বলা হয়। তারপর লালন চাকমা সেখানে গেলে রোববার দুপুরে সেনাবাহিনীর রাঙামাটি রিজিয়ন কমান্ডার বিগ্রেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ গোলাম ফারুক মহোদয় ইমোনা চাকমার সুচিকিৎসায় সকল ব্যয় বহন করবে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

প্রসঙ্গত,মেয়েটির নাম ইমোনা চাকমা। ঘিলাতলী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেনীর ছাত্রী। রোলঃ৪। তার বাবার নামঃ মরদ স চাকমা,মায়ের নামঃ পদ্মানন্দী চাকমা (মৃত)। তার গ্রাম : ঘিলাতলী, জুরাছড়ি।

মেয়েটি প্রায় অনাথ। গরীব বাবা মায়ের সন্তান। ইমোনা যখন ছোট ছিল তখন তার মা মারা যান। বর্তমানে পিতা ছাড়া আর কেউ নেই। তার বাবা একজন গরীব কৃষক। কোনরকম দিনমজুর ও কৃষি কাজ করে জীবন চালাচ্ছে।

ছোটবেলায় মেয়েটির শরীর আগুন লেগে অনেকটা পুড়ে গেছে। শনিবার ২৭ তারিখ তার পুরো চিকিৎসার জন্য ড: রনজিৎ কুমার কাছে শরণাপন্ন হলে ডাক্টার চিকিৎসার জন্য প্রায় দুই লাখ টাকার উপরে লাগবে বলে জানান।

এদিকে তার বাবা একজন হতদরিদ্র। তার মেয়েকে চিকিৎসা করাতে চাইলে ও করাতে পারছেন না তিনি । কারণ সে একজন দরিদ্র কৃষক।

এমতাবস্থায় তার বাবা নিঃস্ব হয়ে মেয়েকে সুস্থ জীবন ফিরিয়ে আনতে সমাজে সচেতন ও মহানুভব মানুষের কাছে আকুতি জানিয়েছেন।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত