শিরোনাম

  আগামী ২৪ ডিসেম্বর জেএসসি ও প্রাথমিক সমাপনীর ফল প্রকাশ   নির্বাচনকালীন ইউএনও-ডিসির স্বাক্ষরে শিক্ষকদের বেতন-ভাতা : শিক্ষা মন্ত্রণালয়   খালেদার মনোনয়ন বাতিলের বিরুদ্ধে হাইকোর্টের বিভক্ত আদেশ   'তিন পার্বত্য জেলায় ৩৮ টি ভোটকেন্দ্রে হেলিকপ্টার ব্যবহার করা হবে'   সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ন নির্বাচন নিশ্চিত করার আহ্বান ইউরোপীয় দেশগুলোর   তরুণ ও নারী ভোটাররাই আওয়ামী লীগের বিজয়ের প্রধান হাতিয়ারঃ কাদের   গত ৫ বছরে জেএসএস এমপি উন্নয়ন করতে পারেনি, যা করেছে আওয়ামীলীগ করেছে : দিপংকর তালুকদার   এখন থেকে সরকারি চাকরিতে যোগ দেওয়ার আগে মাদক পরীক্ষা বাধ্যতামূলক   'বান্দরবানে বিদেশি পর্যটকদের ভ্রমণে কোনো নিষেধাজ্ঞা নেই'   'নির্বাচনী প্রচারণায় রঙিন পোস্টার বা ব্যানার ব্যবহার করা যাবে না'   ৫৮টি নিউজ পোর্টাল খুলে দিয়েছে বিটিআরসি   বুধবার থেকে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করবেন প্রধানমন্ত্রী   বিএনপি ক্ষমতায় এলে শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন করার চেষ্ঠা করবো: মনি স্বপন দেওয়ান   তিন পাহাড়ে নৌকা নিয়ে মাঠে দৌড়াবেন যারা   আগামীকাল খালেদা জিয়ার অগ্নিপরীক্ষা   হিরোকে জিরো বানানো এত সহজ নয়, সফল হিরো আলমের চ্যালেঞ্জ   খাগড়াছড়িতে বনের রাজা পেয়েছেন ইউপিডিএফের প্রার্থী নতুন কুমার চাকমা   বিশ্বের প্রথম উঁচু ভাস্কর্য 'চীনের স্প্রিং টেম্পল বুদ্ধ'   আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস || আদিবাসীদের মানবাধিকার প্রতিষ্ঠায় এগিয়ে আসার অাহ্বান   বনের রাজা সিংহকে নিয়ে রাঙ্গামাটিতে দৌড়াবেন ঊষাতন তালুকদার
প্রচ্ছদ / চট্টগ্রাম / আগামী ৯ আগস্ট আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবসে তিন পার্বত্য জেলায় হরতাল দেওয়ার হুমকি

আগামী ৯ আগস্ট আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবসে তিন পার্বত্য জেলায় হরতাল দেওয়ার হুমকি

প্রকাশিত: ২০১৮-০৮-০৪ ২২:১২:৫৮

   আপডেট: ২০১৮-০৮-০৪ ২২:৩০:৫৩

অনিক বড়ুয়া , রাঙ্গামাটি

আগামী ৯ আগস্ট ২০১৮ বিশ্বব্যাপী জাতিসংঘ ঘোষিত আদিবাসী দিবস উদযাপিত হবে। বিশ্বের ৯০টি দেশের প্রায় ৪০ কোটির অধিক আদিবাসীর মতো বাংলাদেশে বসবাসকারী ৩০ লাখেরও বেশি আদিবাসী গোষ্ঠীর জনগণ এবারও জাতিসংঘ ঘোষিত ‘আন্তর্জাতিক আদিবাসী দিবস’ উদযাপন করবে।

এবার ২০১৮ সালে প্রতিপাদ্য বিষয় হবে 'ইন্ডিজেনাস পিপলস মাইগ্রেশন এন্ড মুভমেন্ট' অর্থাৎ "আদিবাসী জনগণের দেশান্তর এবং আন্দোলন"

এদিকে, দিবসটিকে বানচাল করতে উঠে পড়ে লেগেছে কিছু পার্বত্য বাঙ্গালি সংগঠন।

বাঙ্গালি সংগঠনের কয়েক নেতা বলেছেন, আগামী ৯ আগস্ট বাংলাদেশে আদিবাসী দিবস পালন হলে তিন পার্বত্য জেলায় হরতাল ডাক দেবে তারা।  

সংগঠনের এক নেতা ফেসবুকে লিখেছেন, উপজাতিরা বাংলাদেশের পার্বত্য চট্টগ্রামের আদিবাসী নয়। বাঙ্গালীরা যুগ যুগ দরে পার্বত্য চট্টগ্রামে বসবাস করছে।উপজাতিরা বিদেশের বিভিন্ন সীমান্তপথে ব্রিটিশ শাসনকালে অনুপ্রবেশ করে পার্বত্য চট্টগ্রামে।এরা পার্বত্য চট্টগ্রামের আদিবাসী নয়। তাদের কে আদিবাসী মানে তাহলে জাতিসংঘের দেশে চলে যাওয়া উচিৎ উপজাতিদের।।১৩৪০খ্রিস্টাব্দে সোনারগাঁওরর সুলতান ফখরউদ্দির মুবারক শাহ'র সেনাপতি কদলখান গাজী যুদ্ধে বিজয়ী হয়ে সর্বপ্রথম চট্টগ্রামে বাঙ্গালী শাসন প্রতিষ্ঠা করেন। তখনো পার্বত্য চট্টগ্রামে কোনো মানুষের অস্তিত্ব ছিল না। এমন কি এখন যে রাজ পরিবার পার্বত্য চট্টগ্রামে আছে তাদেরো অস্তিত্ব ছিলো না এখানে।তারা বিভিন্ন বিদেশি রাষ্ট্র থেকে বিতাড়িত হ্মুদ্র নৃ গোষ্টি জাতি।

আগামী ৯ আগস্ট বিশ্ব আদিবাসী দিবসকে কেন্দ্র করে পার্বত্য চট্টগ্রামে বিশৃখল সৃষ্টি হতে পারে বলে মনে করছেন পাহাড়ী সংশ্লিষ্টরা।

বাংলাদেশে আদিবাসী ফোরামের উদ্যাগে সারা বিশ্বের মত আগামী ৯ আগস্ট রাজধানী ঢাকায় জাতীয় পর্যায়ে দিবসটি উদযাপন করা হবে। কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে দিবসটির শুভ উদ্বোধন করবেন মানবাধিকার কর্মী সুলতানা কামাল। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন আদিবাসী ফোরামের সভাপতি ও পার্বত্য চট্টগ্রাম আঞ্চলিক পরিষদের চেয়ারম্যান জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় (সন্তু)লারমা।

জাতিসংঘ ঘোষিত এই দিনটি উদযাপন করতে বিশ্বের ৯০টি দেশের ন্যায় বাংলাদেশেও বিভিন্ন জায়গায় উদযাপন করা হবে।

এদিকে, ৯ আগস্ট কে কেন্দ্র করে পাহাড়ীদের বিরুদ্ধে নিজেদের পেইজবুক পেইজে ও গ্রুপে নানান উস্কানি ছড়াচ্ছে। অনেকে বলছেন, পাহাড়ীদের তাড়ানো এখনি সময়। উপজাতীয়দের আদিবাসী স্বীকৃতি প্রদান করলে পার্বত্য চট্রগ্রাম আলাদা রাষ্ট্রে পরিণত হবে। রাঙ্গামাটিতে বিএম মার্কেটসহ বিভিন্ন স্থানে আদিবাসী বিরোধী নানান উস্কানি ছড়াচ্ছে।

বলা বাহুল্য, পার্বত্য বাঙ্গালিরা যদি আদিবাসী হিসেবে পরিচিতি লাভ করতে চায় তাহলে তারা কিভাবে জাতিসংঘের বিরোধী? কারণ আদিবাসী হিসেবে তো একমাত্র স্বীকৃতি দেয় জাতিসংঘ। জাতিসংঘ ব্যতিত কেউ তাঁদের আদিবাসী বলে স্বীকৃতি দেবেনা।

বাংলাদেশের যাদেরকে বর্তমানে উপজাতি হিসেবে আখ্যায়িত করা হয়েছে জাতিসংঘ তাদেকে বাংলাদেশ থেকে আদিবাসী হিসেবে প্রথম স্বীকৃতি দিয়েছিল। এ কারণে বিগত বছরগুলোতে সরকার আদিবাসী দিবস ও পালন করেছিল। কিন্তু বাংলাদেশে পরবর্তীতে সংবিধান পরিবর্তন করে আদিবাসীদের “ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠী”বলে আখ্যায়িত করেছে যাতে আদিবাসী দিবস পালন করতে না পারে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত