শিরোনাম

  ভুটানকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে ফাইনালে বাংলাদেশের মেয়েরা   খাগড়াছড়িতে সেটেলার কর্তৃক পাহাড়ী নারীকে ধর্ষণ চেষ্ঠা   গুলো-গুলি || আলোময় চাকমা   বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে ফুল দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা   মহালছড়িতে আবার ৩ গ্রামবাসীকে অপহরণ করেছে সন্ত্রাসীরা   আজ খালেদা জিয়ার জন্মদিন!   বাঙালির শোকের দিন আজ   বঙ্গবন্ধুর শোক দিবসে ২১০টি গরু জবাই দিয়ে কাঙালি ভোজ আয়োজন !   পিসিপি ২৬ তম কাউন্সিল ও ছাত্র সম্মেলন সম্পন্ন , নিপন ত্রিপুরাকে সভাপতি ও অমর শান্তি চাকমাকে সাধারণ সম্পাদক   পার্বত্য চুক্তি বাস্তবায়ন : অর্থনৈতিক না রাজনৈতিক সমস্যা ?   খাগড়াছড়িতে ৪ গ্রামবাসীকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে   শান্তি চুক্তির পর পাহাড়ে যে উন্নয়ন হয়েছে তা টেলিটক থেকে মেসেজ করে আমরা পৌঁছে দেব : তারানা হালিম   এবার বিশ্বের মধ্যে খারাপ শহরের তালিকায় ২য় স্থানের নাম লিখেছে ঢাকা , বাংলাদেশ   জিয়াউর রহমানই পাহাড়ে সমতল থেকে মানুষ নিয়ে অশান্তির বীজ বপন করেছিল   সরকারি চাকরিজীবীরা বেতন-বোনাস পাচ্ছেন বৃহস্পতিবার   নেপালকে ৩-০ গোলে হারিয়ে সেমিফাইনালে মারিয়া মান্দার দল বাংলাদেশ   দৈনিক সমকালের সম্পাদক গোলাম সারওয়ার আর নেই   শহিদুলের মুক্তির দাবি জানিয়েছেন নোবেলজয়ী স্টিগলিজসহ ১৩ বরেণ্য ব্যক্তিত্ব   খাগড়াছড়িতে ৪ গ্রামবাসীকে অপহরণ করেছে সন্ত্রাসীরা   রিমান্ড শেষে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন অভিনেত্রী নওশাবা
প্রচ্ছদ / চট্টগ্রাম / আগামী ৯ আগস্ট আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবসে তিন পার্বত্য জেলায় হরতাল দেওয়ার হুমকি

আগামী ৯ আগস্ট আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবসে তিন পার্বত্য জেলায় হরতাল দেওয়ার হুমকি

প্রকাশিত: ২০১৮-০৮-০৪ ২২:১২:৫৮

   আপডেট: ২০১৮-০৮-০৪ ২২:৩০:৫৩

অনিক বড়ুয়া , রাঙ্গামাটি

আগামী ৯ আগস্ট ২০১৮ বিশ্বব্যাপী জাতিসংঘ ঘোষিত আদিবাসী দিবস উদযাপিত হবে। বিশ্বের ৯০টি দেশের প্রায় ৪০ কোটির অধিক আদিবাসীর মতো বাংলাদেশে বসবাসকারী ৩০ লাখেরও বেশি আদিবাসী গোষ্ঠীর জনগণ এবারও জাতিসংঘ ঘোষিত ‘আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস’ উদযাপন করবে।

এবার ২০১৮ সালে প্রতিপাদ্য বিষয় হবে 'ইন্ডিজেনাস পিপলস মাইগ্রেশন এন্ড মুভমেন্ট' অর্থাৎ "আদিবাসী জনগণের দেশান্তর এবং আন্দোলন"

এদিকে, দিবসটিকে বানচাল করতে উঠে পড়ে লেগেছে কিছু পার্বত্য বাঙ্গালি সংগঠন।

বাঙ্গালি সংগঠনের কয়েক নেতা বলেছেন, আগামী ৯ আগস্ট বাংলাদেশে আদিবাসী দিবস পালন হলে তিন পার্বত্য জেলায় হরতাল ডাক দেবে তারা।  

সংগঠনের এক নেতা ফেসবুকে লিখেছেন, উপজাতিরা বাংলাদেশের পার্বত্য চট্টগ্রামের আদিবাসী নয়। বাঙ্গালীরা যুগ যুগ দরে পার্বত্য চট্টগ্রামে বসবাস করছে।উপজাতিরা বিদেশের বিভিন্ন সীমান্তপথে ব্রিটিশ শাসনকালে অনুপ্রবেশ করে পার্বত্য চট্টগ্রামে।এরা পার্বত্য চট্টগ্রামের আদিবাসী নয়। তাদের কে আদিবাসী মানে তাহলে জাতিসংঘের দেশে চলে যাওয়া উচিৎ উপজাতিদের।।১৩৪০খ্রিস্টাব্দে সোনারগাঁওরর সুলতান ফখরউদ্দির মুবারক শাহ'র সেনাপতি কদলখান গাজী যুদ্ধে বিজয়ী হয়ে সর্বপ্রথম চট্টগ্রামে বাঙ্গালী শাসন প্রতিষ্ঠা করেন। তখনো পার্বত্য চট্টগ্রামে কোনো মানুষের অস্তিত্ব ছিল না। এমন কি এখন যে রাজ পরিবার পার্বত্য চট্টগ্রামে আছে তাদেরো অস্তিত্ব ছিলো না এখানে।তারা বিভিন্ন বিদেশি রাষ্ট্র থেকে বিতাড়িত হ্মুদ্র নৃ গোষ্টি জাতি।

আগামী ৯ আগস্ট বিশ্ব আদিবাসী দিবসকে কেন্দ্র করে পার্বত্য চট্টগ্রামে বিশৃখল সৃষ্টি হতে পারে বলে মনে করছেন পাহাড়ী সংশ্লিষ্টরা।

বাংলাদেশে আদিবাসী ফোরামের উদ্যাগে সারা বিশ্বের মত আগামী ৯ আগস্ট রাজধানী ঢাকায় জাতীয় পর্যায়ে দিবসটি উদযাপন করা হবে। কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে দিবসটির শুভ উদ্বোধন করবেন মানবাধিকার কর্মী সুলতানা কামাল। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন আদিবাসী ফোরামের সভাপতি ও পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের চেয়ারম্যান জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় (সন্তু)লারমা।

জাতিসংঘ ঘোষিত এই দিনটি উদযাপন করতে বিশ্বের ৯০টি দেশের ন্যায় বাংলাদেশেও বিভিন্ন জায়গায় উদযাপন করা হবে।

এদিকে, ৯ আগস্ট কে কেন্দ্র করে পাহাড়ীদের বিরুদ্ধে নিজেদের পেইজবুক পেইজে ও গ্রুপে নানান উস্কানি ছড়াচ্ছে। অনেকে বলছেন, পাহাড়ীদের তাড়ানো এখনি সময়। উপজাতীয়দের আদিবাসী স্বীকৃতি প্রদান করলে পার্বত্য চট্রগ্রাম আলাদা রাষ্ট্রে পরিণত হবে। রাঙ্গামাটিতে বিএম মার্কেটসহ বিভিন্ন স্থানে আদিবাসী বিরোধী নানান উস্কানি ছড়াচ্ছে।

বলা বাহুল্য, পার্বত্য বাঙ্গালিরা যদি আদিবাসী হিসেবে পরিচিতি লাভ করতে চায় তাহলে তারা কিভাবে জাতিসংঘের বিরোধী? কারণ আদিবাসী হিসেবে তো একমাত্র স্বীকৃতি দেয় জাতিসংঘ। জাতিসংঘ ব্যতিত কেউ তাঁদের আদিবাসী বলে স্বীকৃতি দেবেনা।

বাংলাদেশের যাদেরকে বর্তমানে উপজাতি হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে জাতিসংঘ তাদেকে বাংলাদেশ থেকে আদিবাসী হিসেবে প্রথম স্বীকৃতি দিয়েছিল। এ কারণে বিগত বছরগুলোতে সরকার আদিবাসী দিবস ও পালন করেছিল। কিন্তু বাংলাদেশে পরবর্তীতে সংবিধান পরিবর্তন করে আদিবাসীদের “ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী”বলে আখ্যায়িত করেছে যাতে আদিবাসী দিবস পালন করতে না পারে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত