শিরোনাম

  ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠীর জন্য মাতৃভাষায় পুস্তক প্রকাশনার বিধান রেখে খসড়ার চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা   সরকারী চাকরিতে ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ও পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর জন্য কোটা না হলেও সমস্যা হবে না   রুয়েটে ভর্তি পরীক্ষার আবেদন শুরু   দুই আদিবাসী কিশোরী ধর্ষণের ঘটনায় অভিযুক্তদের সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি   দেশের বিভিন্ন স্থানে বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টি ও ভারী বর্ষণ হতে পারে   আদিবাসী মানবাধিকার সুরক্ষাকর্মীদের সম্মেলন ২০১৮ উদযাপন   ব্লগার বাচ্চু হত্যার সঙ্গে ‘জড়িত’ ২ জঙ্গি নিহত   জুমের বাম্পার ফলনে রাঙ্গামাটির চাষিদের মুখে হাসি   সরকারি চাকরিতে আদিবাসী কোটা বহাল দাবি জানাল আদিবাসীরা   আয়ারল্যান্ড প্রবাসী বাংলাদেশের এক মন্ত্রী দ্বারা হেনস্ত হওয়াতে হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের নিন্দা   শেখ হাসিনার জনপ্রিয়তা উল্লেখযোগ্য বৃদ্ধি পেয়েছে   মিয়ানমারে রয়টার্সের দুই সাংবাদিককে সাত বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত   শহীদ আলফ্রেড সরেন হত্যার ১৮ বছর: হত্যাকারীদের দ্রুত বিচারের দাবি জাতীয় আদিবাসী পরিষদের   ভারতের কাছে ১-০ গোলে হেরেছে বাংলাদেশের মেয়েরা   সরকারী চাকরিতে নিয়োগের ক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধা ছাড়া সব কোটা বাতিল হচ্ছে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী   জাতিসংঘের সাবেক মহাসচিব কফি আনান মারা গেছেন   ঈদের ছুটি কাটানো হলোনা টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ার নিরীহ ধীরাজ চাকমার   খাগড়াছড়িতে পৃথক ঘটনার জন্য জেএসএস(সংস্কারবাদী) ও নব্য মুখোশ বাহিনীকে দায়ী করেছে : ইউপিডিএফ   নানিয়ারচর থেকে খাগড়াছড়ি   খাগড়াছড়িতে ৬ জনকে গুলি করে হত্যা !
প্রচ্ছদ / আর্টস / ২১ ডিসেম্বর থেকে বান্দরবানে তিন দিনব্যাপী ১৪০ তম ঐতিহ্যবাহী রাজপূণ্যাহ

২১ ডিসেম্বর থেকে বান্দরবানে তিন দিনব্যাপী ১৪০ তম ঐতিহ্যবাহী রাজপূণ্যাহ

প্রকাশিত: ২০১৭-১১-২২ ১৯:০০:০১

নয়ন রায়, বান্দরবান থেকে

বান্দরবানে আগামী ২১ ডিসেম্বর থেকে তিন দিনব্যাপী ১৪০তম ঐতিহ্যবাহী রাজপূণ্যাহ (পইংজ্রা) মেলা রাজার মাঠে শুরু হতে যাচ্ছে। ২১ ডিসেম্বর শুরু হয়ে রাজপুণ্যাহ চলবে ২৩ ডিসেম্বর পর্যন্ত।

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের । বুধবার সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে এই তথ্য নিশ্চিত করা হয়।আরো উপস্থিত থাকবেন প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈসিং। তাছাড়া দেশীয় অধিবাসীদের পাশাপাশি বিদেশী অতিথি ও মেলায় অংশগ্রহণ করার কথা রয়েছে।

রাজ প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, তিন দিনব্যাপী রাজপূণ্যাহ মেলা জাকজমকপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। প্রতিবারের মতো এবারও নানা আনন্দ বিনোদনের আয়োজন করা হবে। তার মধ্যে রয়েছে সার্কাস, যাত্রাপালা, পুতুল নাচ, মৃত্যুকূপসহ নানান আয়োজন। পুলিশের প্রায় ৪-৫ শ’ সদস্য মেলায় সার্বক্ষণিক নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকবেন। আর মেলার বিভিন্ন পয়েন্টে সিসি ক্যামেরা নিরাপত্তা পর্যবেক্ষনের জন্য স্থাপন করা হবে।

প্রতি বছর প্রায় ১৫ হাজার জুমিয়া আদিবাসী পরিবারের কাছ থেকে নব্বই হাজার টাকা খাজনা আদায় করা হয়। এর মধ্যে ৪২ ভাগ রাজা, ২১ ভাগ হেডম্যান এবং ২৭ রাজস্ব ভাগ সরকার পেয়ে থাকে।

আনন্দঘন পরিবেশে শান্তিপূর্ণভাবে ঐতিহ্যবাহী রাজপূণ্যাহ মেলা আয়োজনে সবার সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন রাজ প্রশাসন।

এদিকে আসন্ন ঐতিহ্যবাহী মেলাকে ঘিরে বান্দরবানের আদিবাসী-বাঙালিদের মাঝে খুশির আমেজ ছড়িয়ে পড়েছে।

উল্লেখ্য, ১৭২৭ সাল থেকে বোমাং রাজ প্রথা শুরু হলেও ১৮৭৫ সাল থেকে ধারাবাহিকভাবে বোমাং রাজাগণ ঐতিহ্যবাহী রাজপূণ্যাহ মেলার আয়োজন করে আসছেন। গতবছর ১৩৯ তম রাজপূণ্যাহ ছিল এবার ১৪০তম ঐতিহ্যবাহী রাজপূণ্যাহ পালন করা হবে।

আপনার মন্তব্য

আলোচিত