শিরোনাম

  প্রযুক্তি ফাঁদে পড়েছেন রাঙ্গামাটির জেলা প্রশাসক   সেনাক্যাম্প কমান্ডার কর্তৃক জনপ্রতিনিধিদের উপর হয়রানি ও নির্যাতনের ঘটনায় জেএসএসের প্রতিবাদ   বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলে ১ কোটি মানুষের কর্মসংস্থান হবে : প্রধানমন্ত্রী   রোনালদোর গোলে এগিয়ে গেল পর্তুগাল   ইন্দোনেশিয়ায় ফেরি ডুবিতে নিখোঁজ ১৯২   চালু হলো বাইসাইকেল শেয়ারিং সেবা   আলজি দাধাহ || আলোময় চাকমা   বাংলাদেশের সমর্থকদের প্রতি মেসির ভালোবাসা   জাতিসংঘের মানবাধিকার কাউন্সিল ত্যাগ যুক্তরাষ্ট্রের   পাহাড় ধস, পাহাড়িরা নয়, দায়ী মূলত সমতল থেকে নিয়ে যাওয়া বাঙালিরা : আবু সাদিক   কবি সুফিয়া কামালের ১০৭তম জন্মবার্ষিকী আজ   মিশরকে ৩-১ গোলে উড়িয়ে দিল রাশিয়া   পোল্যান্ডকে ২-১ গোলে হারিয়ে মাঠে নাচ দেখাল সেনেগাল   জাতীয় অধ্যাপক হলেন তিন বরেণ্য শিক্ষাবিদ   এক সপ্তাহে পাহাড়ে ৩ জন আঞ্চলিক নেতাকর্মী খুন   অস্ত্র-শস্ত্র নিয়ে রোহিঙ্গাদের মধ্যে সংঘর্ষে আহত ১০, নিহত ১   কলম্বিয়ার বিপক্ষে জাপানের জয়   চট্টগ্রামে সড়ক দুর্ঘটনায় মডেল তিথি বড়ুয়া নিহত   বাংলাদেশ থেকে তিক্ত অভিজ্ঞতা নিয়ে নিজের দেশে ফিরলেন জার্মান তরুণী   খুনের ঘটনায় জড়িত সন্দেহে প্রধান শিক্ষক দেবদাস চাকমাকে আটক করেছে পুলিশ
প্রচ্ছদ / চট্টগ্রাম / বান্দরবানে নিজের ছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে শিক্ষক, অন্তঃসত্তা হয়ে পড়েছে মেয়েটি

বান্দরবানে নিজের ছাত্রীকে ধর্ষণ করেছে শিক্ষক, অন্তঃসত্তা হয়ে পড়েছে মেয়েটি

প্রকাশিত: ২০১৮-০৫-২৮ ১৫:৫৭:৪৮

প্রতীকী ছবি।

অনলাইন ডেস্ক

বান্দরবানে নিজের শিক্ষকের দ্বারা ধর্ষণের শিকার হয়েছে চতুর্থ শ্রেণির এক স্কুলছাত্রী। এতে অন্তঃসত্তা হয়ে পড়েছে মেয়েটি। ঘটনাটি ঘটেছে জেলার থানচি উপজেলার একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে। ধর্ষক স্কুলশিক্ষক উপজেলা চেয়ারম্যান ক্যহ্লাচিং মারমার ভাগিনা।

রোববার বিকেলে ধর্ষিতার পিতা বাদি হয়ে থানচি থানায় ওই স্কুলশিক্ষককে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন। মামলার পর থেকে পলাতক রয়েছেন পাষণ্ড ওই শিক্ষক। এ ঘটনার বিচার না করে উল্টো প্রভাব বিস্তার করায় উপজেলা চেয়ারম্যানকেও আসামি করা হয়েছে।

থানচি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুস সাত্তার জানান, থানচির একটি গ্রামের জনৈক জুমচাষির মেয়ে স্থানীয় একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী। সে ওই পাড়ারই বৌদ্ধ বিহারের হোস্টেলে থেকে পড়ালেখা করছিল। অন্য শিক্ষার্থীদের সাথে ওই ছাত্রী তার স্কুলের সহকারী শিক্ষক সাইন থোয়াই মারমার কাছে প্রাইভেট পড়তো।

এ সুযোগে শিক্ষক সাইন থোয়াই গত এপ্রিল মাসে ওই স্কুলছাত্রীকে দুই বার ধর্ষণ করেন। এতে মেয়েটি অন্তঃসত্তা হয়ে পড়লে ঘটনাটি জানাজানি হয়।

ধর্ষিতার পিতা গত বুধবার থানচি উপজেলা চেয়ারম্যান ক্যহ্লাচিং মারমার কাছে বিচার দিলে তিনি বিষয়টি মীমাংসার জন্য সময় নেন। তবে শনিবার পর্যন্ত বিষয়টির কোনো সুরাহা না হওয়ায় রোববার ধর্ষিতার পিতা বাদি হয়ে স্কুলশিক্ষককে আসামি করে মামলা দায়ের করেন।

মামলায় উপজেলা চেয়ারম্যান ক্যহ্লাচিং মারমাকেও আসামি করা হয়েছে।

ধর্ষিতার পিতা ও স্থানীয়রা জানান, ধর্ষক স্কুলশিক্ষক সাইন থোয়াই উপজেলা চেয়ারম্যানের ভাগিনা হওয়ায় বিচার দেয়ার পরও বিচার না করে উল্টো প্রভাব বিস্তার করায় মামলায় তাকেও আসামি করা হয়েছে।

তবে এ বিষয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান ক্যহ্লাচিং মারমা সাংবাদিকদের জানান, বিষয়টি নিয়ে সোমবার প্রথাগত সামাজিক বিচারের আয়োজন করা হয়েছিল। তবে থানায় মামলার বিষয়টি সম্পর্কে তিনি কিছু জানেন না বলে জানিয়েছেন।

তথ্য-সূত্রঃ পরিবর্তন।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত