শিরোনাম

  নৌকার জয় সুনিশ্চিত : প্রধানমন্ত্রী   আজ ইউপিডিএফ’র ২০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী   এবার থাইল্যান্ডে বৈধ হলো গাঁজা   ইউপিডিএফ প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে সকলকে সংগ্রামী শুভেচ্ছা জানালেন প্রসিত বিকাশ খীসা   চীনা শিশুরা আর স্কুল পালাতে পারবে না!   আবার ক্ষমতায় গেলে ভুল সংশোধন করা হবে : কাদের   প্রধানমন্ত্রী থেকে মাতৃভাষার বই পেয়েছে ক্ষুদ্র জনগোষ্ঠীর শিশুরা   শুভ বড়দিন আজ   রোহিঙ্গাদের জন্য শীতবস্ত্র পাঠাল ভারত   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪০০ অধিক ছাড়িয়েছে   টাকার মালা উপহার পেলেন ফখরুল!   মধ্যরাত থেকে নির্বাচনী মাঠে সেনাবাহিনী   ভোটের দিন ২৪ ঘণ্টা সব যান চলাচল বন্ধ   সেনা মোতায়েনে ভোটারদের মধ্যে আস্থা ফিরে আসবে: সিইসি   পানছড়িতে ইউপিডিএফের নির্বাচনী অফিসে এলোপাতাড়ি ব্রাশ ফায়ারে ২ জন নিহত!   জেএসসি ও পিইসি পরীক্ষার ফল প্রকাশ   আগামী ৩০ তারিখ আমরা নৌকার বিজয় নিয়ে ঘরে ফিরবো: দীপংকর তালুকদার   ইন্দোনেশিয়ায় সুনামির আঘাতে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২২২ জন   যারা মানুষ পুড়িয়ে মারে তাদের ভোট দেবেন নাঃ প্রধানমন্ত্রী   ২৮ ডিসেম্বর থেকে ১ জানুয়ারি মধ্যরাত পর্যন্ত ৪ দিন মোটরসাইকেল চলাচলে নিষেধাজ্ঞা
প্রচ্ছদ / আর্টস / পাপুয়া আদিবাসীরা তাদের পূর্বপুরুষদের মরদেহ পুড়িয়ে সংরক্ষণ করে

পাপুয়া আদিবাসীরা তাদের পূর্বপুরুষদের মরদেহ পুড়িয়ে সংরক্ষণ করে

প্রকাশিত: ২০১৮-০৬-০৪ ২০:৩৯:০১

   আপডেট: ২০১৮-০৬-০৪ ২০:৪২:৪২

নিউজ ডেস্ক

অসাধারণ ছবিগুলোতে আত্মপ্রকাশ করেছে ইন্দোনেশিয়ার প্রত্যন্ত একটি গাঁয়ের চিত্র। প্রথম ছবিতে রয়েছে দানি আদিবাসী প্রধান এলি ম্যাবেল। তার কোলে হাত-পা মুড়ে মমি হয়ে রয়েছে তারই কোনো পূর্ব-পুরুষ। খবর ডেইলি মেইলের।

পাপুয়া নিউ গিনির মধ্যবর্তী পশ্চিম পাপুয়া দ্বীপের ওয়ামেনার ওগি গ্রামে দানি আদিবাসীর বসবাস। মমি হয়ে যাওয়া আগাত মামেটার দেহ ধারণ করছে দানি আদিবাসীর প্রাচীন ঐতিহ্য।

পাপুয়ার কেন্দ্রীয় উচ্চভূমির আদিবাসীরা তাদের পূর্বপুরুষদের মরদেহ পুড়িয়ে সংরক্ষণ করেন। এ প্রক্রিয়া শত বছর ধরে তাদের নিখুঁত রাষ্ট্রে পরিণত করেছে।
ধোঁয়ার সাহায্যে মমি তৈরির চর্চা এখন নেই। তবে দানি আদিবাসীরা এখনও তাদের পূর্বপুরুষদের সর্বোচ্চ সম্মানের প্রতীক হিসেবে এ মমি সংরক্ষণ প্রক্রিয়া অক্ষুণ্ন রেখেছে।

সাম্প্রতিক বছরগুলোতে দানিরা সারা বিশ্বের পর্যটকদের আকৃষ্ট করেছে। কিছু গ্রামে রয়েছে তাদের মূল রীতিনীতি ও ‍ছদ্ম যুদ্ধের প্রচলন।

দানি আসিবাসী পুরুষেরা কটেকা নামক স্বাতন্ত্র্যসূচক আদিবাসীয় বেশভূষা পরিধান করে। তাদের মুখে আঁকা থাকে নকশা। পশুর হাড় ও পাখির পালক তাদের সাজের অনুষঙ্গ। অন্যদিকে নারীরা পরে অর্কিড আঁশ দিয়ে তৈরি স্কার্ট। এটি তাদের কাছে নোকেন নামে পরিচিত।

প্রতি বছর আগস্টে দানি আদিবাসীরা উর্বরতা এবং পাপুয়া প্রদেশের কল্যাণে প্রতিবেশী লানি ও ইয়ালি আদিবাসীদের সঙ্গে ছদ্ম যুদ্ধ করে। এর আরেক উদ্দেশ্য তাদের প্রাচীন ঐতিহ্য সমুন্নত রাখা।

১৯৩৮ সালে নিউ গিনিতে প্রাণিবিজ্ঞান সম্পর্কিত অভিযানের সময় আমেরিকান প্রাণী বিশারদ রিচার্ড আর্কবোল্ড দানি, লানি ও ইয়ালি আদিবাসী গোষ্ঠী আবিষ্কার করেন।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত