শিরোনাম

  প্রযুক্তি ফাঁদে পড়েছেন রাঙ্গামাটির জেলা প্রশাসক   সেনাক্যাম্প কমান্ডার কর্তৃক জনপ্রতিনিধিদের উপর হয়রানি ও নির্যাতনের ঘটনায় জেএসএসের প্রতিবাদ   বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে ১ কোটি মানুষের কর্মসংস্থান হবে : প্রধানমন্ত্রী   রোনালদোর গোলে এগিয়ে গেল পর্তুগাল   ইন্দোনেশিয়ায় ফেরি ডুবিতে নিখোঁজ ১৯২   চালু হলো বাইসাইকেল শেয়ারিং সেবা   আলজি দাধাহ || আলোময় চাকমা   বাংলাদেশের সমর্থকদের প্রতি মেসির ভালোবাসা   জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিল ত্যাগ যুক্তরাষ্ট্রের   পাহাড় ধস, পাহাড়িরা নয়, দায়ী মূলত সমতল থেকে নিয়ে যাওয়া বাঙালিরা : আবু সাদিক   কবি সুফিয়া কামালের ১০৭তম জন্মবার্ষিকী আজ   মিশরকে ৩-১ গোলে উড়িয়ে দিল রাশিয়া   পোল্যান্ডকে ২-১ গোলে হারিয়ে মাঠে নাচ দেখাল সেনেগাল   জাতীয় অধ্যাপক হলেন তিন বরেণ্য শিক্ষাবিদ   এক সপ্তাহে পাহাড়ে ৩ জন আঞ্চলিক নেতাকর্মী খুন   অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে রোহিঙ্গাদের মধ্যে সংঘর্ষে আহত ১০, নিহত ১   কলম্বিয়ার বিপক্ষে জাপানের জয়   চট্টগ্রামে সড়ক দুর্ঘটনায় মডেল তিথি বড়ুয়া নিহত   বাংলাদেশ থেকে তিক্ত অভিজ্ঞতা নিয়ে নিজের দেশে ফিরলেন জার্মান তরুণী   খুনের ঘটনায় জড়িত সন্দেহে প্রধান শিক্ষক দেবদাস চাকমাকে আটক করেছে পুলিশ
প্রচ্ছদ / চট্টগ্রাম / পাহাড়ি অঞ্চলে ২৪ ঘণ্টা ভারী বর্ষণের বিপদ সংকেত

পাহাড়ি অঞ্চলে ২৪ ঘণ্টা ভারী বর্ষণের বিপদ সংকেত

প্রকাশিত: ২০১৮-০৬-১২ ১১:১১:২১

   আপডেট: ২০১৮-০৬-১২ ১১:১২:৩৯

অনলাইন ডেস্ক

টানা ভারী বর্ষণে চট্টগ্রাম-রাঙামাটি সড়কের বিভিন্ন স্থান পানিতে তলিয়ে গেছে। এতে ওই রুটে সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। এদিকে চট্টগ্রাম রেল স্টেশনে দুটি ট্রেনের সিডিউল বিপর্যয় ঘটেছে।

শুক্রবার বিকেলে বৃষ্টি শুরুর পর সোমবার বিকেলে রাউজানের অন্তত ১৩টি স্থানে পানিতে ডুবে গেছে চট্টগ্রাম-রাঙামাটি সড়ক।

পাহাড়ি অঞ্চলসহ আশেপাশে আগামী ২৪ ঘণ্টায়ও ভারী বর্ষণ অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন পতেঙ্গা আবওহাওয়া অফিসের সহকারী আবহাওয়াবিদ শেখ হারুনুর রশিদ।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে ৮১ দশমিক ৬ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে। এর আগের বর্ষা মৌসুমে সর্বোচ্চ ২৩৯ মিলিমিটার বৃষ্টি বৃষ্টিপাতের রেকর্ড করা হয়েছিল। আগামী ২৪ ঘণ্টায়ও ভারী বর্ষণ অব্যাহত থাকতে পরে।

তিনি বলেন, চট্টগ্রাম, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্কতা সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। বুধবার পর্যন্ত চট্টগ্রাম ও আশপাশের এলাকায় ভারী বর্ষণ অব্যহত থাকবে। তাই পাহাড় ধসের সতর্কতা জারি থাকবে।

চট্টগ্রাম রেল স্টেশন ম্যানেজার আবুল কালাম জানান, ট্রেনে ঈদ যাত্রার তৃতীয় দিনে ভারী বৃষ্টিতে লাইনে বিভিন্ন স্থানে ত্রুটির কারণে চট্টগ্রাম থেকে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়ার অপেক্ষায় থাকা বিজয় ও চট্টলা এক্সপ্রেস ছাড়তে দেরি হচ্ছে।

এদিকে, রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলার পৃথক স্থানে ভূমিধসে ১১ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত তিনজন নিখোঁজ রয়েছেন। ১২ জুন, মঙ্গলবার উপজেলার বড়পুল, শিকলপাড়া ও হাতিমারা এলাকায় ভূমিধসের এই ঘটনা ঘটে।

তারা হলেন-বড়কূলপাড়ার একই পরিবারের তিনজন সুরেন্দ্র লাল চাকমা (৪৮), তার স্ত্রী রাজ্য দেবী চাকমা ও মেয়ে সোনালী চাকমা (০৯), হাতিমারা গ্রামের রুমেল চাকমা (১২), রিতান চাকমা (২৫) ও রীতা চাকমা (১৭),ফুলদেবী চাকমা (৩২), ইতি চাকমা (২৪) । তবে বাকী নিহতদের নাম এখনো পাওয়া যায়নি।

নানিয়ারচর উপজেলার ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান কোয়ালিটি চাকমা জানান, বড়পুল পাড়ায় চারজন, ধর্মচরণ কার্বারিপাড়ায় চারজন নিহত হয়েছেন। আর হাতিমারায় নিখোঁজ রয়েছেন আরও অন্তত পাঁচজন। বাকী নিখোঁজেদের উদ্ধারের কাজ চলছে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত