শিরোনাম

  নৌকার জয় সুনিশ্চিত : প্রধানমন্ত্রী   আজ ইউপিডিএফ’র ২০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী   এবার থাইল্যান্ডে বৈধ হলো গাঁজা   ইউপিডিএফ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সকলকে সংগ্রামী শুভেচ্ছা জানালেন প্রসিত বিকাশ খীসা   চীনা শিশুরা আর স্কুল পালাতে পারবে না!   আবার ক্ষমতায় গেলে ভুল সংশোধন করা হবে : কাদের   প্রধানমন্ত্রী থেকে মাতৃভাষার বই পেয়েছে ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠীর শিশুরা   শুভ বড়দিন আজ   রোহিঙ্গাদের জন্য শীতবস্ত্র পাঠাল ভারত   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪০০ অধিক ছাড়িয়েছে   টাকার মালা উপহার পেলেন ফখরুল!   মধ্যরাত থেকে নির্বাচনী মাঠে সেনাবাহিনী   ভোটের দিন ২৪ ঘণ্টা সব যান চলাচল বন্ধ   সেনা মোতায়েনে ভোটারদের মধ্যে আস্থা ফিরে আসবে: সিইসি   পানছড়িতে ইউপিডিএফের নির্বাচনী অফিসে এলোপাতাড়ি ব্রাশ ফায়ারে ২ জন নিহত!   জেএসসি ও পিইসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ   আগামী ৩০ তারিখ আমরা নৌকার বিজয় নিয়ে ঘরে ফিরবো: দীপংকর তালুকদার   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২২২ জন   যারা মানুষ পুড়িয়ে মারে তাদের ভোট দেবেন নাঃ প্রধানমন্ত্রী   ২৮ ডিসেম্বর থেকে ১ জানুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত ৪ দিন মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা
প্রচ্ছদ / বিনোদন / খাগড়াছড়িবাসীকে গানে গানে মাতাবেন 'সোলস', তিশা দেওয়ান ও পারকি চাকমা

খাগড়াছড়িবাসীকে গানে গানে মাতাবেন 'সোলস', তিশা দেওয়ান ও পারকি চাকমা

প্রকাশিত: ২০১৮-১২-০১ ১৯:৩২:৪৭

   আপডেট: ২০১৮-১২-০১ ১৯:৩৫:০১

>>

২ ডিসেম্বর পার্বত্য চট্টগ্রাম চুক্তির ২১বছর পূর্তি উপলক্ষে খাগড়াছড়ি রিজিয়ন এবং খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা পরিষদের যৌথ উদ্যোগে খাগড়াছড়ি জেলাতে বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহণ করেছে। বিকাল ৩টায় খাগড়াছড়ি ঐতিহাসিক স্টেডিয়ামে সম্প্রীতি কনসার্ট অনুষ্ঠিত হবে বলে জানা গেছে।

এতে খাগড়াছড়িতে সম্প্রীতির কনসার্টে গানে গানে মাতাবেন দেশের জনপ্রিয় ব্যান্ড সংগীতের 'সোলস' এর পার্থ বড়ুয়া।

এ উপলক্ষ্যে বিভিন্ন গুণী শিল্পী খাগড়াছড়িতে সংগীত পরিবেশন করার কথা রয়েছে। তাদের মধ্যে রয়েছে রাঙ্গামাটির তিশা দেওয়ান ও পারকি চাকমা এই দুই শিল্পীকে।

এছাড়াও থাকবে বিভিন্ন ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর ঐতিহ্যবাহী নৃত্য, ফানুস উড়ানো সহ বিভিন্ন কর্মসূচি।

উল্লেখ্য,আগামী ২রা ডিসেম্বর পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তি চুক্তির ২১বছর পূর্ণ হতে চলেছে।

দিবসটি উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পৃথক বাণীতে পার্বত্য এলাকায় বসবাসরত ও সংশ্লিষ্ট সবাইকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন।

রাষ্ট্রপতি পার্বত্য জেলাসমূহের উন্নয়ন সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে দলমত নির্বিশেষে সবাইকে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানিয়ে বলেন, শান্তি চুক্তি বাস্তবায়নের ধারাবাহিকতায় গঠিত হয়েছে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয় এবং পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ। শান্তি চুক্তির মাধ্যমে পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলের আর্থসামাজিক ও অবকাঠামোগত উন্নয়ন ত্বরান্বিত হয়েছে।

পার্বত্য চট্টগ্রামসহ দেশের সর্বত্র শান্তি বজায় রাখতে বদ্ধপরিকর উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকার শান্তি চুক্তির আলোকে এ অঞ্চলের সার্বিক উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, আমরা পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়, পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদ ও তিন পার্বত্য জেলা পরিষদ গঠন করেছি। এ অঞ্চলের শিক্ষা, স্বাস্থ্য, বিদ্যুৎ, যোগাযোগ, অবকাঠামো, মোবাইল নেটওয়ার্কসহ সব খাতের উন্নয়নে ব্যাপক কর্মসূচি বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত