শিরোনাম

  প্রযুক্তি ফাঁদে পড়েছেন রাঙ্গামাটির জেলা প্রশাসক   সেনাক্যাম্প কমান্ডার কর্তৃক জনপ্রতিনিধিদের উপর হয়রানি ও নির্যাতনের ঘটনায় জেএসএসের প্রতিবাদ   বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে ১ কোটি মানুষের কর্মসংস্থান হবে : প্রধানমন্ত্রী   রোনালদোর গোলে এগিয়ে গেল পর্তুগাল   ইন্দোনেশিয়ায় ফেরি ডুবিতে নিখোঁজ ১৯২   চালু হলো বাইসাইকেল শেয়ারিং সেবা   আলজি দাধাহ || আলোময় চাকমা   বাংলাদেশের সমর্থকদের প্রতি মেসির ভালোবাসা   জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিল ত্যাগ যুক্তরাষ্ট্রের   পাহাড় ধস, পাহাড়িরা নয়, দায়ী মূলত সমতল থেকে নিয়ে যাওয়া বাঙালিরা : আবু সাদিক   কবি সুফিয়া কামালের ১০৭তম জন্মবার্ষিকী আজ   মিশরকে ৩-১ গোলে উড়িয়ে দিল রাশিয়া   পোল্যান্ডকে ২-১ গোলে হারিয়ে মাঠে নাচ দেখাল সেনেগাল   জাতীয় অধ্যাপক হলেন তিন বরেণ্য শিক্ষাবিদ   এক সপ্তাহে পাহাড়ে ৩ জন আঞ্চলিক নেতাকর্মী খুন   অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে রোহিঙ্গাদের মধ্যে সংঘর্ষে আহত ১০, নিহত ১   কলম্বিয়ার বিপক্ষে জাপানের জয়   চট্টগ্রামে সড়ক দুর্ঘটনায় মডেল তিথি বড়ুয়া নিহত   বাংলাদেশ থেকে তিক্ত অভিজ্ঞতা নিয়ে নিজের দেশে ফিরলেন জার্মান তরুণী   খুনের ঘটনায় জড়িত সন্দেহে প্রধান শিক্ষক দেবদাস চাকমাকে আটক করেছে পুলিশ
প্রচ্ছদ / চট্টগ্রাম / পানির নিচে খাগড়াছড়ি শহর, যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন

পানির নিচে খাগড়াছড়ি শহর, যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন

প্রকাশিত: ২০১৮-০৬-১২ ২১:০৫:১৫

   আপডেট: ২০১৮-০৬-১২ ২১:১৮:২৭

ইউএনবি, খাগড়াছড়ি

টানা তিন দিনের প্রবল বর্ষণে খাগড়াছড়ি শহরের অধিকাংশ এলাকা ও মেরুং বাজার পানির নিচে তলিয়ে গেছে। বিভিন্ন স্থানে পাহাড়ে ধস নেমেছে, বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে সড়ক যোগাযোগ।

বর্ষণ অব্যাহত থাকায় চেঙ্গী নদী উপচে খাগড়াছড়ি শহর, শহরতলী ও আশপাশের অধিকাংশ গ্রাম প্লাবিত হয়ে পড়েছে। জেলা সদরের মুসলিমপাড়া, গঞ্জপাড়া, শান্তিনগর, বাঙ্গালকাঠি, গোলাবাড়ি, কমলছড়ি, খবংপুড়িয়া ও সিঙ্গিনালার বাসিন্দারা পানিবন্দী হয়ে পড়েছেন।

এদিকে চার শতাধিক পরিবার জেলা প্রশাসন ও পৌরসভার উদ্যোগে কয়েকটি আশ্রয় কেন্দ্রে উঠেছেন।

টানা বর্ষণে খাগড়াছড়ি শহরের মেহেদীবাগ, বাস টার্মিনাল, শান্তিনগর, সবজি বাজার, গঞ্জপাড়া, মিলনপুর, মুসলিম পাড়া, ফুটবিল, মাস্টার পাড়া, শহীদ কাদের সড়ক, অর্পণা চৌধুরী পাড়া পানির নিচে তলিয়ে গেছে।

অপর দিকে দীঘিনালা উপজেলার মেরুং বাজারের আড়াই শতাধিক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পানির নিচে তলিয়ে আছে। সেই সাথে মেরুং ইউনিয়নের পাঁচটি গ্রামের পাঁচ শতাধিক পরিবার পানিবন্দী অবস্থায় রয়েছে। শতাধিক পরিবার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আশ্রয় নিয়েছে।

সড়কে পানি উঠায় খাগড়াছড়ি-রাঙামাটি সড়ক ও দীঘিনালা-লংগদু সড়কে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।

জেলার বিভিন্ন স্থানে পাহাড় ধসে বেশ কিছু ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তবে ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ এখনো জানা যায়নি।

পাহাড় ধসের আশঙ্কায় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এরই মধ্যে সংশ্লিষ্ট এলাকাগুলোকে সতর্ক করে দেয়া হয়েছে।

জেলা প্রশাসক রাশেদুল ইসলাম জানান, জেলার কোথাও এখনো পর্যন্ত বড় ধরনের পাহাড় ধসের খবর পাওয়া যায়নি। প্রশাসন প্রতিকূল পরিস্থিতি মোকাবেলায় সবাইকে নিয়ে কাজ করতে প্রস্তুত বলে জানান তিনি।  

আপনার মন্তব্য

আলোচিত